PDA

View Full Version : ছেলের মরদেহ চেয়েও পাননি জঙ্গি খায়রুজ্জামানের পরিবার - বিবিসি বাংলার খবর



rafsan
09-23-2016, 06:33 AM
বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার গুলশানে সেনা অভিযানের সময় নিহত পাঁচজন জঙ্গি ও একজন রেস্তোরা কর্মীর মরদেহ আজ (বৃহস্পতিবার ) দাফন করা হয়েছে।
কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পরিবারগুলোর পক্ষ থেকে এগিয়ে না আসায় ঘটনার প্রায় তিনমাস পর মরদেহগুলো স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলামের মাধ্যমে ঢাকার জুরাইন গোরস্থানে দাফন করা হয়।
পরিবারের অনাগ্রহের কথা বলা হলেও, অন্তত একজন নিহত জঙ্গির পরিবার বলছে তারা তাদের ছেলের মৃতদেহ চেয়েছিলেন।
নিহত খায়রুজ্জামানের মা পেয়ারা বেগম বিবিসিকে বলেছেন, তদন্ত কর্মকর্তারা বিভিন্ন সময় তাদের বাড়িতে গেলে তিনি ছেলের মরদেহ ফেরত চেয়েছিলেন।
কুরবানির ইদের আগেও তাকে বগুড়া থেকে ঢাকায় আনা হয়েছিলো। সে সময়ও তিনি তার ইচ্ছা জানিয়েছিলেন।
"আমি বলেছিলাম ছেলে দোষ করছে, ফল পেয়েছে।এখন দয়াধর্ম করে যদি লাশটা দেন, আমি নেব।"
পেয়ারা বেগম বলেন, তাকে মরদেহ ফেরত দেওয়ার আশ্বাসও দেয়া হয়েছিলো, কিন্তু পরে কিছু জানানো হয়নি।
ছেলের দাফনের কথাও তিনি জানতে পেরেছেন সাংবাদিকদের মাধ্যমে।
বিবিসির কাছে পেয়ারা বেগম জানতে চাইছিলেন তার ছেলেকে ঠিক কোথায় দাফন করা হয়েছে। সেনা অভিযানে নিহতদের মরদেহগুলো প্রায় তিনমাস ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে রক্ষিত ছিল। - See more at: http://www.kalerkantho.com/online/national/2016/09/22/408127

Ahmad Faruq M
09-23-2016, 01:04 PM
মুরতাদ বাহিনি ও দালাল মিডিয়া এভাবে মুজাহিদদের ব্যপারে অপপ্রচার করেই যাচ্ছে। শহীদদের লাশ তাদের পরিবার ঠিকই নিতে চায়, কিন্তু মুরতাদ বাহিনীর হুমকি ও হামলা মামলার ভয় দেখিয়ে লাশ দিচ্ছে না। আর মিডিয়াতে মিথ্যা বলে বেড়াচ্ছে যে, জঙ্গীদের লাশও পরিবার নিতে আসে না !!! এটা ঠিক শাপলা চত্তরে শহীদ করা ভাইদের পরিবার কে ভন্ড পুলিশ প্রদানের চ্যালেঞ্জ করার মত, যখন বলেছিল যে, এতো মানুষ মারা গেলে কেনো তাদের পরিবার আমাদের কাছে জানাচ্ছে না। অথচ সবাই জানানোর পর তাদেরকে হামলা মামলার ভয় দেখিয়েছে। ফলে এই জালেম বাহিনি ও সরকারের ভয়ে কেউ আর প্রকাশ্যে মুখ খুলেনি।
এ যেন একই কৌশলের পুনরাবৃত্তি আল্লাহ তায়ালা অদের ধ্বংস করুন। আমিন।

KUFR bil TAGHOOT
09-25-2016, 12:31 PM
Shaheed ke?

khalid-hindustani
09-25-2016, 08:10 PM
পৃথিবীর সবগুলো সেনাবাহিনী, ও প্রশাসন একই রকম। ডিবি মনিরুল যেমন মিথ্যা কথা বলে তেমনি ভারতীয় মালুরাও মিথ্য কথা বলে। উরিতে নাকি ১৭ জন ভারতীয় সৈন্য নিহত হয়েছিল। অথচ নিচের ছবিটিতে আপনারা দেখুন কতজন সৈন্য উরিতে নিহত হয়েছিল।

https://pbs.twimg.com/media/CtEOiNKWcAEmJ_j.jpg

হয়তো বা ডিবি মনিরুল ও তার সদস্যরাই জনগনকে ভয় দেখিয়ে শোলাকিয়ায় হামলাকারীর জানাযার নামাযে শুধু ইমাম ব্যতীত অন্য কাউকে শরীক হতে দেয়নি। আল্লাহই সবচেয়ে ভালো জানেন। এরা তো সব দাদাদেরই আদেশের গোলাম।

http://banglabartaonline.com/uploads/1468336021.png