PDA

View Full Version : কওমি শিক্ষা বোর্ডের জঙ্গিবিরোধী মানববন্ধন আজ -প্রথম আলো



tipo soltan
09-01-2016, 07:47 AM
কওমি শিক্ষা বোর্ডের জঙ্গিবিরোধী মানববন্ধন আজ

প্রথম আলো
নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: ০১:০৬, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৬ | প্রিন্ট সংস্করণ



সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর সদরঘাট থেকে গাজীপুরের জয়দেবপুর পর্যন্ত মানববন্ধন করবে কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড (বেফাক)। দীর্ঘ ৪০ কিলোমিটার সড়কে সকাল ১০টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচিতে মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকেরা হাতে হাত ধরে দাঁড়াবেন।


http://www.prothom-alo.com/bangladesh/article/964147/%E0%A6%95%E0%A6%93%E0%A6%AE%E0%A6%BF-%E0%A6%B6%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%B7%E0%A 6%BE-%E0%A6%AC%E0%A7%87%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A 6%A1%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%9C%E0%A6%99%E0%A7%8D%E0%A6%97%E0%A6%BF%E0%A 6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%B0%E0%A7%87%E0%A6%BE%E0%A6%A7% E0%A7%80-%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A6%AC%E0%A6%AC%E0%A 6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A7%E0%A6%A8-%E0%A6%86%E0%A6%9C

tipo soltan
09-01-2016, 07:53 AM
পাঠক ! আপনারাই কমেন্ট করুন।
শুধু বলবো, কী জন্য এসব মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল ???!!!!

umar mukhtar
09-01-2016, 08:00 AM
আমি গতকাল দুপুর থেকেই অপেক্ষা করছিলাম, যে কেউ এই বিষয়ে লিখবে কিনা। শুকরান ভাই।
আমি এখানে কিছুই বলবোনা। অভিযোগ শুধুমাত্র আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালার কাছে...............
হে আল্লাহ! আমাকে সবর দান করুন। আমিন

সঠিক দাওয়াত
09-01-2016, 08:09 AM
ভাইয়েরা কওমি মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষক সবাই যদি কেদে কেদে মরেও যায় আর বলে আমরা জঙ্গি না তারপরেও মালাউন হাসিনা তাদেরকে ছাড়বে না । এজন্য আরো অপেক্ষা করুন দেখবেন তাদের এই কাজ করার দ্বারা তাদের বিপদ কমবে না বরং বাড়তেই থাকবে । কারণ তারা আল্লাহকে সন্তুষ্ট না করে হাসিনাকে সন্তুষ্ট করছে ।

umar mukhtar
09-01-2016, 08:27 AM
এই কাজ করার দ্বারা তাদের বিপদ কমবে না বরং বাড়তেই থাকবে । কারণ তারা আল্লাহকে সন্তুষ্ট না করে হাসিনাকে সন্তুষ্ট করছে ।

1000% সঠিক

tipo soltan
09-01-2016, 08:51 AM
ভাইয়েরা কওমি মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষক সবাই যদি কেদে কেদে মরেও যায় আর বলে আমরা জঙ্গি না তারপরেও মালাউন হাসিনা তাদেরকে ছাড়বে না । এজন্য আরো অপেক্ষা করুন দেখবেন তাদের এই কাজ করার দ্বারা তাদের বিপদ কমবে না বরং বাড়তেই থাকবে । কারণ তারা আল্লাহকে সন্তুষ্ট না করে হাসিনাকে সন্তুষ্ট করছে ।


একদম ঠিক বলেছেন। হাসিনার মতো মুরতাদ না হওয়া পর্য়ান্ত এদেরকে হাসিনা আর ছাড়বে না: এরা যদি এটা না বুঝে তাহলে আর কি হবে !!!
এমনিতেই তো কওমি মাদরাসাওয়ালারা বন্চিত দনিয়াবী সুযোগ সুবিধা থেকে । আর এখন এসব করার দ্বারা পরকালেও বন্চিত হবে । খাসিরাদ দুনিয়া ওয়াল আখিরাহ , জালিকা হুয়াল খুসরানুল মুবিন।
না পাইল দুনিয়ায় আর না পাবে আখেরাতে ।

ibn mumin
09-01-2016, 09:45 AM
আমি গতকাল দুপুর থেকেই অপেক্ষা করছিলাম, যে কেউ এই বিষয়ে লিখবে কিনা। শুকরান ভাই।
আমি এখানে কিছুই বলবোনা। অভিযোগ শুধুমাত্র আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালার কাছে...............
হে আল্লাহ! আমাকে সবর দান করুন। আমিন

ভাই আপনাদের মনে আছে কিনা জানি না, একবার বলেছিলাম এদের অবস্থা হচ্ছে কি বলে, কি করে, কি বুঝে, এরা নিজেরাই জানে না...
যাই হোক ভাই আমি বেশি কিছু বলব না। আমি বললেই সমস্যা শুরু হয় ।
আমাদের বুঝা উচিত সমস্যা হয় দেখেই কেউ কেউ কথা বলে। কিন্তু আমরা এই কথা বলাকেই সমস্যা মনে করি...

