PDA

View Full Version : বাংলাদেশে এ কেমন সংবাদ ?



shotter torbary
01-11-2016, 04:08 PM
:confused:ব্রেকিং নিউজ
১/১/১৬শুক্রবার ঢাকা যাত্রাবাড়ীর জামিয়া ইসলামিয় দারুল উলুম মাদানীয়া মাদরাসা মসজিদে জুমার বয়ানে আল্লামা মাহমুদুল হাসান সাহেব লোকদের উদ্দেশ্য করে বলেন,
বর্তমান বাংলাদেশে কোন নাস্তিক নেই। বাংলাদেশে বর্তমানে যারা আছে সকলে আস্তিক। যারা নাস্তিকতার কথা বলে রাস্তায় নেমেছে তারা ভূল করেছে।

এর আগে ৩১/১২/২০১৫ তারিখ বৃহসপতিবার মাগরিবের পর কুরআনের তাফসিরে তিনি বলেন,বর্তমান বিশ্বে কোন নাস্তিক নেই। যারা নাস্তিকতার দোহাই দিয়ে মানুষকে গোপনে হত্যা করছে তারা দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে।
জিহাদ সম্পর্কে তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্বে কোথাও জিহাদের পরিস্থিতি নেই। যারা জিহাদের নামে কাজ করছে তারা পৃথিবীতে ফাসাদ সৃষ্টি করছে। এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বর্তমানে জিহাদের সঠিক কোন দল নেই, যারা নিজেদেরকে সঠিক বলে দাবি করছে তারা ভুল পথে আছে। কারন জিহাদের অনেক শর্ত রয়েছে যার একটিও এখন পাওয়া যায়না। তিনি আরও বলেন, এমন একটি সময় আসবে যখন জিহাদ বলতে কিছুই থাকবেনা। তখন জিহাদের নিয়ত করলেই জিহাদের ছাওয়াব পাওয়া যাবে।

কাদিয়ানীদের ব্যাপারে তিনি বলেন, আমার নিকট কাদিয়ানীরা ফোন করে বলেছে, হুজুর আপনার বয়ান খুব ভাল লাগে। কিন্তু অন্য কোন আলেমের বয়ান ভাল লাগেনা। অতঃপর তিনি বলেন, তাদেরকে এমন কোন কথা বলা যাবেনা যার কারণে তারা মনে কষ্ট পায়।

নিজস্ব প্রতিবেদক।

tamim rayhan
01-11-2016, 04:39 PM
তিনি জীবনে কোন দিন কোন ইসলামী ইস্যুতে এগিয়ে গিয়ে আন্দোলন করেন নি

আমি উনার পরিচালিত দাওয়াতুল হকের এক মাদরাসায় পড়েছি।তাই কাছ থেকে উনাকে দেখেছি।

abuusama
01-11-2016, 10:59 PM
ভাই tamim-rayhan আপনার কথাগুলু অনেকটা হিট হয়ে গেছে। উনি যেহেতু আমাদের দেশের একজন প্রসিদ্ধ আলেম তাই ওনার যথাযোগ্য আদব রক্ষা করে কথা বলব আতাই আমাদের মানহাজ ।

কাল পতাকা
01-12-2016, 07:01 AM
এই ধরনের কথা আবারো শুনতে হচ্ছে। আমার সবচেয়ে রাগ উঠে ভাইরা যখন নিজের চিন্তাকে মানহাজ বলে চালিয়ে দিতে চায়। তাদেরকে মানহাজটা মুখস্ত করানো দরকার। আর আমাদের মানহাজটা মৌলিক কিছু মাসআলার সমষ্টি। তাই একটা জিনিসের উপর সব কিছুকেই কিয়াস করা যাবে না।
সেখানে আছে উলামায়ে-সূ দের মুখোশ জাতীর সামনে উন্মোচন করব। tamim rayhan (https://dawahilallah.net/member.php?419-tamim-rayhan) ভাই যা বলেছিলেন আমার মনে হয় তা ঠিকই ছিল।

জরুরী নোটঃ উলামায়ে সূ' ও আহবার-রোহবান যাদেরকে আল্লাহ তায়ালা রব নামে ডেকেছেন তাদেরকে যাতে আমরা এক না করে ফেলি ও তাদের বিধানের ক্ষেত্রেও ভিন্নতা আছে।

উপরে উল্ল্যেখিত প্রসিদ্ধ জাহেলটি শেষ প্রকারে পরে কিনা তা একটু চিন্তা করবেন।

কাল পতাকা
01-12-2016, 07:17 AM
আমি উনার পরিচালিত দাওয়াতুল হকের এক মাদরাসায় পড়েছি। তাই কাছ থেকে উনাকে দেখেছি।

