PDA

View Full Version : আকাবিরের মূল্যবান বাণী - 02



abudujanah
10-09-2018, 12:42 AM
٦ - كان عمر رضي الله عنه إذا أصابته مصيبة قال : الحمد لله ثلاثا، الحمد لله بان لم تكن في ديني، الحمد لله بان لم تكن أكبر منها، الحمدلله إذ ألهمت الصبر عليها .

06 - হযরত উমর রাযি.র উপর কোন বিপদ-আপদ এলে তিনি তিনবার আলহামদুলিল্লাহ বলতেন। তিনি বলতেন, বিপদটি যে (আমার পার্থিব বিষয়ে এসেছে) আমার দ্বীনের মধ্যে আসেনি তার জন্য আলহামদুলিল্লাহ। বিপদটি যে আরো বড় আকারের হয়নি তার জন্য আলহামদুলিল্লাহ। বিপদ আসার পর যে সবর করার তৌফিক পেয়েছি তার জন্য আলহামদুলিল্লাহ।

٧ - قال الامام الشَّافِعِيُّ رَحِمَهُ اللهُ : مَن أحَبَّ أن يَفتَحَ اللهُ قَلبَهُ أو يُنَوِّرَهُ؛ فَعَلَيهِ بِتَركِ الكَلامِ فِيمَا لَا يَعنِيهِ، واجتِنَابِ المَعَاصِي، ويَكُونُ لَهُ خَبِيئَةٌ فِيمَا بَينَهُ وبَينَ اللهِ تَعَالَى مِن عَمَلٍ، وفِي رِوَايَةٍ : فَعَلَيهِ بالخَلوَةِ، وقِلَّةِ الأكلِ، وتَركِ مُخَالَطَةِ السُّفَهَاءِ، وبُغضِ أهلِ العِلمِ الَّذِينَ لَيسَ مَعَهُم إنصَافٌ ولا أدَبٌ .
- المَجمُوعُ شَرحُ المُهَذَّب لِلنَّوَوِيِّ : ١ / ٣١

07 - যে ব্যক্তি চায়, আল্লাহ যেন তার অন্তর উন্মুক্ত করে দেন এবং আলোকিত করে দেন তার উচিত, অপ্রয়োজনীয় কথা থেকে বিরত থাকা। গুনাহ থেকে সম্পূর্ণরূপে দূরে থাকা এবং এমন কিছু 'গোপন আমল' করা যা সম্পর্কে আল্লাহ ছাড়া কেউ জানবে না। অন্য বর্ণনায় এসেছে, তার উচিত নির্জনতা অবলম্বন করা। কম আহার করা। নির্বোধ এবং এমন আলেমদের সংশ্রব বর্জন করা যাদের মাঝে ইনসাফ ও দ্বীনী আদব-লেহাজ নেই।

- ইমাম শাফেয়ী রহ.
আল মাজমূ' শরহে মুহাযযাব

٨ - قال شيخ الإسلام ابن تيمية رحمه الله تعالى : القلب إنما خلق لأجل حب الله .
مجموع الفتاوى : ١٣٤/١٠

08 - অন্তরকে সৃষ্টি করা হয়েছে একমাত্র আল্লাহকে ভালোবাসার জন্য।

-শাইখুল ইসলাম ইমাম ইবনে তাইমিয়া রহ.
*মাজমুউল ফাতাওয়া : 10/134

٩ - قال العلامة ﺍﻹﻣﺎﻡ ﺍﺑﻦ ﺍﻟﻘﻴﻢ* ﺭﺣﻤﻪ ﺍﻟﻠﻪ تعالى : ﻣﻦ ﺧﻠﻘﻪ ﺍﻟﻠﻪ ﻟﻠﺠﻨﺔ ﻟﻢ ﺗﺰﻝ ﺗﺄﺗﻴﻪ ﺍﻟﻤﻜﺎﺭﻩ ﻭﺍﻟﻤﺆﻣﻦ ﺍﻟﺤﺎﺯﻡ ﻳﺜﺒﺖ ﻟﻠﻌﻈﺎﺋﻢ ﻭﻻ ﻳﺘﻐﻴﺮ ﻓﺆﺍﺩﻩ ﻭﻻ ﻳﻨﻄﻖ ﺑﺎﻟﺸﻜﻮﻯ ﻟﺴﺎﻧﻪ ... ﻭﺗﺬﻛﺮ : ﺃﻧﻚ ﻣﺎ ﻣﻨﻌﺖ ﺇﻻ ﻟﺘﻌﻄﻰ ﻭﻻ ﺍﺑﺘﻼﻙ ﺇﻻ ﻟﺘﻌﺎﻓﻰ ﻭﻻ ﺍﻣﺘﺤﻨﻚ ﺇﻻ ﻟﺘﺼﻔﻰ .
[ ﺍﻟـﻔــﻮﺍﺋــﺪ : ( صـ 36 ) ]

09 - আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তাআলা যাকে* জান্নাতের জন্য সৃষ্টি করেছেন তার ওপর* বিপদ-আপদ আসতেই থাকবে। প্রকৃত মুমিন বিপদ-আপদের সামনে দৃঢ় থাকে। তার অন্তরের দৃঢ়তায় কোনরূপ পরিবর্তন আসে না। মুখেও সে (কারো কাছে) কোন ধরনের অভিযোগ করে না।

মনে রাখবেন, আপনাকে (বিরাট কিছু) দেয়ার জন্যই (ছোট ছোট কিছু জিনিস থেকে) বঞ্চিত করা হচ্ছে। আপনাকে (জান্নাতের স্থায়ী) আফিয়ত-সুখ শান্তি দেওয়ার জন্য*এবং (আপনার অন্তরকে) পরিশুদ্ধ করার জন্যই বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষার সম্মুখীন করা হচ্ছে।

-ইমাম ইবনুল কাইয়িম রহ.
আল ফাওয়ায়েদ : 36

*١٠ - قَالَ ابن حَجَرٍ رَحِمَهُ الله : صَاحَبَ الصدق مَعَ اللهِ لَا تضره الفِتَنُ والله يَجْعَلُ لأوليائه عِنْدَ اِبْتِلَائِهِمْ مَخَارِجَ . فتح الباري : ٩٢/٣
*
10 - যে ব্যক্তি (ভিতরে-বাইরে, কথায়-কাজে) আল্লাহর সঙ্গে সত্যবাদী দুনিয়ার ফিতনা তার কোনও ক্ষতি করতে পারে না। ফিতনা ও পরীক্ষার সময় আল্লাহ তাআলা তাঁর প্রিয় বান্দাদের জন্য (সেই ফেতনা থেকে) পরিত্রাণের বহূ পথ খুলে দেন।
-হাফেজ ইবনে হাজার আসকালানী রহ.
ফাতহুল বারী শরহে বুখারী : 3/92