PDA

View Full Version : ||গুলশান অভিযান || ইন্ডিয়া বাংলাদেশে স্পেশাল ফোর্স পাঠাচ্ছে



ABU SALAMAH
07-02-2016, 12:04 PM
ইন্ডিয়ান টিভি চ্যানেল নিউজ এক্স জানাচ্ছে,
গুলশানের ঘটনায় ইন্ডিয়া বাংলাদেশ স্পেশাল ফোর্স পাঠাচ্ছে।


টিভি চ্যানেলটি বাংলাদেশের ঘটনার লাইভ প্রচার করছে ।



http://www.bd-desh.net/records/news/201607/225066_1.jpg

নিউজ স্ক্রুলে লেখা হয়েছে, India to Send Special Forces to Bangladsh.

অন্য বিশ্লেষকের সাথে আওয়ামী লীগ নেতা হাসান মাহমুদ ও সরকারপন্থি সাংবাদিক মজুরুল আহসান বুলবুলের
লাইভ সাক্ষাতকারও প্রচার করছে ।


বাংলাদেশ সেনা বাহিনীসহ বিভিন্ন স্পেশাল বাহিনী থাকতে ভারতীয় বাহিনী কেন পাঠাতে হবে এব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলেনি টিভি চ্যানেলটি ।

https://scontent-lhr3-1.xx.fbcdn.net/t31.0-0/p180x540/13517470_937480966375034_5135337212622589759_o.jpg



http://www.bd-desh.net/newsdetail/detail/41/225066

http://www.newsx.com/live-tv

গাযওয়াতুল হিন্দ
07-02-2016, 11:37 PM
এবার যুদ্ধ হবে । যাক এবার আমরা অত দ্রুুত যুদ্ধে শরিক হতে পারব ইন...

Ahmad Faruq M
07-03-2016, 11:31 AM
আল্লাহ তায়ালা দীনের সহীহ পথে আমাদেরকে অটল রাখুন। এ পথের মুজাহিদদের কবুল করুন। কাফের মুরতাদদের সকল কৌশল বেস্তে দিন। আমীন।

ABU SALAMAH
07-14-2016, 12:37 AM
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, গুলশানে হামলার পর একটি বৃহৎ রাষ্ট্রের একজন দায়িত্ববান কর্মকর্তা সন্ত্রাসবাদ নির্মূলে এ দেশে সৈন্য পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু বাংলাদেশ সে প্রস্তাব গ্রহণ করেনি। বাংলাদেশ বলেছে, যাচাই-বাছাই করে দেখে যখন যেটুকু প্রয়োজন, ততটুকু সহযোগিতা নেওয়া হবে।


আজ দুপুরে খুলনা সরকারি মহিলা কলেজ মিলনায়তনে ইমামদের নিয়ে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে ইসলামের আহ্বান শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে হানিফ এ কথা বলেন।


ইসলামিক ফাউন্ডেশন খুলনা বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত এ কর্মশালা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য দেন সাবেক মন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান, আলহাজ মিজানুর রহমান মিজান, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুস সামাদ, খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি এস এম মনিরুজ্জামান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালকের প্রতিনিধি মাওলানা রুহুল আমিন সিরাজী, পরিচালক হারুন অর রশিদ প্রমুখ।


হানিফ বলেন, এই বাংলাদেশে আইএস আছে, তা একবার প্রতিষ্ঠিত করতে পারলেই যে পশ্চিমা দেশগুলো এক বছর ধরে বারবার বলছে, তাদের জন্য সহজ হবে এই বাংলাদেশকে অস্থিতিশীল বলতে। এরই মধ্যে একটি বৃহৎ রাষ্ট্রের একজন দায়িত্ববান কর্মকর্তা সরকারের কাছে প্রস্তাব দিয়েছেন, সন্ত্রাস নির্মূলে তাঁরা সহযোগিতা করতে চান। এর আগেও তাঁরা সৈন্য পাঠাতে চেয়েছিলেন। আমাদের সরকার থেকে বলা হয়েছে, যাচাই-বাছাই করে দেখে যখন যেটুকু প্রয়োজন, ততটুকু সহযোগিতা নেওয়া হবে। পশ্চিমা দেশগুলো যেকোনো অজুহাতে বাংলাদেশে একবার তাদের বাহিনী ঢোকাতে পারলে, যেভাবে ইরাক, লিবিয়া ও আফগানিস্তান ধ্বংস হয়েছে, সেভাবে আস্তে আস্তে ধ্বংসের পথে নিয়ে যাবে বাংলাদেশকে।

http://www.desh-bd.net/newsdetail/detail/41/227416