PDA

View Full Version : আমার প্রিয় ও সন্মানিত ভাইগণ !



Ahmad Faruq M
08-10-2016, 02:34 PM
মূলনীতি মেনে চলি

@ আমার প্রিয় ও সন্মানিত ভাইগণ !

" আস সালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ "

এই ফোরামে আমাদের অনেক সন্মানিত আলেম উলামাগন বিভিন্ন ছদ্মনামে থাকতে পারেন ও আছেন। মাওলানা,মুফতিগণ আছেন। আমরা রিপ্লাই এর ক্ষেত্রে অত্যন্ত আদবের সাথে ও চিন্তা ভাবনা করে সঠিক ও নির্ভরযোগ্য তথ্যের আলোকে পর্যালোচনা করবো ইনশাআল্লাহ। সামনা সামনি যাদের চেহারা দেখলে হয়তো অনেকে আনন্দিত হয়ে পড়তাম। যা অনেক সময় ফোরামের পাতায় হয় না। বরং উলটো অনেক সময় আক্রমনাত্নক বা তর্ক বা আদবের খেলাফ হয়ে যাচ্ছে। কারো কোন কথায় ভূল পেলেই সেটা নিয়ে কাউকে গায়েল করা বা ভুল খোজা থেকে আমরা বেঁচে থাকবো ইনশাআআল্লাহ। আমরা প্রত্যেকের পোষ্ট এর মূল উদ্দেশ্য বুঝার চেষ্টা করে সেখানে তার ভুল হলে দরদের সাথে উত্তম ভাষায় তাকে শুধরিয়ে দেবো ইনশাআল্লাহ।
উত্তম ভাবে ভাষার ব্যবহার করে নসিহার দায়ীত্ব আদায় করবো ইনশাআল্লাহ।
আর পোষ্ট বা কমেন্টের এর সময়ে নিচের আয়াতটি স্মরন রাখিঃ-

>> مَا يَلْفِظُ مِنْ قَوْلٍ إِلَّا لَدَيْهِ رَقِيبٌ عَتِيدٌ<<

"মানুষ যাই উচ্চারণ করে তার জন্য রয়েছে সংরক্ষনকারী প্রহরী"। (সুরা ক্বাফ ১৮)

মতের অমিল হলে ভাতৃত্বের অধিকার ও আদবের প্রতি আগের চেয়ে আরো বেশী যত্নশীল হই।

সুরা হুজতারের শিক্ষা যেন দিলের মধ্যে গেথে নেই। ইরশাদ হচ্ছে আল্লাহ জাল্লা শা'নুহুর বানীঃ-

يَاأَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا اجْتَنِبُوا كَثِيرًا مِنَ الظَّنِّ إِنَّ بَعْضَ الظَّنِّ إِثْمٌ وَلَا تَجَسَّسُوا وَلَا يَغْتَبْ بَعْضُكُمْ بَعْضًا أَيُحِبُّ أَحَدُكُمْ أَنْ يَأْكُلَ لَحْمَ أَخِيهِ مَيْتًا فَكَرِهْتُمُوهُ وَاتَّقُوا اللَّهَ إِنَّ اللَّهَ تَوَّابٌ رَحِيمٌ

কে সালাফি, কে হানাফী, কে দেওবন্দী, কে অন্য কিছু, কে আরবী কে আজমী এগুলো নিয়ে আলোচনার কোন দরকার নেই। আলোচনা হবে মূল কাজ নিয়ে, তবে হ্যা আমরা অবশ্যই সকলকেই সন্মান করি আহলেসুন্নাহ এর অন্তর্ভূক্ত মনে করি যতক্ষন না তাদের কারো কাছ থেকে এর বাহিরে স্পষ্ট কিছু প্রকাশ না পায়।
আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ-



يَاأَيُّهَا النَّاسُ إِنَّا خَلَقْنَاكُمْ مِنْ ذَكَرٍ وَأُنْثَى وَجَعَلْنَاكُمْ شُعُوبًا وَقَبَائِلَ لِتَعَارَفُوا إِنَّ أَكْرَمَكُمْ عِنْدَ اللَّهِ أَتْقَاكُمْ إِنَّ اللَّهَ عَلِيمٌ خَبِيرٌ

এই আয়াতের তাফসিরে ইবনে কাছীর রাঃ নিচের হাদিছগুলো নিয়ে এসেছেনঃ-

: إن النبي - صلى الله عليه وسلم - قال له : " انظر ، فإنك لست بخير من أحمر ولا أسود إلا أن تفضله بتقوى . تفرد به أحمد .

وقال الحافظ أبو القاسم الطبراني ... سمعت محمد بن حبيب بن خراش العصري ، يحدث عن أبيه : أنه سمع رسول الله - صلى الله عليه وسلم - يقول : المسلمون إخوة ، لا [ ص: 387 ] فضل لأحد على أحد إلا بالتقوى "

قال أبو بكر البزار في مسنده عن حذيفة قال : قال رسول الله - صلى الله عليه وسلم - : " كلكم بنو آدم . وآدم خلق من تراب ، ولينتهين قوم يفخرون بآبائهم ، أو ليكونن أهون على الله من الجعلان " .




সত্যের মাপকাঠি কোরআন সুন্নাহ, সাহাবায়ে কেরামগণ।

ইখতেলাফের এই জমানায় করনীয় সম্পর্কে নির্দেশনাঃ-

قال - صلَّى الله عليه وسلَّم -: ((إنَّه مَن يعشْ منكم، فسيرى اختلافًا كثيرًا؛ فعليكم بسُنَّتي، وسُنَّة الخلفاء الراشدين المهديين، تمسَّكوا بها، وعَضوا عليها بالنواجذ)).


