PDA

View Full Version : সুপ্রিয় মুজাহিদীন ভাইয়েরা!! মসজিদের দেশকে মূর্তির দেশে পরিণত করার আন্তর্জাতিক মিশন বাস্তবায়নের মূল কারিগর &



hadid_bd
04-14-2017, 04:52 PM
সুপ্রিয় মুজাহিদীন ভাইয়েরা!! মসজিদের দেশকে মূর্তির দেশে পরিণত করার আন্তর্জাতিক মিশন বাস্তবায়নের মূল কারিগর আমেরিকান এজেন্টকে চিনে রাখুন!!

আজকে চ্যানেল আই অনলাইনে সুপ্রীম কোর্টের মূর্তি নির্মাতা মৃণাল হক বলেছে-
‘সব কিছুকে মূর্তি বলে তা সরানোর দাবি মেনে নেয়াটা হবে আত্মসমর্পণ। এরকম দাবি মেনে নিলে দেশে থাকার মতো পরিবেশ থাকবে না।’(http://bit.ly/2oYZcAg)

কিন্তু বাস্তবতা হলো মৃণাল হোক তো দেশেই থাকে না। ফুল ফ্যামিলি নিয়ে সে আমেরিকাতে সেটেল হয়েছে ১৯৯৫ সালে। তার বউ নাসরিন হক এবং পুত্র সৈকত হক আইডি দেখলে বোঝা যায় তারা আমেরিকাতেই সেটেল। আসলে ১৯৯৫ সালে আমেরিকা যাওয়ার পরে মৃণাল হককে উঠায় খোদ মার্কিন সরকার। নিউইয়র্কের সরকারি টিভিতে তার এক সাক্ষাতকার ২৬ বার এবং মার্কিন সরকারি চ্যানেল সিএনএন –এ ১৮ বার প্রচার করে তাকে উপরে তোলে। এরপর তাকে ২০০২ সালে বাংলাদেশে পাঠানো হয় বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে।

আসলে মৃণাল হক আমেরিকাতেই থাকে, তবে বাংলাদেশে মূর্তি বানানোর জন্য মাঝে মাঝে আসে। আসবেই না বা কেন ? প্রত্যেকটি মূর্তি বানালে সরকারের তফর থেকে মোটা টাকা পায়। একটা মূর্তি বানাতে খরচ হয় যদি ৫-১০ লক্ষ টাকা, কিন্তু বিল করে দেড়-দুই কোটি টাকা। এই পুরো টাকাই সে আমেরিকাতে জমায়।

মসজিদের দেশ বাংলাদেশকে মূর্তিরদেশ বানানোর জন্য ইসলামবিদ্বেষীরা যে প্ল্যান হাতে নিয়েছে তার মধ্যে অন্যতম গুটি হচ্ছে এই মৃণাল হক। ইতিমধ্যে তার মাধ্যমে দেশজুড়ে শত শত মূর্তি বানানো হয়ে গেছে, এবং আরো সহস্রাধিক কাজ চলছে (দেখতে পারেন তার আইডি- https://www.facebook.com/mrinal.haque.1)। তাই মৃণাল হককে যতদিন বাংলাদেশ থেকে পুরোপুরি বিতারণ না করা হবে, ততদিন বাংলাদেশের মুসলিমদের ঈমান-আকীদা নিরাপদ নয়, এটাই মেনে নিতে হবে।

Mujaheed of Hind
04-14-2017, 05:46 PM
jazakumullaah

guruttopurno info....