হাসবুনাল্লাহি ওয়া নিঈমাল ওয়াকিল...

murabit
09-01-2016, 01:32 PM
خسر الدنيا والاخرة

Ahmad Faruq M
09-01-2016, 01:45 PM
শুনেছি ২ দিন আগে নারায়নগঞ্জ এর "মাদানী নগর" মাদ্রাসায় থানা থেকে ওসি ও পুলিশ করমকর্তারা গিয়েছে জঙ্গী বিরোধী কার্যক্রম বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যে। হতে পারে কোন কোন কাওমী মাদ্রাসা গুলোকে কিছুটা চাপ প্রয়োগ করেই এই মানব বন্দন করাচ্ছে মুরতাদ হাসিনা সরকার।কারন , "মাদানী নগর" মাদ্রাসা জঙ্গী বিরোধী ফতওয়াতে সাক্ষর করেনি। সকল স্কুল/প্রতিষ্ঠানের উপর এই চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে কম বেশি। এই চাপের কারনেই যে সব সিদ্ধ হয়ে যাবে তা আমি বলছি না। তবে বাস্তবতা এটাই।

আসলেই একেই বলে "ওয়াহান" !! আসলেই একেই বলে "হুব্বুদ দুনিয়া -কারাহিয়াতুল কিতাল/মাউত"।

ইসলামী দলগুলো ও কাউমীরা যতই চেষ্টা করুক না কেন, সরকারকে খুশি রেখে পিঠ বাচানো যাবে না।

আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ-
وَلَنْ تَرْضَى عَنْكَ الْيَهُودُ وَلَا النَّصَارَى حَتَّى تَتَّبِعَ مِلَّتَهُمْ قُلْ إِنَّ هُدَى اللَّهِ هُوَ الْهُدَى وَلَئِنِ اتَّبَعْتَ أَهْوَاءَهُمْ بَعْدَ الَّذِي جَاءَكَ مِنَ الْعِلْمِ مَا لَكَ مِنَ اللَّهِ مِنْ وَلِيٍّ وَلَا نَصِيرٍ

বি এন পি আমলে "জি এম বি" ভাইদের দের বিরুদ্ধে জামাত ইসলাম ও কাউমী আলেমগণ অপপ্রচার ও বিরুদ্ধচারন করেছিল। আল্লাহ তায়ালা জালেমের দিন পরিবর্তন করে তাকেই মাজলুম বানান / বানিয়েছেন । আল্লাহ তায়ালা কখনো কখোনো এক জালেম দারা আরেক জালেম কে শাস্তি দেন। আজকে দেখুন বি এন পি আর জামাতের কি করুণ দশা !! লুতফুর রহমান বাবর তখন স্বরাষ্ট মন্ত্রী ছিল,তাকে এমন নির্যাতন করেছে যে, সে বলেছে, জীবনে আর রাজনীতি করবো না। আজকে কি তার নাম গন্ধ শুনতে পান কেউ !
জামাত-শিবির এর ভাইরা সেদিন খুব লাফাচ্ছিলেন । মাওলানা সাইদী বলেছিনেলন; ১০০ বছর লাগলেও গনতান্ত্রিক পন্থায় এদেশে ইসলাম কায়েম হবে!
তিনি বলেছিলেনঃ উসামা উমরের সাথে এদেশের মানুষ পরিচিত নন। "হারকাতুল জিহাদ" কে ব্যাঙ্গ করে বলেছিলেনঃ "কুতকুতুল জিহাদ" ও এদের যেখানে পাবেন পুলিশে সোপর্দ করবেন (নাউজুবিল্লাহ) এখন তাদেরকেই পুলিশে সোপর্দ করছে জনগন! তারা সেদিন বোমাবাজি ইসলামে নেই স্লোগান দিচ্ছিল ,অথচ কিছুদিন আগে তারাই বোমা মেরে সাধারন বাসের যাত্রীদের আগুন লাগিয়ে মেরেছে! তারপরও নিস্তার মিলেনি। আল্লাহ তায়ালা তাদেরকে হারে হারে শিক্ষা দিচ্ছেন। আজকে দেখেন তাদের নেতা কর্মীদেরকেই ফাঁসিতে ঝুলতে হচ্ছে!! ঠিক যেন হাসান আল বান্না থেকে শুরু করে বর্তমান মিশরের ইখওয়ানুল মুসলিমের ভাগ্য বরণ করছে জামাতে ইসলামী।

শিক্ষা নেও হে জাতি, ইতিহাস থেকে শিক্ষা নেও।

রাসূল সাঃ বলেন ঃ "কোন জাতি যখন জিহাদ ছেড়ে দেয় তখন আল্লাহ তায়ালা তাদের উপর জিল্লতি/ লাঞ্ছনা চাপিয়ে দেন"।

###
আজকে যারা নবীর দুশমনদের বিরুদ্ধে পরিচালিত এই জিহাদের বিরোধীতা করছে তারাই আগামি কাল আরেক জালেমের কবলে পরবে। হয়তো ইন্ডিয়া ও আমেরিকার নির্দেশে হাসিনাই তাদের দেওয়া ফতওয়া তাদের বিরুদ্ধেই প্রয়োগ করবে।

গতকাল ইমাম-খতীবদের উপর হাসিনার দেওয়া পরীক্ষা চলেছে, যাতে আমাদের অধিকাংশ ইমাম ফেইল করেছেন জঙ্গী বিরোধী খোতবার মধ্য দিয়ে।

আর আজকে কাউমী উলামা তূল্লাবদের নামানো হচ্ছে ফরজ জিহাদের বিরোদ্ধে মানব বন্ধন করতে !!

