PDA

View Full Version : তুরস্কে মার্শাল ল (সেনাশাসন) ঘোষণা



banglar omor
07-16-2016, 07:20 AM
তুরস্কে মার্শাল ল (সেনাশাসন) ঘোষণা করে সারা দেশে কারফিউ জারি করেছে সেনাবাহিনীর একাংশ। তুরস্কের পার্লামেন্টের পাশে, প্রেসিডেন্ট ভবনে ও ইস্তাম্বুল বসফরাস প্রণালীতে গোলাগুলির শব্দ শোনা গেছে।

শুক্রবার সেনা অভ্যুত্থানের এ ঘটনায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, সেনাবাহিনীর ক্ষুদ্র একটি অংশ এ অভ্যুত্থান চেষ্টা করছে।

তবে সিএনএন বলছে, তুরস্ক এ মুহূর্তে কোন পক্ষের নিয়ন্ত্রণে আছে তা স্পষ্ট নয়।

এদিকে, এ ঘটনার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন এরদোয়ান। জন কেরি গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকার ব্যবস্থার ওপর জোরারোপ করেছেন।

তুরস্কের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, তারা সরকারের কাছ থেকে ক্ষমতা জব্দ করেছে এবং মার্শাল ল ঘোষণা করেছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন টিআরটি বিষয়টি জানিয়েছে।

রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান বলেছেন, শৃঙ্খলা ভেঙে কিছু অভ্যুত্থান চেষ্টা করছে। এর প্রতিবাদে জনগণতে রাস্তায় নেমে আহ্বান জানিয়েছেন।

তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদলু জানিয়েছে, আংকারায় প্রেসিভবনে ভবনে গোলাগুলি শব্দ শোনা গেছে। সংস্থাটি আরো বলছে, দেশের সেনাপ্রধানকে জিম্মি করেছে অভ্যুত্থানকারীরা।

সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অভ্যুত্থানকারীদের একটি হেলিকপ্টার ভূপাতিত করেছে তুরস্কের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
সূত্র:http://www.ntvbd.com/world/62595/

আবু মুহাম্মাদ
07-16-2016, 07:47 AM
তুরষ্কের বর্তমান অবস্থা আল-জাজিরা আরবিতে লাইভ দেখুন,


https://www.youtube.com/watch?v=elqcDJ3TXUs

banglar omor
07-16-2016, 07:56 AM
বিদ্রোহী সেনা সদস্যদের অস্ত্র সমর্পণ
তুরস্কে অভ্যুত্থানচেষ্টায় অংশ নেয়া সৈন্যদের বাকি সদস্যরা অস্ত্র সমর্পণ করছেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ইস্তাম্বুলের তাকসিম স্কয়ারে ১০ বিদ্রোহী সৈন্য সশস্ত্র পুলিশের কাছে তাদের অস্ত্র জমা দিয়েছে।
তবে এখনো বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ঘটছে বলে জানা গেছে। পার্লামেন্ট ভবনের বাইরে দুটি বিস্ফোরণের খবর দিয়েছে রয়টার্স।
তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়িলদিরিম জানিয়েছেন, সামরিক অভ্যুত্থান প্রতিরোধ করা হয়েছে। সারা দেশ সরকারের নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। তিনি জানান, তুরস্ক সেনাবাহিনীর একটি গ্রুপ দৃশ্যত ক্যু করার চেষ্টা করেছিল। তিনি বিস্তারিত বিবরণ দেননি। তবে জানিয়েছেন, গণতন্ত্রকে বাধাগ্রস্ত করার কোনো চেষ্টা বরদাস্ত করা হবে না।

শুক্রবার রাতে সামরিক বাহিনীর একটি অংশ দাবি করে, তারা দেশের সব নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করেছে। তারা সারা দেশে সামরিক আইন কারফিউ জারি করার কথাও জানায়। পার্লামেন্ট ভবনের বাইরে গোলাবর্ষণও করেছে। তারা সেনাপ্রধান হুলসি আকারকে পণবন্দি করে। রাজধানী আঙ্কারার আকাশে সামরিক বিমান উড়ার শব্দও শোনা যায়।

পুলিশ জানিয়েছে, যেসব সৈন্য সামরিক অভ্যুত্থানচেষ্টার সাথে জড়িত ছিল তাদের বেশির ভাগকে আটক করা হয়েছে।
- See more at: http://www.dailynayadiganta.com/detail/news/136206#sthash.V2dBFyJp.dpuf