গাযওয়াতুল হিন্দ
04-14-2017, 10:11 PM
জাযাকাল্লা ।

Ahmad Faruq M
04-14-2017, 10:13 PM
জাযাকাল্লাহ ভাই।
গুরুত্বপূর্ন তথ্যবহুল পোষ্ট দেওয়ার জন্যে।
মূর্তির নির্মাতা এসব মৃনাল হোক রাই নিজেই এক ধরনের তাগুত।
আল্লাহ তায়ালা এদেরকে হেদায়েত নয়তো ধংস করুন। আমীন।

নেদায়ে হক
04-14-2017, 10:21 PM
বদর যুদ্ধে মক্কার কোরাইশরা পরাজয় বরন করার পরে তাদের বুকে প্রতিশোধের আগুন দাও দাও করে জ্বলে উঠলো। বড় বড় সর্দার তো বদরেই খতম হয়েছে, তাই এবার আবু সুফিয়ান কোরাইশের নেতা হল, এবং কাবার সামনে দাড়িয়ে দেবতাদের নামে শপথ করলো ! বদরে যারা নিহত হয়েছে তাদের প্রতিশোধ নিবোই নিবো, সুফিয়ান এক বছর ধরে যুদ্ধের আয়োজন করলো । নবীজির প্রিয় চাচা হযরত আব্বাস রা: ইসলাম গ্রহন করার পর মক্কায় ছিলেন, তিনি কোরাইশদের সব খবর গোপনে মদীনায় পাঠালেন, এরপর নবীজি গোয়েন্দা পাঠিয়ে খবর পেলেন কোরাইশ বাহিনী মদীনার খুব কাছে এসে পড়েছে, নবী সাহাবীদের সাথে পরামর্শে বসলেন এবং বললেন - এবার বাইরে না গিয়ে মদীনায় থেকে লড়াই করাই ভালো মনে হয়। বড় বড় সাহাবীরা নবীর মতই একমত হলেন, কিন্তু তরুন সাহাবীদের গরম রক্ত টগবগ করে উঠলো, তারা বললেন - শত্রুরা তো আমাদের দুর্বল মনে করবে, আমাদের বুকে তাজা খুন নেই ! হাতে নাঙ্গা তলোয়ার নেই! আমরা খোলা ময়দানে লড়াই করবো, অনেকে যোশে গরম হয়ে গেলেন, তখন নবীজি ঘরে ঢুকে গেলেন, বড় সাহাবীরা তরুনদের বললেন কাজটা ভালো করনি, নবীর কথা মেনে নেওয়াই ভালো ছিল, নবী যদ্ধের সাজে বের হলেন তরুনরা বললেন, মাফ করেদিন আপনার কথামতই রাজি আছি, আল্লাহর নবী যুদ্ধের সাজ গ্রহন করলে যুদ্ধ শেষ না করে তা খুলতে পারে না, জোশে কিশোর সাহাবীরাও রওনা দিলেন নবী বাছাই করে বাদ দিতেছিলেন , তখন রাফে বিন খোদায়েজ পায়ের আঙ্গুলের উপর ভর দিয়ে দাড়ালেন তার আগ্রহ দেখে রাখা হল, তখন রাফের সমবয়সি সামুরা বিন জুন্দুব কাদো কাদো হয়ে বলে উঠলেন আমি তাহলে বাদ যাই কেন, আমি তো রাফেকে কুস্তিতে হারাতে পারবো, তখন নবী কুস্তিতে লাগিয়ে দিলেন সামুরা রাফেকে চিৎ করে ফেলে দিলেন, # এ ছিলো জিহাদের জজবা, ছোট্ট বন্ধুরা! মুসলিম উম্মাহর আজ বড় দুর্দিন, কাফের মুশরিকদের হাতে লাঞ্চিত, তাদের জান মাল ও ইজ্জত আবরু লুন্ঠিত, তাই আজ বড় প্রয়োজন রাফে আর সামুরার মত কিশোর মুজাহীদ, বড় হয়ে যারা উদ্ধার করবে এই লাঞ্চনা আার যিল্লতি থেকে, তোমাদের মাঝেই হয়তো লুকিয়ে আছে মরদে মুজাহীদ, আল্লাহর কাছে তাই কামনা করি, আমিন ইয়া রব্বাল আলামিন

hadid_bd
04-14-2017, 10:55 PM
বারাকাল্লাহু ফি কুম...

hadid_bd
04-14-2017, 10:58 PM
আল্লাহুম আমীন।

mansur
04-15-2017, 07:32 AM
জাযাকাল্লাহু খাইর ভাই...
গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেয়ার জন্য।