আগামী কাল, সরকারের স্বীকৃতি দেওয়ার নামে / সনদের নামে বেফাক কে ভেঙ্গে দ্বিখণ্ডিত করে কাউমী মাদরাসাকে বিভাজন করা হবে। যারা সরকারের অধীনে যাবে তাদেরকে মুন্ডু বিহীন দেহ আর ডানা বিহীন পাখির ন্যায় আমেরিকান ইসলাম উপহার দিবে ! আধুনিক সেকুলার শিক্ষানীতির আলোকে আলিয়া মাদ্রাসার ডাইসে "কাউমী মাদ্রাসা" উপরহার দিবে! তখন নামে থাকবে ইসলাম আর কাম কাজে থাকবে সেকুলার চিন্তা ধারা। নাউজুবিল্লাহ।

خسر الدنيا والاخرة

আল্লাহ তায়ালা এই জাতির উলুল আমরদের হেদায়াত দিন। উম্মাহকে সঠিক পথে পরিচালিত করুন। আমীন।

পক্ষান্তরে যারা সরকারের অধীনে যেতে নারাজ হবেন,
তাদের উপর বিভিন্ন অজুহাতে জুলুম চালাতে থাকবে ও মাদ্রাসা বন্ধ করে দেওয়া হবে। জেল জলুম হত্যা চলবে। এটাই নবীদের উপর চালানো পরীক্ষার পথ।এ পথে যারা অটোল থাকবে তারাই কামিয়াব।

প্রকৃতপক্ষে এসব মাদরাসা মসজিদ প্রতিরক্ষার ব্যাবস্থা একটাই তা হলঃ জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহ। আল্লাহ তায়ালা বলছেনঃ-

وَلَوْلَا دَفْعُ اللَّهِ النَّاسَ بَعْضَهُمْ بِبَعْضٍ لَهُدِّمَتْ صَوَامِعُ وَبِيَعٌ وَصَلَوَاتٌ وَمَسَاجِدُ يُذْكَرُ فِيهَا اسْمُ اللَّهِ كَثِيرًا وَلَيَنْصُرَنَّ اللَّهُ مَنْ يَنْصُرُهُ إِنَّ اللَّهَ لَقَوِيٌّ عَزِيزٌ

وَلَوْلَا دَفْعُ اللَّهِ النَّاسَ بَعْضَهُمْ بِبَعْضٍ لَفَسَدَتِ الْأَرْضُ وَلَكِنَّ اللَّهَ ذُو فَضْلٍ عَلَى الْعَالَمِينَ

মুজাহিদরা (জঙ্গীরা) যদি জিহাদ ছেড়েও দেয় তাহলে কি মুসলমান ও ইসলামের বিরুদ্ধে এই জালেম মুরতাদ সরকার ও আমেরিকা ইসরাঈল ও মালাঊনদের যুদ্ধ বন্ধ হয়ে যাবে !? তাদের জলুম বন্ধ হয়ে যাবে ?!
না না, কখোনো না। আল্লাহ তায়ালা বলেন, তারা সব সময় আমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাবে। যতক্ষন না তারা আমাদেরকে তাদের মত মুরতাদ বানাতে পারে। দেখুনঃ-

وَلَا يَزَالُونَ يُقَاتِلُونَكُمْ حَتَّى يَرُدُّوكُمْ عَنْ دِينِكُمْ إِنِ اسْتَطَاعُوا وَمَنْ يَرْتَدِدْ مِنْكُمْ عَنْ دِينِهِ فَيَمُتْ وَهُوَ كَافِرٌ فَأُولَئِكَ حَبِطَتْ أَعْمَالُهُمْ فِي الدُّنْيَا وَالْآخِرَةِ وَأُولَئِكَ أَصْحَابُ النَّارِ هُمْ فِيهَا خَالِدُونَ

এ যেন অতীত ইতিহাসের পুনরাবৃতির আভাস। সময় থাকতে সাবধান হৌন। নিজে জাগুন অন্যকে জাগান।

ঈদুল ফিতর থেকে ঈদুল আজহার এই দুই ঈদের মধ্যখানে বাংলাদেশ ও কাশ্মীরের রক্ষক্ষরন মনের গহীণে কেন যেন বার বার শাহ নে'মাতুল্লাহ রহঃ এর ভবিষ্যৎবাণীকে স্মরণ করিয়ে দেয়। আমরা কি তাহলে সেই ভবিস্যতবানী বাস্তবায়নের নিকততম সময়ে অবস্থান করছি ?!