ভাই এই কথায় হয়ত কুফফারদের থেকে কোন সমস্যা নেই কিন্তু আমাদের ভাইরা যারা আপনাকে চিনে তারা হয়ত বুঝে ফেলবে আপনি কে। আমরা তো নিজেদেরকে ভাইদের থেকেও গোপন করে থাকি।
কেননা আপনি যদি জানেন যে আপনার লেখাটা আমাদের একজন ভাই পরবে যিনি আপনাকে চিনেন তাহলে পোস্ট বা কমেন্ট করার সময় নিয়াতের মধ্যে সমস্যা সাধারনত হতেই পারে।
যেমন আমি যদি জানতাম আমাকে অনেকে চিনে তাহলে হয়ত আমি অনেক কিছুই লিখতাম না। কারন চিন্তা হয়ত করতাম লিখাটায় যদিও সমস্যা নেই কিন্তু ......
কেউ হয়ত চিন্তা করতে পারে, এ কেমন লোক, এতটুকু নিয়াত ঠিক রাখতে পারে না। ভাই নিয়্যাত ঠিক রাখতে পারব কিনা তা ভিন্ন জিনিস। মূল বিষয় হচ্ছে কোন মুসলিম নিজেকে প্রয়োজন ছাড়া ফেতনায় ফেলা জায়েজ নয়। এটাও বড় একটা ফেতনা।

Boktiar
01-12-2016, 07:22 AM
আমি কাল পতাকা ভাইয়ের সাথে সহমত। মহান আল্লাহ উলামা সু-দের সঠিক বুঝ দান করুক এবং তাদের বিভ্রান্ত মূলক কথা ও কাজ থেকে আমাদের সকলকে হেফাযত করুক। (আমিন)

zany
01-12-2016, 09:26 AM
আল্লহ জাল্লাশানহু জালেম শাসকদের সামনে হক কথা বলার সৎ সাহস সবাইকে দেন না ।

Ahmad Faruq M
01-12-2016, 10:14 PM
যারা নাস্তিকতার দোহাই দিয়ে মানুষকে গোপনে হত্যা করছে তারা দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে।
তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্বে কোথাও জিহাদের পরিস্থিতি নেই। যারা জিহাদের নামে কাজ করছে তারা পৃথিবীতে ফাসাদ সৃষ্টি করছে। এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বর্তমানে জিহাদের সঠিক কোন দল নেই, যারা নিজেদেরকে সঠিক বলে দাবি করছে তারা ভুল পথে আছে।


কিছু দিন আগে পুলিশ ও ফরিদুদ্দীন মাসউদ মিলে জিহাদ বিরুধী যে ফতওয়া প্রচারের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মনে হচ্ছে তাই তিনি বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছেন !

এসব উলামায়ে ছু'দের মুখোশ জাতির সম্মক্ষে শুধু প্রকাশই নয় বরং পারলে প্রত্যেকটা মোড়ে মোড়ে বিল বোর্ড দিয়ে প্রচার করা উচিত।
আমার জানা মতে র*্যাব-পুলিশের বড় বড় বৈঠকে এই মুফতি সাহেবকে নিয়ে গিয়ে ছবক দিয়ে মগজ ধোলাই দেওয়া হয়। তাই এই ধরনের কথা উনার থেকে প্রকাশ পায়।
তাগুতের ভয়ে যারা তটস্থ তারা জিহাদের কথা কেমনে বলবে !

banglar omor
01-13-2016, 12:01 AM
{জিহাদ সম্পর্কে তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্বে কোথাও জিহাদের পরিস্থিতি নেই। যারা জিহাদের নামে কাজ করছে তারা পৃথিবীতে ফাসাদ সৃষ্টি করছে। এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে}
ওর কথা শুনে শয়তানও হতবাক হয়ে যায়! বলে কী জাহেলটা!!!!

banglar omor
01-13-2016, 12:15 AM
{{{এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বর্তমানে জিহাদের সঠিক কোন দল নেই, যারা নিজেদেরকে সঠিক বলে দাবি করছে তারা ভুল পথে আছে। কারন জিহাদের অনেক শর্ত রয়েছে যার একটিও এখন পাওয়া যায়না। তিনি আরও বলেন, এমন একটি সময় আসবে যখন জিহাদ বলতে কিছুই থাকবেনা। তখন জিহাদের নিয়ত করলেই জিহাদের ছাওয়াব পাওয়া যাবে।}}}
তিনি কি আসলেই কোন আলেম ?মনে হয়না।
সে হল আবিদ! অবাক হচ্ছেন বুঝি?
অবাক হয়ার কিছু নেই, সে হল আবিদুত তাগুত

tamim rayhan
01-13-2016, 07:22 AM
যারা ভালো তাদের প্রশংসা করব
যাদের খারাবী জাতির সামনে প্রকাশ করা উচিত
জাতীর সামনে তাদের সমালোচনা করব .............



