PDA

View Full Version : খেদমত নাকি গোলামী



mohammod bin maslama
11-20-2016, 09:38 AM
আসসালামু আলাইকুম। ভাইয়েরা আমার পোষ্ঠে কোনরুপ ভূলহলে শুদ্রে দিবেন। আজ এমন একটি বিষয় লিখছি যার সম্মুখীন আমার জাতীর আলেম সমাজ। কওমি মাদ্রাসার ভিত্তি হল আল্লার ভরসা করে জন গনকে সাথে নিয়ে উদ্দিষ্ঠ লক্ষে পৌছা। লক্ষকি, আমি জানি কওমি মাদ্রাসার যারা লিখা পড়া করেন তাদের উদ্দেশ্য কেবল আখেরাতই হয়ে থাকে। আর পাওয়াযাবে আল্লাহ ও রাসূলের পুরপুরি উনুসরন করার মাধ্যমে। আজ দুখ্যের সাথে বলতে হচ্ছে, কওমির সেই আগের কিতাবাদি টিকই আছে কিন্তু আল্লাহ ও রাসূল সা:এর উনুসরন কতটকু আছে আপনারাই বলুন। যেই উদ্দেশ্য কওমির সৃষ্টি যেই উদ্দেশ্যের ছডাক পরিমান আছেকিনা সংদেহ। আজকাল কওমি মাদ্রাসার মুহতামিমদের পথ চলা দেখলে বুঝা মুশকিল যে এটাইকি কওমির উদ্দেশ্য ছিল। কওমির যারা ওয়াজের মাঠে আছেন তারাতু জান্নাতের টিকেট কেনে ফেলেছে। পাগল জনগনের সামনে ওয়াজের মাঠে যা ইচ্ছে তা বলেই যাচ্ছে। আর নিজেরদের পকেট ভাড়ি করছে। আখিরাতের কথা বলে বলে মানূষকে মিথ্যা বানুওয়াট ওয়াজ শোনাচ্ছে। আমার কাছে এতটাই খারাপ লাগে যখন আখিরাতের কথা বলে মানূষদের ধুকা দেওয়া হয়। তাওয়াক্কুলের কথা মুহতামিমরা নিছের শিক্ষক দের অধিকার বঞ্চিত করছে। এই সব ইরিজায় গ্রস্ত আলেমদের কার্যকলাপ দেখলে মনে হয়। তারাই কোরানে নাজিল কৃত আহবার ওয়াররুহবান। একটা ছেলে দাওয়ারায়ে হাদিস শেষ করার পর তার টিকানা উদ্দেশ্য হিন, তার কোন গন্তব্য নাই। তার কোন দিশারী নাই। এমন একজন বন্ধু এই কথা গুলো বলছেন, যে নিজে এবং তার অসংখ্য সাথী এই বিপদের সম্মুখীন । শেষমেশ ছোট একটা মাদ্রাসায় চাকরি। তাদের মধ্যে যারা খুব ভালো ছাত্র তাদেরতু আরো করুন ধশা। না পারে পাঞ্জেগানা মসজিদে চাকরী করতে, না পারে বড় প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতে। এযেন গন্তব্যহিন নাটক। তাই আসুন আমরা শুধু পরনির্ভরশিলতা ত্যাগ করে নিজেরদের পায়ে দাঁড়ায়। ইসলাম শিখব তার হক্ব। জেনে আমল করার উদ্দেশ্য আর রিজিকের জন্য সাহাবিদের মত হাতে উপার্জন করব। আর ইসলামকে নিয়েযাব তার সুউচ্চ স্তানে। আল্লাহুম্মা আমিন।

Ahmad Faruq M
11-21-2016, 12:38 PM
আসলেই এমনটাই দেখা যাচ্ছে আজকাল।
আমার মনের হিসাব নিকাশ আপনার কথার সাথে মিলে যাচ্ছে।
গতকাল এক মাহফিলের মঞ্চে বসে আমাদের গ্রামের এক বক্তা এভাবেই মানুশকে বয়ান করে শুনাচ্ছিলেন।আর আমি তার পিছনে বসে বসে ভাবছিলাম যে, এই লোক বাড়িতে আসলে মসজিদে নামাজ না পরে একা একা বাড়িতে পড়ে। আবার এখানে এমন ঢংগে বয়ান করছে যে, সেই ইসলামের বড়ো বুজুর্গ ! আরাকানের মুস্লিমদের রক্ত নিয়ে যখন হুলি খেলা হচ্ছে তখন তাদের ব্যাপারে একটা শব্দ উচ্চারনের প্রয়োজন যারা মনে করে না। মাজলুমদের সাহায্যে যারা উম্মতকে আহবান করে না। তারা যে সুবিধাবাদী তা স্পষ্ট। আজকাল অধিকাংশ বক্তাদের হালত এরকম। ওয়াজ করে টাকা কামাইয়ের ধান্দায় আছেঙ্গে