ইয়া আল্লাহ! আমাদের হালত এখন এমন যেমটা মূসা আলাইহিস সালাম ফেইস করেছিলেন। সামনে নিলনদ পিছনে ফেড়াউনের বাহিনী । আমাদের ভরসা একমাত্র আপনিই। তবে আময়া হতাশ নই। আমরা আপনার উপর তাওাক্কুল করি। আপনিই আমাদের জন্যা কাফী। আনতা রাব্বী ওয়া আনতা হাসবী।

তাই বলি বার বার ------আনতা রাব্বী ,আনতা হাসবী।

<<<<"হাসবুনাল্লাহু ওয়া নি'মাল ওয়াকিল">>>>
<<<<"হাসবুনাল্লাহু ওয়া নি'মাল ওয়াকিল">>>>
<<<<"হাসবুনাল্লাহু ওয়া নি'মাল ওয়াকিল">>>


<<<<"নিশ্চয় বিজয় সব্রের সাথেই রয়েছে">>>>

ওয়াস সালাম............

murabit
09-01-2016, 02:10 PM
- وَحَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ نُمَيْرٍ حَدَّثَنَا أَبُو خَالِدٍ - يَعْنِى سُلَيْمَانَ بْنَ حَيَّانَ - عَنْ سَعْدِ بْنِ طَارِقٍ عَنْ رِبْعِىٍّ عَنْ حُذَيْفَةَ قَالَ كُنَّا عِنْدَ عُمَرَ فَقَالَ أَيُّكُمْ سَمِعَ رَسُولَ اللَّهِ -صلى الله عليه وسلم- يَذْكُرُ الْفِتَنَ فَقَالَ قَوْمٌ نَحْنُ سَمِعْنَاهُ. فَقَالَ لَعَلَّكُمْ تَعْنُونَ فِتْنَةَ الرَّجُلِ فِى أَهْلِهِ وَجَارِهِ قَالُوا أَجَلْ. قَالَ تِلْكَ تُكَفِّرُهَا الصَّلاَةُ وَالصِّيَامُ وَالصَّدَقَةُ وَلَكِنْ أَيُّكُمْ سَمِعَ النَّبِىَّ -صلى الله عليه وسلم- يَذْكُرُ الْفِتَنَ الَّتِى تَمُوجُ مَوْجَ الْبَحْرِ قَالَ حُذَيْفَةُ فَأَسْكَتَ الْقَوْمُ فَقُلْتُ أَنَا. قَالَ أَنْتَ لِلَّهِ أَبُوكَ. قَالَ حُذَيْفَةُ سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ -صلى الله عليه وسلم- يَقُولُ تُعْرَضُ الْفِتَنُ عَلَى الْقُلُوبِ كَالْحَصِيرِ عُودًا عُودًا فَأَىُّ قَلْبٍ أُشْرِبَهَا نُكِتَ فِيهِ نُكْتَةٌ سَوْدَاءُ وَأَىُّ قَلْبٍ أَنْكَرَهَا نُكِتَ فِيهِ نُكْتَةٌ بَيْضَاءُ حَتَّى تَصِيرَ عَلَى قَلْبَيْنِ عَلَى أَبْيَضَ مِثْلِ الصَّفَا فَلاَ تَضُرُّهُ فِتْنَةٌ مَا دَامَتِ السَّمَوَاتُ وَالأَرْضُ وَالآخَرُ أَسْوَدُ مُرْبَادًّا كَالْكُوزِ مُجَخِّيًا لاَ يَعْرِفُ مَعْرُوفًا وَلاَ يُنْكِرُ مُنْكَرًا إِلاَّ مَا أُشْرِبَ مِنْ هَوَاهُ
صحيح مسلم (1/ 89)
وَالضَّابِط أَنَّ كُلّ مَا يَشْغَل صَاحِبه عَنْ اللَّه فَهُوَ فِتْنَة لَهُ
فتح الباري لابن حجر (10/ 391)
يَاأَهْلَ الْكِتَابِ لِمَ تَلْبِسُونَ الْحَقَّ بِالْبَاطِلِ وَتَكْتُمُونَ الْحَقَّ وَأَنْتُمْ تَعْلَمُونَ (71)} [آل عمران: 71]
{أَلَا تُقَاتِلُونَ قَوْمًا نَكَثُوا أَيْمَانَهُمْ وَهَمُّوا بِإِخْرَاجِ الرَّسُولِ وَهُمْ بَدَءُوكُمْ أَوَّلَ مَرَّةٍ أَتَخْشَوْنَهُمْ فَاللَّهُ أَحَقُّ أَنْ تَخْشَوْهُ إِنْ كُنْتُمْ مُؤْمِنِينَ (13)} [التوبة:
الَّذِينَ يُبَلِّغُونَ رِسَالَاتِ اللَّهِ وَيَخْشَوْنَهُ وَلَا يَخْشَوْنَ أَحَدًا إِلَّا اللَّهَ وَكَفَى بِاللَّهِ حَسِيبًا (39) } [الأحزاب: 39، 40]
{فَلَا تَخْشَوْهُمْ وَاخْشَوْنِي} [البقرة: 150]
وَاتَّقُوا فِتْنَةً لَا تُصِيبَنَّ الَّذِينَ ظَلَمُوا مِنْكُمْ خَاصَّةً وَاعْلَمُوا أَنَّ اللَّهَ شَدِيدُ الْعِقَابِ (25)} [الأنفال: 25]
فَاسْتَقِمْ كَمَا أُمِرْتَ وَمَنْ تَابَ مَعَكَ وَلَا تَطْغَوْا إِنَّهُ بِمَا تَعْمَلُونَ بَصِيرٌ (112) وَلَا تَرْكَنُوا إِلَى الَّذِينَ ظَلَمُوا فَتَمَسَّكُمُ النَّارُ وَمَا لَكُمْ مِنْ دُونِ اللَّهِ مِنْ أَوْلِيَاءَ ثُمَّ لَا تُنْصَرُونَ (113)} [هود: 112، 113]
فَبَدَّلَ الَّذِينَ ظَلَمُوا مِنْهُمْ قَوْلًا غَيْرَ الَّذِي قِيلَ لَهُمْ فَأَرْسَلْنَا عَلَيْهِمْ رِجْزًا مِنَ السَّمَاءِ بِمَا كَانُوا يَظْلِمُونَ (162)
{فَلَمَّا نَسُوا مَا ذُكِّرُوا بِهِ أَنْجَيْنَا الَّذِينَ يَنْهَوْنَ عَنِ السُّوءِ وَأَخَذْنَا الَّذِينَ ظَلَمُوا بِعَذَابٍ بَئِيسٍ بِمَا كَانُوا يَفْسُقُونَ (165)}
{فَخَلَفَ مِنْ بَعْدِهِمْ خَلْفٌ وَرِثُوا الْكِتَابَ يَأْخُذُونَ عَرَضَ هَذَا الْأَدْنَى وَيَقُولُونَ سَيُغْفَرُ لَنَا وَإِنْ يَأْتِهِمْ عَرَضٌ مِثْلُهُ يَأْخُذُوهُ أَلَمْ يُؤْخَذْ عَلَيْهِمْ مِيثَاقُ الْكِتَابِ أَنْ لَا يَقُولُوا عَلَى اللَّهِ إِلَّا الْحَقَّ وَدَرَسُوا مَا فِيهِ وَالدَّارُ الْآخِرَةُ خَيْرٌ لِلَّذِينَ يَتَّقُونَ أَفَلَا تَعْقِلُونَ (169) وَالَّذِينَ يُمَسِّكُونَ بِالْكِتَابِ وَأَقَامُوا الصَّلَاةَ إِنَّا لَا نُضِيعُ أَجْرَ الْمُصْلِحِينَ (170)} [الأعراف: 169، 170]
{أَلَمْ تَرَ أَنَّهُمْ فِي كُلِّ وَادٍ يَهِيمُونَ (225) وَأَنَّهُمْ يَقُولُونَ مَا لَا يَفْعَلُونَ (226) إِلَّا الَّذِينَ آمَنُوا وَعَمِلُوا الصَّالِحَاتِ وَذَكَرُوا اللَّهَ كَثِيرًا وَانْتَصَرُوا مِنْ بَعْدِ مَا ظُلِمُوا وَسَيَعْلَمُ الَّذِينَ ظَلَمُوا أَيَّ مُنْقَلَبٍ يَنْقَلِبُونَ (227)} [الشعراء: 225 - 227]
بَلِ اتَّبَعَ الَّذِينَ ظَلَمُوا أَهْوَاءَهُمْ بِغَيْرِ عِلْمٍ فَمَنْ يَهْدِي مَنْ أَضَلَّ اللَّهُ وَمَا لَهُمْ مِنْ نَاصِرِينَ (29)
{احْشُرُوا الَّذِينَ ظَلَمُوا وَأَزْوَاجَهُمْ وَمَا كَانُوا يَعْبُدُونَ (22)} [الصافات: 22]

