PDA

View Full Version : তায়েফায়ে মানসুরাহ



কাল পতাকা
08-10-2015, 07:12 AM
ওহে! ইমানদার ভাই,
আল্লাহ তায়ালা মানুষের হেদায়াতের জন্য কুরআন নাজেল করেছেন। এই কুরআন এসে শিক্ষা দিল যে, ইসলাম আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে মানুষের জন্য পূর্ণাঙ্গ এক জীবন বিধান।
মানুষের ব্যক্তি থেকে আন্তর্জাতিক প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে আল্লাহ তায়ালার হুকুমকে বাস্তবায়ন করা ইসলাম আবশ্যক করে। সাথে সাথে জীবনের প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে আল্লাহর হুকুমের বিপরিত জাহিলিয়্যাতকে দূর করার ঘোষণা দেয়।
ইসলাম শুধু শিক্ষা-গবেষনা ও দাওয়াতের মধ্যে সীমাবধ্য থাকেনা বরং অস্ত্রে-শস্ত্রে শজ্জিত জাহিলিয়্যাতের ধারক বাহীনিকে নিঃশেষ করে দ্বীনকে পূরা দুনিয়াতে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য জিহাদকে ফরয করে দেয়। এই পথের পথিকরা মনগড়া পথে না চলে প্রত্যেকটা কাজে আল্লাহ তায়ালার বিধানকে বাস্তবায়ন করবে। এবং আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে নুসরাহ বা সাহায্য নিয়ে পূরা পৃথীবিতে তার কালিমাকে বুলন্দ করবে।তারাই হচ্ছে ত্বায়েফায়ে মানসুরাহ।

ইসলাম সবার জন্য
ইসলাম ধর্ম পরিপূরন ও সবার জন্য গ্রহন করা সহজ। একমাত্র ধ্বংস প্রাপ্ত ব্যক্তিই এই দ্বীন থেকে বিচ্যুত হবে।
قال عليه السلام : قَدْ تَرَكْتُكُمْ عَلَى الْبَيْضَاءِ لَيْلُهَا كَنَهَارِهَا لَا يَزِيغُ عَنْهَا بَعْدِي إِلَّا هَالِكٌ .
আমি তোমাদেরকে স্বচ্ছ দ্বীনের উপর রেখে যাচ্ছি যার রাত্রটাও তার দিনের মত ( ওফাতের পরও একই অবস্থায় থাকবে)। ধ্বংস প্রাপ্ত ব্যক্তি ব্যতিত অন্য কেহ এই দ্বীন থেকে বিচ্যুত হবে না।

সাহায্যপ্রাপ্তদলের অস্তিত্ব
ইসলাম শুধু কুরআন ও হাদিসে পূর্ণ রুপে বিদ্যমান শুধু তাই নয় বরং বাস্তবেও পূর্ণ হকের উপর প্রতিষ্ঠিত একটি দল থাকবে।
قال عليه السلام : لا تزال طائفة من أمتي قائمة بأمر الله لا يضرهم من خذلهم أو خالفهم حتى يأتي أمر الله وهم ظاهرون على الناس
সর্বদা একটি দল দ্বীন নিয়ে প্রতিষ্ঠিত থাকবে। বিরোধীরা তাদের কোন ক্ষতি করতে পারবে না। আল্লাহর আদেশ আসা পর্যন্ত তারা মানুষের উপর বিজয়ী থাকবে।

জিহাদের হুকুমও স্থায়ী
শরীয়তের অনন্যা বিধানের মতো জিহাদও কেয়ামত পর্যন্ত ফরজ। পূর্ণ শরীয়তের একটি অপরিহার্য অঙ্গ।
قال عليه السلام : وَالْجِهَادُ مَاضٍ مُنْذُ بَعَثَنِىَ اللَّهُ إِلَى أَنْ يُقَاتِلَ آخِرُ أُمَّتِى الدَّجَّالَ لاَ يُبْطِلُهُ جَوْرُ جَائِرٍ وَلاَ عَدْلُ عَادِلٍ
আল্লাহ আমাকে প্রেরণ করার দিন থেকে শেষ উম্মত দাজ্জালকে হত্যা পর্যন্ত জিহাদ চলমান থাকবে। কোন অত্যাচারীর নির্যাতন বা ইনসাফগারের ইনসাফ তাকে বন্ধ করতে পারবে না।

দ্বীনের বিজয়ী দলটির কর্ম
আহলে হক হতে হলে আবশই দ্বীনের এই ফরজটি পালন করতে হবে। অনন্যা আমাল আদাব সহ পালন করেও জিহাদ ছেড়ে দেয়ার কারণে গুমরাহ হয়ে যাবে। কেননা একটা অংশকে ছেড়ে দিলে কোন ব্যক্তই পূর্ণ হক হতে পারে না।
قال عليه السلام : لن يبرح هذا الدين قائماً يُقاتل عليه عصابةٌ من المسلمين حتى تقوم الساعة
কেয়ামত পর্যন্ত একটি দলের কিতালের মাধ্যমে এই দিন প্রতিষ্ঠিত থাকবে।

