PDA

View Full Version : আকাবিরের মূল্যবান বাণী - 11



abudujanah
11-17-2018, 07:26 PM
١ - فَإِذَا قَضَيْتُمُ الصَّلَاةَ فَاذْكُرُوا اللَّهَ قِيَامًا وَقُعُودًا وَعَلَىٰ جُنُوبِكُمْ .
قال ابن عباس رضي الله عنهما ‏:‏*أي بالليل والنهار، في البر والبحر والسفر والحضر والغنى والفقر والمرض والصحة والسر والعلانية‏.‏

01 -* যখন তোমরা নামায সম্পন্ন করো তখন দন্ডায়মান, উপবিষ্ট ও শায়িত (সর্বাবস্থায়) অবস্থায় আল্লাহর যিকির করো। সূরা নিসা : 103
হযরত আব্দুল্লাহ বিন আব্বাস রাযি. বলেন, আয়াতের উদ্দেশ্য হল, রাতে, দিনে, স্থলে, জলে, সফরে, বাড়িতে, স্বচ্ছল অবস্থায়, অসচ্ছল অবস্থায়, অসুস্থ থাকা কালে, সুস্থ থাকা কালে, গোপনে, প্রকাশ্যে সর্বাবস্থায় আল্লাহর যিকির করো।
* ┈┈

٢ - تفقَّدوا الحلاوة في ثلاثة أشياء : في الصلاة ، وفي الذِّكر ، وفي قراءة القرآن، فإن وجدتم وإلاَّ فاعلموا أن الطريق مُغلق . الحسن البصري رحمه الله

02 - তিনটি জিনিসে স্বাদ তালাশ করুন।
নামাযে, যিকিরে এবং কোরআন তেলাওয়াতে।
যদি পান তাহলে তো ভালো। যদি না পান তাহলে মনে রাখুন, আপনার জন্য রাস্তা এখনো বন্ধ।
-হযরত হাসান বসরী রহ.
┈┈

٣ - ‏قال الضياء المقدسي : ‏أوصاني العماد المقدسي فقال : ‏أكثر من قراءة القرآن ولا تتركه ‏فإنه يتيسر لك الذي تطلبه على قدر ما تقرأ‏ ، ‏قال : ‏فرأيت ذلك وجربته كثيراً ‏فكنت إذا قرأت كثيراً تيسر لي من سماع الحديث وكتابته الكثير ‏وإذا لم أقرأ لم يتيسر لي .
- ذيل طبقات الحنابلة : ٣/٢٠٥

03 - একবার শাইখ ইমাদুদ্দিন মাকদিসি রহ. আমাকে উপদেশ দিয়ে বললেন, (প্রতিদিন) বেশি পরিমাণে কোরআন তেলাওয়াত করবে। কিছুতেই যেন তেলাওয়াত না ছুটে। কারণ, তুমি যা অন্বেষণ করছো তা তোমার জন্য সেই পরিমাণ সহজ হবে যেই পরিমাণ তুমি কোরআন তেলাওয়াত করবে। (বেশি হলে বেশি। কম হলে কম) এরপর আমি বহুবার পরিক্ষা করে দেখেছি যে, যখনই তেলাওয়াত বেশি করতাম তখন বেশি পরিমাণে হাদিস শোনা ও লেখা আমার জন্য সহজ হতো। আর যখন তেলাওয়াত না করতাম (বা কম করতাম) তখন হাদিস শোনা ও লেখা ওরকম সহজ হতো না।
-শাইখ জিয়াউদ্দিন মাকদিসি রহ.
┈┈

٤ - *قال ابن القيم رحمه الله تعالى* : إن في دوام الذكر في الطريق والبيت والحضر والسفر والبقاع تكثيرا لشهود العبد يوم القيامة فإن البقعة والدار والجبل والأرض تشهد للذاكر يوم القيامة .
-الوابل الصيب : ٨١*
*
04 - রাস্তায়, ঘরে, সফরে, মাঠে ময়দানে তথা সর্বত্র আল্লাহর যিকির করার দ্বারা কেয়ামতের দিন বান্দার পক্ষে সাক্ষ্য দানকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি পায়। কারণ, (যেখানে যেখানে যিকির করা হয়েছে ওসব) মাঠ, বাড়িঘর, পাহাড়-পর্বত ও জমি সবই কেয়ামতের দিন যিকিরকারীর পক্ষে সাক্ষ্য দিবে।
-ইমাম ইবনুল কাইয়িম রহ. আল ওয়াবিলুস সাইয়িব : 81
┈┈

٥ - الشهرة الحقيقية في السماء، ومِن أعظم أسبابها كثرةُ ذكر الله تعالى، قال الله تعالى في الحديث القدسي : إن ذكرني في نفسه ذكرتُه في نفسي، وإن ذكرني في ملأ ذكرتُه في ملأ خير منهم .
- الشيخ عبد العزيز الطريفي فك الله اسره

05 - 'সত্যিকার প্রসিদ্ধি' (যা আপনার জন্য উপকারী হবে) তা ওটাই যা আসমানে হয়। আর এর অন্যতম উপায় হল, অধিক পরিমাণে আল্লাহর যিকির করা। হাদিসে কুদসিতে আল্লাহ তাআলা বলেন,* ‏
*إن ذكرني في نفسه ذكرتُه في نفسي، وإن ذكرني في ملأ ذكرتُه في ملأ خير منهم .

বান্দা যদি মনে মনে আমাকে স্মরণ করে আমিও তাকে মনে মনে স্মরণ করি। সে যদি কোনো মজলিসে আমাকে স্মরণ করে তাহলে তার মজলিস অপেক্ষা উত্তম মজলিসে আমি তাকে স্মরণ করি।
-শাইখ আব্দুল আজীজ আত তারিফী ফাক্কাল্লাহু আসরাহু*

Bara ibn Malik
11-17-2018, 09:32 PM
প্রিয় ভাইয়েরা, কীভাবে সবসময় যিকিরের মধ্যে মশগুল থাকবো??
কুরআন তিলাওয়াত ও সকাল সন্ধার যিকিরগুলো ছাড়া আর কি কি যিজির হাদিসে অর্ণিত আছে???

খুররাম আশিক
11-18-2018, 05:20 AM
প্রিয় ভাইয়েরা, কীভাবে সবসময় যিকিরের মধ্যে মশগুল থাকবো??
কুরআন তিলাওয়াত ও সকাল সন্ধার যিকিরগুলো ছাড়া আর কি কি যিজির হাদিসে অর্ণিত আছে???
বিজ্ঞ ভাইয়েরা উত্তর দিবেন!!

যোদ্ধা হব
11-18-2018, 03:52 PM
মাশাআল্লাহ, জাযাকাল্লাহ, বারাকাল্লাহু ফী ইলমিকা।