shameli
09-01-2016, 02:13 PM
জামাত শিবির সেদিন খুব লাফাচ্ছিল। বোমাবাজি ইসলামে নেই স্লোগান দিচ্ছিল ,অথচ তারাই বোমা মেরে সাধারন বাসের যাত্রীদের আগুন লাগিয়ে মেরেছে তারপর ও নিস্তার মিলেনি।আল্লাহ তায়ালা তাদেরকে হারে হারে শিক্ষা দিচ্ছেন। আজকে দেখেন তাদেরকেই ফাঁসিতে ঝুলতে হচ্ছে!! ঠিক যেন হাসান আল বান্না থেকে শুরু করে বর্তমান মিশরের ইখওয়ানুল মুসলিমের ভাগ্য বরণ করছে জামাতে ইসলামী।

ওয়াল্লাহি ওয়াল্লাহি ! এদের এ সমস্ত মুনাফেকীর কারণেই আমি মনে প্রাণে কামণা করি জামাতের যত নেতা আছে একটা একটা করে সবগুলোকে শেখ হাসিনা ফাঁসিতে ঝুলাতে থাকুক যতক্ষণ না এরা পিঠ বাঁচিয়ে ইসলাম প্রতিষ্ঠার ধান্দামি থেকে বিরত না হয় । মুনাফেকগুলো যাতে বুঝতে পারে যে পিঠ বাঁচিয়ে ইসলাম প্রতিষ্ঠা হয় না।
এরা বুঝুক যে মুগুর ছাড়া কুকুর সামলানো যায় না।

