PDA

View Full Version : নাউজুবিল্লাহ! ১৮ জুন আনুষ্ঠানিক ঘোষণালাখো আলেমের জঙ্গিবাদবিরোধী ফতোয়া যাবে জাতিসংঘে



সিপাহসালার
06-09-2016, 03:31 PM
জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে দেশের এক লাখ মুফতির সই করা ফতোয়া পাঠানো হচ্ছে জাতিসংঘে। এছাড়া মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম রাষ্ট্র এবং মুসলিম রাষ্ট্রগুলোর সংস্থা ওআইসিতেও ফতোয়ার কপি ২০ খণ্ডে প্রকাশ করে পাঠানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
আগামী ১৮ জুন সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার পর জাতিসংঘ ছাড়াও দেশে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, প্রধান বিচারপতিসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানে তা পাঠানো হবে। বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ জমিয়াতুল উলামার চেয়ারম্যান ও শোলাকিয়া ঈদগার খতিব ফরীদ উদ্দীন মাসউদ।
জানা গেছে, ফতোয়া সংগ্রহের জন্য ১১ সদস্যের ফতোয়া সংগ্রহ কমিটি গঠন করা হয়েছিল। কমিটি সারা দেশের মসজিদ-মাদ্রাসাসহ মুফতিদের কাছ থেকে ফতোয়ায় সই নেয়। এতে মুফতিদের বিভিন্ন পরামর্শ ও ভূমিকা সংগ্রহ করা হয় এবং সেগুলো বই আকারে প্রকাশের উদ্যোগ নেওয়া হয়। ফতোয়ার কপি সংরক্ষণের জন্য জাতীয় গ্রন্থগারেও দেওয়া হবে।
জানা গেছে, গত বছরের ২ জানুয়ারি থেকে সই সংগ্রহের কাজ শুরু হয়। এ বছর ফেব্রুয়ারির মধ্যেই তা শেষ হওয়ার কথা। কিন্তু অপপ্রচারের কারণে চার মাস সময় বেশি লেগেছে।
জসীমুদ্দীন রাহমানী পরিচালিত উগ্রপন্থী আনসার উল্লাহ বাংলা টিমের তিতুমীর মিডিয়া থেকে প্রচারিত একটি ভিডিওতে জঙ্গিবাদ প্রতিরোধের ফতোয়াকে জিহাদের বিরুদ্ধে ফতোয়া দেওয়া হচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়। এই ভিডিওটিতে ফতোয়া সংগ্রহ কমিটির প্রধান ও শোলাকিয়া ঈদগার খতিব ফরীদ উদ্দীন মাসউদকে নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করা হয়। এ ফতোয়া জিহাদবিরোধী উল্লেখ করে ফতোয়ায় অংশ না নিতে আহ্বান জানানো হয়।
জানা গেছে, এক লাখ আলেমের ফতোয়া কার্যক্রমে অংশ নিয়েছে হেফাজতে ইসলামও। হেফাজতে ইসলামের আমির শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ্ আহমদ শফীর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত চট্টগ্রামের দারুল উলুম হাটহাজারী মাদ্রাসার প্রধান মুফতি মাওলানা আব্দুস সালামসহ মাদ্রাসার কয়েকজন শিক্ষক জঙ্গিবাদবিরোধী ফতোয়ায় সই করেছেন। হেফাজতের কেন্দ্রীয় মহাসচিব জুনায়েদ বাবুনগরীসহ প্রায় ১২ জন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আলেমদের ফতোয়ায় সই করেছেন। এছাড়া বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মধ্যে থাকা মুফতিরাও সই করেছেন।
ফতোয়া কমিটির প্রধান ও শোলাকিয়া ঈদগাহের ইমাম মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসউদ বলেন, জামায়াত-শিবিরসহ কিছু গোষ্ঠী ফতোয়ার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করেছে। কেউ কেউ জঙ্গি হামলার ভয়ে ফতোয়ায় সই করতে অনাগ্রহ প্রকাশ করেছেন। এছাড়া সারাদেশের বিভিন্ন স্থানে গিয়ে ফতোয়ায় সই নিতেও সময় লেগেছে।
তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ডকে ইসলাম সমর্থন করে না, এটা সবার কাছে পরিষ্কার হওয়া জরুরি। কোনও গোষ্ঠীর উস্কানিতে দেশের তরুণরা যেন বিপথগামী না হয়, সেটাও লক্ষ্য রাখতে হবে। এছাড়া দেশের সব আলেম-উলামা সম্মিলিতভাবে জঙ্গিাবাদের বিরুদ্ধে ফতোয়া দিলে ধর্মের সঙ্গে জঙ্গিবাদের যে সম্পর্ক নেই তা বিশ্বের কাছে স্পষ্ট হবে। এতে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে।
ফতোয়া সংগ্রহ কমিটির সদস্য মাওলানা আব্দুর রহীম বলেন, ফতোয়ায় সই নেওয়ার কাজ শেষ। ২০ খণ্ডে মুদ্রণের কাজও প্রায় শেষ। আগামী ১৮ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে তা প্রকাশ করা হবে।
জানা গেছে, গত বছর নভেম্বরে ভারতের আইএসবিরোধী ও জঙ্গিগোষ্ঠীর যাবতীয় কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ভারতের ১ হাজার ইমাম, মুফতি এবং ইসলামী চিন্তাবিদের সই করা একটি ফতোয়া প্রকাশ করা হয়। এ ফতোয়া জাতিসংঘ মহাসচিবের কাছেও পাঠানো হয়। এতে বলা হয়, ইসলাম সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আর আইএস সন্ত্রাসকে উসকে দিচ্ছে। এছাড়া মুসলিম দেশগুলোতেও ১৫ খণ্ডের ফতোয়া পাঠানো হয়।