وقال حذيفة - رضي الله عنه -: "كلُّ عبادة لم يتعبَّدْها أصحابُ محمد - صلَّى الله عليه وسلَّم - فلا تتعبَّدوها؛ فإنَّ الأوَّل لم يتركْ للآخر مقالاً".


وقال عمر بن عبدالعزيز - رحمه الله -: "سنَّ رسول الله - صلَّى الله عليه وسلَّم - وولاة الأمرِ من بعده - يَعني: الخلفاء الراشدين، وأئمة الصحابة الْمَهديين - سُنَنًا، الأخذُ بها تصديقٌ لكتاب الله، واستكمال لطاعة الله، وقوَّة على دين الله، ليس لأحدٍ تغييرُها ولا تبديلها، ولا النظر في شيء ممَّا خالفَها، مَن عمل بها مُهتدٍ، ومَن انتصر بها منصور، ومَن خالفَها اتَّبع غيرَ سبيل المؤمنين، وولاَّه الله ما تولَّى، وأصْلاه جهنَّمَ وساءتْ مصيرًا".



সুতরাং ...কোরআন-সুন্নাহ ও যার উপর চিলেন সালাফুল উম্মাহ তাই হকের দলীল, হেদায়েতের মাপকাঠি।
...............।
فالكتاب والسُّنة، وما كان عليه السلف الصالح من هذه الأمَّة، هي براهين الحقِّ، ومَعَالِم الهداية، وموازين الأمور، وهي التي تزكِّي النفوس، وتُطمْئِن القلوب، وتَشْرح الصدور، وتُنوِّر البصائر، وتُرجِّح العقول، وتُسَدِّد الأقوال، وتُصلح الأعمال، وتُجمل الأحوال، وتُحسن المآل، وما سوى هذه الثلاثة، فهي شرُّ الْمُحدثات، وأنواع الضلالات الْمُهلكات، التي تصدُّ عن الهدى، وتنافي التقوى، وتَجلب العمى، وتُورِث الشقاء.

সুতরাং আমরা সতর্ক হই, সত্য প্রকাশিত হয়ে যাওয়ার পর তার প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ বিরোধিতা করা হতে।

وروي عن النبي - صلَّى الله عليه وسلَّم - في المراد بقوله - تعالى -: ﴿ وَلَا تَكُونُوا كَالَّذِينَ تَفَرَّقُوا وَاخْتَلَفُوا مِنْ بَعْدِ مَا جَاءَهُمُ الْبَيِّنَاتُ وَأُولَئِكَ لَهُمْ عَذَابٌ عَظِيمٌ ﴾ [آل عمران: ١٠٥]،
أنَّهم أصحاب البدع والضلالات، ورُوي عنه - صلَّى الله عليه وسلَّم - أنه قال: ((لكلِّ صاحبِ ذنبٍ توبة، ما خلا أصحاب الأهواء والبِدع؛ ليس لهم توبة)).


আল্লাহ তায়ালা আমাদের কে সঠিক পথে পরিচালিত করুন। কোন প্রকারের তায়াচ্চুবী (গোড়ামী) হতে অ ছাড়াছাড়ি (তাকচীর / মোদাহানা )হতে হেফাজতে রাখুন। আমীন।

Abu Ahmed
08-10-2016, 03:01 PM
কে সালাফি, কে হানাফী, কে দেওবন্দী, কে অন্য কিছু, কে আরবী কে আজমী এগুলো নিয়ে আলোচনার কোন দরকার নেই।

বিভেদ মানেই ফিতনা। দুর্বল হয়ে পড়া। মনে রাখা উচিৎ

আবু মুহাম্মাদ
08-10-2016, 03:57 PM
যারা পোস্ট ফিল্টারিং একসেস করেন তাদের জন্য একটা নিয়ম থাকার দরকার, কোন ধরনের নিদ্রিশট ব্যক্তি বাঁ জাতি কেন্দ্রিক পোস্ট যাতে না দেয়া হয়।

আসলে ভাষা মানুষের অন্তরের উপর দালালত করে। খারাপ ভাষা কোন মুজাহিদ ভাই ব্যবহার করতে পারেন না। যারা ফিতনা করতে চায় তারাই এগুলো করে থাকে।

একজন মুজাহিদের ভুল কাজ দেখে জিহাদ ছেড়ে দেয়া মানে একজন নামাজীর ভূল নামাজ দেখে নামাজ পড়া ছেরে দেয়া।

salahuddin aiubi
08-10-2016, 08:18 PM
বিভেদ মানেই ফিতনা। দুর্বল হয়ে পড়া। মনে রাখা উচিৎ

ঠিক।

The Flame Of Islam
08-10-2016, 09:53 PM
যাযাকাল্লাহ খাইরান। সময় উপযোগী পোস্ট।দায়িত্বশীল ভাইদের থেকে এটাই আশা করছিলাম।আল্লাহ আপনাকে উত্তম প্রতিদান দিক।আমাদের ভুল গুলো ক্ষমা করে দিক। আমাদের ভাতৃত্ব বন্ধন বারিয়ে দিক।

Abu Waqas
08-11-2016, 05:37 AM
জাযাকআল্লাহ খাইর, আখি।
আল্লাহ তায়ালা আমাদের কে সঠিক পথে পরিচালিত করুন। কোন প্রকারের তায়াচ্চুবী (গোড়ামী) হতে অ ছাড়াছাড়ি (তাকচীর / মোদাহানা )হতে হেফাজতে রাখুন। আমীন।