মুনাফিকগুলো কতো চরম নির্লজ্জ !!
যেই হাসিনা এদের নেতাদেরকে অপমানকর ভাবে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করছে সেই হাসিনারকেই এরা সময় সময়ে হাদিয়ে তোহফা প্রদান করছে । আপনারা জেনে থাকবে , কিছু দিন আগে এরা ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশকে কতগুলো গাড়ী হাদিয়া দিযেছে। আরো জেনে থাকবেন শেখ হাসিনা হাত পাতলেই জামাতের সুদী (লেখে ইসলামী) ব্যাক কোটি কোটি টাকা দক্ষিণা দিয়ে
বুবুকে খুশি করে দেয ।

ইসলামের নাম করে সুদী ব্যাবসা করে এরা কোটি কোটি টাকার মালিক । আর ভাবে এভাবেই ইসলাম কায়েম হয়ে যাবে একসময়। মুনাফিকগুলো আলেমদের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ রাখে না। আরো কতশত ভাইরাসে এরা আক্রান্ত কয়টা বলবো !!

হাসিনা চরম টর্চার যদি এদের কিছু সুমতি আনতে পারে ....
এ ছাড়া আর কোন পথ দেখি না ।

আমি চাই হাসিনা ক্ষমতা আরো দীর্ঘ হোক ....
জিহাদ বিমুখ জনগণের উপর এই ফেরআউনের টর্চার আরো বৃদ্ধি পাক ...
এক সময় আপামর জনগণ ক্ষেপে ব্যাপক বিদ্রোহ ঘটাক যা আরব বসন্তের মতো বাংলা বসন্ত হয়ে সশস্র বিদ্রোহের রুপ ধারণ নেবে। আর আমাদের জন্য কিতালের দরজা খুলে যাক । তারা আমাদের কাছে এই ফেরআউন হটানোর জন্য সাহায্য প্রার্থনা করুক।
জনগণ তখনই আমাদের ধারস্ত হবে যখন নিজেরা কিছু করতে অপারগ হবে। অবস্থা যেভাবে চলতেছে এভাবে চললে জাহেল বাঙগালী আমাদের মূল্য বুঝবে না। টর্চার আরো বৃদ্ধি পাওয়া দরকার । যাতে তারা চিৎকার করে আমাদের কাছে সাহায্য চায় ।


আমার ভেতরে প্রতিশোধের যে কী আগুন জ্বলে অন্তরটা খুলে দিলে বুঝতে পারতাম।
যে দিন ইস্তিশহাদী হামলা করে তাগুতদেরকে টুকরা টুকরা করে নিজেও টুকরা টুকরা হয়ে যেতে পারবো সেদিনই এই ক্ষোভের আগুন নিভবে ।
হয়তো জুলূম বন্ধ হবে না হয় এই প্রতিশোধের আগুন ধাউ ধাউ করে জলবেই ইনশাআল্লাহ।
জেল জুলূম কিছুতেই এই আগুন নিভবে না। যেমনটা হয়েছে আমাদের পূর্ব সুরীদের বেলায় ।
এমন একটি কাফেলার নামই আনসার আল ইসলাম।

Umar Abdur Rahman
09-01-2016, 04:15 PM
আহমাদ ফারুক ভাই!! আল্লাহ তা'আলা আপনাকে হেফাজত করুন...

আল্লাহু আকবার!! যথার্থ লিখেছেন মুহতারাম!!!

umar mukhtar
09-01-2016, 04:26 PM
মাদরাসাওয়ালাদের জিহাদ বিরোধিতার পরিণতি...............


সরকারের স্বীকৃতি দেওয়ার নামে / সনদের নামে বেফাক কে ভেঙ্গে দ্বিখণ্ডিত করে কাউমী মাদরাসাকে বিভাজন করা হবে। যারা সরকারের অধীনে যাবে তাদেরকে মুন্ডু বিহীন দেহ আর ডানা বিহীন পাখির ন্যায় আমেরিকান ইসলাম উপহার দিবে ! আধুনিক সেকুলার শিক্ষানীতির আলোকে আলিয়া মাদ্রাসার ডাইসে "কাউমী মাদ্রাসা" উপরহার দিবে! তখন নামে থাকবে ইসলাম আর কাম কাজে থাকবে সেকুলার চিন্তা ধারা। নাউজুবিল্লাহ।

MuslimBrother
09-01-2016, 09:15 PM
jazakallah...