tipo soltan
06-09-2016, 05:35 PM
এই মুরতাদটাকে এখনই সাইজ করে ফেলাটা জরুরী হয়ে পড়েছে। যত দেরী হবে তত তার খারাবী ছড়াতে থাকবে।

হাসবুনাল্লাহ..........................

যাদের কপালে হেদায়াত আছে তাদেরকে আল্লাহ তাআলা অবশ্যই হেদায়াত দিবেন। যাদের কপালে হেদায়াত নেই ওরাই শুধু এসব দ্বারা বিপথগামী হবে।
কাফেলা এগিয়ে যাবে আর কুকুরগুলো ঘেউ ঘেউ করবে

mohammod bin maslama
06-10-2016, 02:30 AM
কুকুরের কাজ ঘেউঘেউ করা

murabit
06-10-2016, 12:26 PM
আল্লাহ তায়ালার ব্যপক আযাবগজবের পুর্ভাবাস , স্পেন বুখারা আরাকান ইরাক সিরিয়া আফগানিস্থান রা বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসছে , সুফিয়ানির পুর্বপুরুষেরা বেরিয়ে পড়েছে , সেদিন অপরাধি কামনা করবে যদি তার সহায় সম্পদ সন্তান সন্ততি সব কিছুদিয়ে হলেও আযাব থেকে রক্ষা পাবার ব্যবস্থা হতো। কক্ষনো হবেনা।
এই আযাব থেকে রক্ষা পেতে হলে قاتلوهم يعذبهم الله بأيديكم তাদের বিরোদ্ধে যুদ্ধকর আল্লাহ তায়ালা তাদের কে তোমাদের হাতে সাস্তি দিবেন।এই আয়াতের উপর আমলে উঠে আসতে হবে,কারনঃ
তাওরাতের বিধান নাজেল হওয়া্র পর থেকে কোন কওম আযাবের উপযোক্ত হলে তাদের সাস্তি বিধানের দায়িত্ত সরাসরি আসমানি ফিরিশ্তাদের না দিয়ে অনুগত বান্দাদের দেওয়াহয়ে আসছে,তারা যদি এই সাস্তি বাস্তবায়নে এগিয়ে আসে ফিরিশ্তা দিয়ে তাদের সাহায্য করা হয় ,নতুবা দুনিয়ার ব্যপক আযাব সবাইকে ঘিরে ফেলে।
এসব ফতোয়া বাজরা আল্লাহর ব্যপক আযাব গযব আহবানকারি কুফরি শক্তি ও তাদের চেলা চামন্ডদের সাথে ফরয যুদ্ধ বাদ দিয়েছে,আবার ফরজ দায়িত্ব পালন কারি সৈনিকদের বিরোদ্ধে নেমেছে। মুজাহিদীন ছাবর তাক্ব ওয়া দেখাতে পারলে ইনশাআল্লাহু তায়ালা শত্রুদের উপর গায়রতে ইলাহীর জালাল ও প্রতাপ ও দেখতে পাওয়া যাবে।

nazir as sams
06-06-2019, 12:38 AM
এরা সবাই জাহান্নামের কুকুর বালাম ইবনে বাউরার সঙ্গী।।।আল্লাহ হেদায়েতের মালিক।।

Bara ibn Malik
06-06-2019, 02:57 PM
এদের জন্য একমাত্র ঔষধ চাপাতি!!!!