কুরানে তাদের গুনাবলি
আল্লাহ তায়ালা তাদের ৬ টা গুনের বর্ণনা দিয়েছেন।
قال الله تعالى : يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا مَنْ يَرْتَدَّ مِنْكُمْ عَنْ دِينِهِ فَسَوْفَ يَأْتِي اللَّهُ بِقَوْمٍ يُحِبُّهُمْ وَيُحِبُّونَهُ أَذِلَّةٍ عَلَى الْمُؤْمِنِينَ أَعِزَّةٍ عَلَى الْكَافِرِينَ يُجَاهِدُونَ فِي سَبِيلِ اللَّهِ وَلَا يَخَافُونَ لَوْمَةَ لَائِمٍ ذَلِكَ فَضْلُ اللَّهِ يُؤْتِيهِ مَنْ يَشَاءُ وَاللَّهُ وَاسِعٌ عَلِيمٌ
হে ঈমান্দারগন! তোমাদের মধ্য থেকে যে তার দ্বীন থেকে ফিরে যাবে, অবশ্যই আল্লাহ তায়ালা এমন দল নিয়ে আসবেন যাদেরকে তিনি ভালবাসেন তারাও তাকে ভালবাসে, মোমিনদের প্রতি সদয় কাফের দের প্রতি কঠোর, যারা আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ করে এবং তারা কোন তিরস্কারকারীর তিরস্কারকে ভয় করে না।
আল্লাহ তায়ালা যেই হক দলটাকে বাতেলদের স্থানে নিয়া আসবেন তাদের আবশ্যকীয় গুণাবলীর প্রত্যেকটাই একমাত্র মুজাহিদদের মধ্যেই পূর্ণরূপে পাওয়া যায়। কেননা কুরানের মাপকাঠি অনুযায়ী আল্লাহকে ভালবেসে মৃত্যু কামনা করে একমাত্র মুজাহিদরাই। মাজলুম মুসলমানদের প্রতি সদয় ও কাফেরদের প্রতি কঠুরতা তারা ছাড়া অন্যদের মধ্যে পূর্ণরূপে পাওয়া যায় না। আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ এটাতো তাদেরকে নির্দিষ্ট করে দিয়েছে। এবং দ্বীনের খাতিরে সবচেয়ে বেশি প্রোপাগান্ডার শিকার তারাই হন। তালীম, তাবলীগ, জিহাদ সবই শরীয়তের পথ। কিন্তু জিহাদ যখন ফরয হয়ে যায় তখন এই পথে না যেয়ে অন্য দিকে যাওয়াটাই ভুল। যেমন ত্বাবুকে আল্লাহর নবী সব ফেলে চলে গিয়েছিলেন। এখন যারা শরীয়ত শিক্ষা দেয়া বা করার ছুতোয় জিহাদ থেকে বসে থাকে তারা নবী আলাইহিস সালামের মানহাজ বুঝেনি। আর নববী পদ্ধতিতে দাওয়াত, তালীম ও তাজকিয়াহ বর্তমান জামানায় জিহাদ করা ছাড়া কখনোই সম্ভব নয়। সর্বশেষ হিন্দুস্তানের আহলে হকে প্রশংসায় একটি হাদীস।
عن ثوبان مولى رسول الله صلى الله عليه و سلم قال قال رسول الله صلى الله عليه و سلم : عصابتان من أمتي أحرزهما الله من النار عصابة تغزو الهند وعصابة تكون مع عيسى بن مريم عليهما السلام.
আমার উম্মতের দুতি দলকে আল্লাহ তায়ালা জাহান্নাম থেকে মুক্তি দিয়েছেন, এক দল হিন্দুস্তানে জিহাদ করবে অন্য দল ঈসা আলাইহিসসালামের সাথে থাকবে।

titumir
08-11-2015, 01:33 AM
قال الله تعالى : يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا مَنْ يَرْتَدَّ مِنْكُمْ عَنْ دِينِهِ فَسَوْفَ يَأْتِي اللَّهُ بِقَوْمٍ يُحِبُّهُمْ وَيُحِبُّونَهُ أَذِلَّةٍ عَلَى الْمُؤْمِنِينَ أَعِزَّةٍ عَلَى الْكَافِرِينَ يُجَاهِدُونَ فِي سَبِيلِ اللَّهِ وَلَا يَخَافُونَ لَوْمَةَ لَائِمٍ ذَلِكَ فَضْلُ اللَّهِ يُؤْتِيهِ مَنْ يَشَاءُ وَاللَّهُ وَاسِعٌ عَلِيمٌ
হে ঈমান্দারগন! তোমাদের মধ্য থেকে যে তার দ্বীন থেকে ফিরে যাবে, অবশ্যই আল্লাহ তায়ালা এমন দল নিয়ে আসবেন যাদেরকে তিনি ভালবাসেন তারাও তাকে ভালবাসে, মোমিনদের প্রতি সদয় কাফের দের প্রতি কঠোর, যারা আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ করে এবং তারা কোন তিরস্কারকারীর তিরস্কারকে ভয় করে না।

Umar Faruq
08-11-2015, 11:22 AM
عن ثوبان مولى رسول الله صلى الله عليه و سلم قال قال رسول الله صلى الله عليه و سلم : عصابتان من أمتي أحرزهما الله من النار عصابة تغزو الهند وعصابة تكون مع عيسى بن مريم عليهما السلام.
আমার উম্মতের দু'টি দলকে আল্লাহ তায়ালা জাহান্নাম থেকে মুক্তি দিয়েছেন, এক দল হিন্দুস্তানে জিহাদ করবে অন্য দল ঈসা আলাইহিসসালামের সাথে থাকবে।