mohammod bin maslama
09-02-2016, 06:20 AM
আদা কইলে গাধা বোঝে পুরা কইলে বলদে বোঝে। গতকাল সকাল 11এই অভিনয় শুরু হয়। আমার অবশশ তৌফিক হয়নাই।তাদের সাথে যাইতে । তারা খুব আননদের সাথে দেখলা মানব বনধন পালন করেছে । হায় মোসলিম!!!!!!! এক সময় বৃহ: বারে জিহাদী বকতববে মসজিদ কাপত আজ
সেখানে অভিনব পদদতিতে জিহাদের বিরোদদে ভাষন দেওয়া হয়।

shamer pothik
09-02-2016, 07:00 AM
قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : يوشك أن يأتي على الناس زمان لا يبقى من الإسلام إلاإسمه ولايبقى من القرآن إلارسمه ، مساجدهم عامرة وهى خراب من الهدى، علمائهم شر من تحت أديم السماء، من عندهم تخرج الفتنة وفيهم تعود،

রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন, অচিরেই এমন একটি জামানা আসবে "*যখন ইসলামের নামটুকু ছাড়া তাঁর কিছুই বাকি থাকবে না, **কোরআনের লিখিত কপি থাকবে কিন্তু তাঁর বাস্তবায়ন থাকবেনা, ***মসজিদগুলো চাকচিক্যপূর্ণ হবে কিন্তু তা হিদায়াত শুন্য থাকবে। (এ তিনটি কাজ যে জামানায় ঘটবে) ঐ জামানায় আলেমরা আসমানের নিচে বিচরণকারী সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রাণীতে পরিনত হবে, তাদের থেকেই ফিতনা বের হবে, অবশেষে সে ফেতনায় তারা আবধ্য হয়ে পড়বে।

সূতরাং চিন্তার কোন কারণ নেই

shamer pothik
09-02-2016, 07:06 AM
قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : يوشك أن يأتي على الناس زمان لا يبقى من الإسلام إلاإسمه ولايبقى من القرآن إلارسمه ، مساجدهم عامرة وهى خراب من الهدى، علمائهم شر من تحت أديم السماء، من عندهم تخرج الفتنة وفيهم تعود،

রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন, অচিরেই এমন একটি জামানা আসবে "*যখন ইসলামের নামটুকু ছাড়া তাঁর কিছুই বাকি থাকবে না, **কোরআনের লিখিত কপি থাকবে কিন্তু তাঁর বাস্তবায়ন থাকবেনা, ***মসজিদগুলো চাকচিক্যপূর্ণ হবে কিন্তু তা হিদায়াত শুন্য থাকবে। (এ তিনটি কাজ যে জামানায় ঘটবে) ঐ জামানায় আলেমরা আসমানের নিচে বিচরণকারী সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রাণীতে পরিনত হবে, তাদের থেকেই ফিতনা বের হবে, অবশেষে সে ফেতনায় তারা আবধ্য হয়ে পড়বে।

সূতরাং চিন্তার কোন কারণ নেই

salahuddin aiubi
09-02-2016, 07:21 AM
আহ!! কওমী মাদ্রাসার সাম্প্রতিক পদক্ষেপে হৃদয়ের রক্তক্ষরণ হচ্ছে!! এরা তো আমাদেরই উস্তাদ ও ছাত্র ভাই ছিলেন, কিন্তু আজ স্পষ্ট কুফরী করছেন! জালিমদের খাতায় নাম লিখাচ্ছেন! হে বালআম বাউরার উত্তরসূরীরা! তোমাদের পরিণতি অনেক ভয়াবহ!!!

উস্তাদ আহমাদ ফারুক ভাই কত মর্মস্পর্শী কথা বললেন! কথাগুলো কত সঠিক! কিন্তু কত কঠিন!!!

mohammod bin maslama
09-02-2016, 09:05 AM
কি কমো ভাই ।

gazi
09-02-2016, 09:09 AM
সমস্ত আলেমরা যদি শাহ বাগি হয়ে যাই তার পরেও আল্লাহর কোন কিছুই আসে যায়না .........


আমি কালকের মানব বন্ধন শম্পরকে ১ আলেম কে জিজ্ঞাসা করে ছিলা।।
আপনারা এই মানব বন্ধনে কেন যাবেন?
উত্তরে বললেন কওমি মাদ্রাসার উপর আরোপিত জঙ্গি বাদের বদনাম দুর করার জন্য মানব বন্ধনে যাবো । ?????????????????????
ভাইয়েরা আমার এবার আপনারা বলুন যদি জঙ্গিবাদ ক্বওমি মাদ্রাসার জন্য বদনাম হয় তাহলে দারুল উলুম দেওবন্দ প্রতিষ্ঠা হইয়েছিল কিসের উপর ভিত্তি করে
তা হলে কি আমি এটা বুঝে নেব নাস্তিকদের নেই আপনারা আলেম হয়েও সবে মিলে ক্বওমি মাদ্রাসার ইতিহাস কে পাল্টাতে চাচ্ছেন?