১.বদমাশ বেঈমান এরশাদের এক মাত্র পীর এই লোক। এরশাদ এখনো উনার কাছে যাতায়াত করে। হাফেজ্জি হুজুরের মেহনতকে বরবাদ করার কারণে এদেশে লক্ষ লক্ষ আলেমের অভিশাপ এরশাদের উপর রয়েছে।
২.মুসলমানদের রক্ত ঝরানোর কাজে অর্থায়নকারী কোকাকোলার বাংলাদেশ কোম্পানীর মালিক আব্দুল মুনইম এই লোকের খাস মুরিদ। এবং তার প্রতি উনি সন্তুষ্ট।
৩.কথা বলার সময় ভাবে মনে হয় উনি বাঘ। কিন্তু কাজে উনি ভেড়া। আজ পর্যন্ত নূন্যতম কোন ইসলামী ইস্যুতে উনি এগিয়ে গিয়ে আন্দোলন করেন নি। আর জিহাদের তো স্পষ্ট বিরোধী উপরের লেখায় দেখতেই পেলেন।

ফাসেক এখন বড় পীর, বড় বুযুর্গ

রাসূল সা. এবং সাহাবাদের সম্পর্কে কুরআনে ইরশাদ হয়েছে-
তারা কুফফারদের প্রতি অতি কঠোর নিজেদের মধ্যে দয়ালু(সূরা মুহাম্মদ)

অথচ এ দেশের বেশির ভাগ ইসলাম প্রীয় মানুষ ঐ সমস্ত লোকদেরকে বড় বুযুর্গ - বড় পীর মানে যারা কুফফারদের প্রতি কঠোরতার গুণটি নেই।
যারা কোন দিন এদের অনুসারীদেরকে কিতালের ওয়াজ করে না।
বিশ্বের মুজাহিদদের পক্ষে এরা একটি কথাও উচ্চারন করে না।


মানুষ এদেরকে পীর .বুযুর্গ .শায়খ উপাধী দেয়।
অথচ ইসলাম বলে এরা ফাসেক

এই সমস্ত লোকদের উপর গভীর দৃষ্টি রাখা উচিত
যাতে প্রয়োজনের সময় সাধারন মুসলমানদের সামনে এদের ডিটেইলস পেশ করা যায়।

tamim rayhan
01-13-2016, 07:30 AM
ফাসেক এখন বড় পীর, বড় বুযুর্গ
যা কেয়ামতের অন্যতম আলামত।

রাসূল সা. এবং সাহাবাদের সম্পর্কে কুরআনে ইরশাদ হয়েছে-
তারা কুফফারদের প্রতি অতি কঠোর নিজেদের মধ্যে দয়ালু(সূরা মুহাম্মদ)

অথচ এ দেশের বেশির ভাগ ইসলাম প্রীয় মানুষ ঐ সমস্ত লোকদেরকে বড় বুযুর্গ - বড় পীর মানে যাদের মধ্যে কুফফারদের প্রতি কঠোরতার মৌলিক গুণটি নেই।
যারা কোন দিন এদের অনুসারীদেরকে কিতালের ওয়াজ করে না।
বিশ্বের মুজাহিদদের পক্ষে এরা একটি কথাও উচ্চারন করে না।

নবীজী সা. এর ওফাতের সময় তাঁর ঘড়ে চারটি তরবারী ছিল অথচ এদেশের অধিকাংশ পীরদের অবস্থা হল এরা ঘড়ে অস্র রাখবে তো দুরের কথা সেটা চিন্তাও করে না।
এরা ৬০/৭০ বছর জিন্দিগী অতিবাহিত করে ফেলে অথচ কোন দিন বন্দুকের ট্রিগার চাপার সৌভাগ্য হয়না।

মানুষ এদেরকে পীর .বুযুর্গ .শায়খ উপাধী দেয়। পিছে পিছে ঘুরে।
অথচ ইসলাম বলে এরা ফাসেক।এরা আল্লাহর গযবে পতিত।

এই সমস্ত লোকদের উপর গভীর দৃষ্টি রাখা উচিত
যাতে প্রয়োজনের সময় সাধারন মুসলমানদের সামনে এদের ডিটেইলস পেশ করা যায়।

বি.দ্র. আমার লেখার উদ্দেশ্য ঘৃণা ছড়ানো নয়। সচেতনতা সৃষ্টি করা।
যারা হ্ক্কানি আলেম তারা আমাদের মাথার মুকুট। তাদের পায়ের ধুলি কপালে মাখা সৌভাগ্য মনে করি। এদের জুতা বহন করাকে নাজাতের ওসিলা মরে করি।

কাল পতাকা
01-13-2016, 07:46 AM
ভাই চিন্তা করার বিষয় হচ্ছে তারা কি ফাসেকের সীমায় আছে না এই সীমানা পেরিয়ে "রব আহবার ও রুহবান" এর সীমায় প্রবেশ করেছে।

Ahmad Faruq M
01-13-2016, 09:26 AM
[আর চুপ থাকা সম্ভব হলো না]

যারা আল্লাহর ফরজকৃত জিহাদকে হারাম বলে ফতওয়া দেয় ! যারা জিহাদকে ফাসাদ নামে আখ্যা দেয় ! যারা প্রিয় নবী, সায়্যেদুল মুরসালীনের গোস্তখীর হত্যাকারীদের বিরোধীতায় লিপ্ত
তারা কি করে ফাসেক হয়! তারা আহবার রুহবানের ভূমিকায় কিনা চিন্তা করে দেখেন ভাই ।

omar fruque
01-13-2016, 10:10 AM
তাগুতের রাহবার। এদের থেকে সাববধান!