মুক্তির পথে
06-08-2019, 11:41 AM
জিহাদ বন্ধের তাদের এই মিথ্যা চেষ্টা আমাদের ঈমানকে আরও মজবুত করে তুলছে কারন এতো রসূল (স) এর ই ভবিষ্যৎ বানী

ইবনে মুজিব
06-08-2019, 08:04 PM
সকল মুজাহিদ ভাইদের উচিত এখুনি এই মুনাফিক ফরিদুদ্দিন মাসউদকে দুনিয়া থেকে চিরবিদায় করে দেয়ার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা করা।
না হয় এই দেশ ধ্বংস হতে বেশি সময় লাগবেনা!
হে আল্লাহ আপনি আমাদের সহায় হউন। আমাদেরকে সুযোগ করে দিন, যাতে করে আপনার শত্রু ও আমাদের শত্রুকে উপযুক্ত শিক্ষা দিতে পারি। আমীন

দীনের প্রহরী
06-09-2019, 06:36 AM
হে তাগুতের জুতা বহনকারী
জাতী সংঘের খাদেম, মুরতাদ হাসিনার চামচা ফরিদ ! তুই ভাবিসনা কুকুরের দলেরা তোকে আপন করে নিয়েছে বরং তারা তোকে টয়লেট টিস্যুর ন্যায় ব্যবহার করছে আর তুই বলদের মত অথবা তুচ্ছ স্বার্থের জন্য বিকে দিয়েছিস নিজেকে,,
তুই অপেক্ষায় থাক,, ইমাম মাহদীর সৈনিকেরা তোকে শায়েস্তা করতে আসছে ইনশাআল্লাহ...!
সবচেয়ে বড় কথা হল,, রাব্বুল আলামিন তোর এই কাজটাকে খারাপ বা মন্দ ও নিকৃষ্ট বলেছেন..
بئس ما اشتروا به...
তাই আমিও বলব তুই পৃথিবীর সবচেয়ে নিকৃষ্ট কাজটাই বেছে নিয়েছিস...
আল্লাহ আমাদের সকলকে হেদায়াতের উপর অটল রাখুন

ওমর বিন আ:আজিজ
06-10-2019, 09:14 AM
بادوا الي الأعمال فتزا كقطع الليل المظلم يصبك الرجل ويمسي كافرا ويمسي مؤمنا ويصبح كافرا يبيع الرجل دينه بعرض من الدنيউক্ত হাদিসের শেষাংশ যে দুনিয়ার সামান্য কিছুর জন্য তার দিনকে বিক্রি করে দিবে ,তার বাস্তব প্রতিচ্ছবি ফরিদুদুদ্দিন মাসুদ ।
তবে এখন তাকে হত্য করা সমুচিন নয় ।কারণ অনেক কাজ আছে যা শরিয়তের দৃষ্টিতে জায়েজ কিন্তু তা জনহন থেকে মুজাহিদেরকে আলাদা করে দিবে ।এটা আমার ব্যক্তিগত মতামত ,ভুলও হতে পারে ,আল্লাহই ভাল জানেন ।

shamin
06-10-2019, 03:11 PM
হে আল্লাহ, আপনি আমাদের সকলকে হেদায়েতের উপর অটল রাখুন ও ফিৎনা থেকে মুক্ত রাখুন। আমীন

Shirajoddola
06-11-2019, 06:58 AM
আল্লাহ সুবহানাহু তার হাবীব কে এ নির্দেশ দিয়েছেন, যেনো তিনি এসকল জাহান্নামের কুকুরদের শুনিয়ে দেন:

قُل لِّلَّذِینَ كَفَرُوا۟ سَتُغۡلَبُونَ وَتُحۡشَرُونَ إِلَىٰ جَهَنَّمَۖ وَبِئۡسَ ٱلۡمِهَادُ

হে নবী! আপনি কাফিরদেরকে বলে দিন, তোমরা অতিসত্বর পরাজিত হবে, অত:পর জাহান্নামে সমবেত হবে, জাহান্নাম কতইনা নিকৃষ্ট আবাস্থল। আল-ইমরান; ১২

আল্লাহ সুবহানাহু ইরশাদ করেন:
أُو۟لَـٰۤىِٕكَ ٱلَّذِینَ ٱشۡتَرَوُا۟ ٱلضَّلَـٰلَةَ بِٱلۡهُدَىٰ وَٱلۡعَذَابَ بِٱلۡمَغۡفِرَةِۚ فَمَاۤ أَصۡبَرَهُمۡ عَلَى ٱلنَّارِ

তারাই ঐসকল লোক, যারা হিদায়াতের বিনিময়ে ভ্রষ্টতা ক্রয় করেছে, ক্ষমার পরিবর্তে জাহান্নামের শাস্থিকে গ্রহণ করেছে, জাহান্নামের আযাবের উপর তারা কত ধৈর্য্যশীল!
আল-বাক্বারা; ১৭৫

সুতরাং হে কুফফার সম্প্রদায়! তোমরা শুনে রাখো, অবশ্যই তোমরা পরাজিত হবে আল্লাহর বান্দাদের হাতে, এবং লাঞ্চিত অপমানিত হয়ে জাহান্নামে প্রবেশ করবে। এবং সে সময় খুবই সন্নিকটে।