লজ্জা হয়না যে সরকার আপনাদেরকে হেফাজতের রাতে ১ রাত শাপলা চত্তরে অবস্থান করতে দিলনা তাকে খুশি করার জন্ন্য আবার মানব বন্ধনে জান ?????????/ তা ও আবার মহান আল্লআহ কে নারাজ করে


সব শেষে

আসলে ভাই এসব নিয়ে চিন্তা করে সময় নষ্ট করার দরকার নাই, কারন জিহাদের কাজে সবাই আসবেনা অল্প কিছু লোক ই থাকবে
যেমনটি بدا الاسلام غریبا وسیعود کما بدا এই অংশ থেকে বুঝে আসে
তাই ভায়েরা নিশ্ছিন্তে কাজ করে জান ইনশা আল্লাহ আল্লাহ অবশ্যয় সাহাজ্য করবেন ,...
দুয়া করি আল্লাহ যেন আমাদেরকে গুরাবা হিসেবে কবুল করেন আমিন আমিন আমিন

Egol
09-02-2016, 10:04 AM
ইন্ডিয়া ও আমেরিকার নির্দেশে হাসিনাই তাদের দেওয়া ফতওয়া তাদের বিরুদ্ধেই প্রয়োগ করবে।

ঠিকই বলেছেন। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় এভাবেই মুসলিম আলেম সমাজ কে কুফফাররা কব্জা করে এবং পরে তাদের কে অপমানিত করে হত্যা করে, বিতাড়ন করে, তাদের কে সমাজে অপদস্ত করে।

রক্তাক্ত চাপাতি
09-02-2016, 12:21 PM
ঈদুল ফিতর থেকে ঈদুল আজহার এই দুই ঈদের মধ্যখানে বাংলাদেশ ও কাশ্মীরের রক্ষক্ষরন মনের গহীণে কেন যেন বার বার শাহ নে'মাতুল্লাহ রহঃ এর ভবিষ্যৎবাণীকে স্মরণ করিয়ে দেয়। আমরা কি তাহলে সেই ভবিস্যতবানী বাস্তবায়নের নিকততম সময়ে অবস্থান করছি

প্রিয় ভাই , অবস্থাদৃষ্টে তাই মনে হচ্ছে (আল্লাহু আলাম ) , কাশ্মিরের উত্তপ্ততা, বাংলাদেশে বিগতদিনগুলির তুলনায় ভারতের প্রচুর তৎপরতা আমাদের বার বার মনে করিয়ে দিচ্ছে শাহ নে'মাতুল্লাহ রহঃ এর ভবিষ্যৎবাণীকে যে কাশ্মির মুসলমানদের দখলে আসবে আর বাংলা ভারতের দখলে চলে যাবে। ভারত বাংলায় প্রচুর অত্তাচার- নির্যাতন আর হত্যাযজ্ঞ চালাবে । জার প্রেক্ষিতে শুরু হয়ে যাবে আমাদের কাঙ্ক্ষিত চূড়ান্ত গাজওায়ায়ে হিন্দ।
অপরদিকে আল্লাহ বলেন - আমি যখন কোন জনপদকে ধ্বংস করতে চাই । তখন তাদের মধ্যে উদ্ধত বাড়িয়ে দেই। অতঃপর তাদের কে সমুলে উৎপাটন করে দেই।( ভাই এই আয়াত টি আমি কএকদিন আগে বাংলা তরজমা পরেছিলাম কিন্তু আমার মনে নেই কন সুরার কত নং আয়াত। তাই দিতে পারলাম না । যদি কন ভাইয়ের জানা থাকে তাহলে জানিয়ে দিলে খুশি হব)
তো আজ কাশ্মিরে মুস্রিকদের কাপুরুষ ন্যায় উদ্ধতপনা । এদেশের ভারত ও আমেরিকার দালাল হাসিনার চরম লাফালাফি আমাদের মনে করিয়ে দেয় " কাফেরদের প্রচুর উত্থানই তাদের পতনের মূল " । তাই এহেন দুর্যোগপূর্ণ আল্লাহ প্রদত্ত এক পরীক্ষার সময় আমাদের বক্ষ গুলো যেন বিজয়ের সুঘ্রাণে প্রসস্থই হচ্ছে কেননা " রাত যত গভীর হয় সুবহে সাদিক ততোটাই ঘনিয়ে আসে।
তাই সব কিছু মিলিয়ে- মিশিয়ে মনে হচ্ছে গাজওয়ায়ে হিন্দ এর চূড়ান্ত যুদ্ধ আমাদের দরজায় এসে কড়া নাড়ছে " আল্লাহু আলাম"
অতএব
হে ঈমানদানগণ! ধৈর্য্য ধারণ কর এবং মোকাবেলায় দৃঢ়তা অবলম্বন কর। আর আল্লাহকে ভয় করতে থাক যাতে তোমরা তোমাদের উদ্দেশ্য লাভে সমর্থ হতে পার।(আলে ইমরান ২০০)

Abu Aamer
09-02-2016, 01:02 PM
[আসলেই একেই বলে "ওয়াহান" !! আসলেই একেই বলে "হুব্বুদ দুনিয়া -কারাহিয়াতুল কিতাল/মাউত"।]

এটাই হচ্ছে এ উম্মাহর সর্বাধিক কঠিন ব্যাধি। এ ব্যাধি আজ উম্মাহর মাঝে কঠিন রূপ ধারণ করেছে।
আপনার এ লিখাটির জন্য জানাই আন্তরিক অভিনন্দন। জাযাকাল্লাহু খাইরান।