banglar omor
07-16-2016, 08:01 AM
তুরস্কে সেনা অভ্যুত্থান প্রতিহত করতে রাজপথে মানুষ
তুরস্কে এক সামরিক অভ্যুত্থানের প্রচেষ্টা ব্যর্থ করতে প্রেসিডেন্ট তায়্যিব এর্দোয়ানের ডাকে সাড়া দিয়ে হাজার হাজার সমর্থক বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ করছে।
দেশের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম বলেছেন, পরিস্থিতি এখন সরকারের নিয়ন্ত্রণে এসেছে, এবং রাজধানী আনকারার আকাশে বিমান উড্ডয়ন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।
প্রেসিডেন্ট এর্দোয়ানের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে তুরস্কের ঘনিষ্ঠ মিত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।
প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা এক বিবৃতিতে সকল পক্ষকে দেশের গণতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচিত সরকারকে সমর্থন করার জন্য এবং রক্তপাত এড়ানোর আহ্বান জানান।
আনকারায় সরকার সমর্থকরা রাষ্ট্রীয় প্রচার মাধ্যম টিআরটি-র নিয়ন্ত্রণ অভ্যূত্থানকারীদের হাত থেকে দখল করে নেয়।
প্রেসিডেন্ট তায়্যিব এর্দোয়ানের সমর্থকরা ইস্তানবুলের আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের ভেতরে অবস্থান নিয়েছে।
বিভিন্ন মসজিদ থেকে ফজরের নামাজের কয়েক ঘণ্টা আগেই আযান দেয়া হয় এবং মানুষকে ‘গণতন্ত্র রক্ষার’ জন্য রাস্তায় নামার আহ্বান জানানো হয়।

মোবাইল ফোনে দেয়া এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট তায়্যিব এর্দোয়ান সমর্থকদের রাস্তায় নামার আহ্বান জানান।
এর আগে, একটি টেলিভিশন ঘোষণায় তুরস্কের সেনাবাহিনীর একটি অংশ দাবি করে, তারা দেশের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে।
ইস্তানবুলের সঙ্গে দেশের অন্য অংশের ব্রিজ বন্ধ করে দেয়া হয়।
সেনাবাহিনীর বিবৃতিতে বলা হয়, এখন থেকে একটি 'পিস কাউন্সিল' দেশ পরিচালনা করবে। দেশে কারফিউ এবং মার্শাল ল' জারি করা হয়েছে।
তবে এখনো এটা পরিষ্কার নয় যে, এই ঘটনার সঙ্গে কারা জড়িত।
এই ঘটনাকে ক্ষুদ্র একটি গোষ্ঠীর প্রচেষ্টা বলে বর্ণনা করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসিপ তায়্যিব এর্দোয়ান। তিনি দেশের জনগণকে এর বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে আসার আহবান জানান।
তিনি আঙ্কারায় যাচ্ছেন বলেও ঘোষণা দিয়েছেন।

আঙ্কারা ও ইস্তানবুলে সেনা সদস্যদের টহল দিতে দেখা যাচ্ছে
তুরস্কের একটি টেলিভিশন বলছে, রাজধানী আঙ্কারায় অভ্যুত্থান চেষ্টার পক্ষের একটি হেলিকপ্টার গুলি করে ভূপাতিত করেছে সরকারি ফাইটার বিমান।
এর আগে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইয়ালদ্রিম জানিয়েছিলেন, তুরস্কে সেনাবাহিনীর একটি অংশ বেআইনি অভিযান শুরু করেছে।
তিনি বলেছেন, কোন অনুমতি ছাড়াই সেনাবাহিনীর সদস্যরা ওই অভিযান শুরু করেছে। তবে এটা কোন অভ্যুত্থান নয়।
টার্কিশ সরকারে কোন পরিবর্তন হয়নি বলেও তিনি জানান।
তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় গোলাগুলির হচ্ছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। ইস্তানবুলের পুলিশ সদর দপ্তর এলাকাতেও গোলাগুলির শব্দ পাওয়া যাচ্ছে।
ইস্তানবুল বিমানবন্দরের বাইরে ট্যাংক মোতায়েন করা হয়েছে।

তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বলছেন, সেনাবাহিনীর একটি অংশ বেআইনিভাবে অভিযান শুরু করেছে
কারফিউ ঘোষণা করা হলেও, এর্দোয়ানের একদল সমর্থক ইস্তানবুলের তাকসিম স্কোয়ারে জড়ো হয়েছেন। সেখানেও সংঘর্ষ হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।
ইউরোপীয় ইউনিয়নের একটি সূত্র রয়টার্সকে বলেছে, সবকিছু দেখে এটা একটি পরিকল্পিত অভ্যুত্থান বলেই মনে হচ্ছে। কারণ তারা সব গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থান নিয়েছে। খুব সহজে এর শেষ হবে বলে মনে হচ্ছে না ।
এনটিভি টেলিভিশনকে টেলিফোনে মি. ইয়ালদ্রিম বলছেন, কোন একটি চেষ্টার সম্ভাবনার বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। তবে এ ধরণের কোন চেষ্টা বরদাস্ত করা হবে না।
তিনি অবশ্য আর কোন বিস্তারিত জানাননি। যারা এজন্য দায়ী,তাদের মূল্য দিতে হবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।
বসফরাস নদীর দুইপাশেই যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে এবং ইস্তানবুলের ফেইথ সুলতান মেহমেত ব্রিজটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

banglar omor
07-16-2016, 08:09 AM
এরদোগানের ডাকে তুরস্কের রাস্তায় জনবিস্ফোরণ
http://i.imgur.com/kxQDaJn.jpg

banglar omor
07-16-2016, 08:46 AM
সেনা অভু্ত্থ্যান রুখে দিল মুসলিম জনতা
http://i.imgur.com/Orc69gh.jpg