PDA

View Full Version : শরিয়তের কোনো বিষয়ে দ্বিধা দ্বন্ধে পরলে ৮টি কাজ করবেন



কালো পতাকা
06-16-2017, 12:13 PM
শরিয়তের কোনো বিষয়ে দ্বিধা দ্বন্ধে পরলে যে ৮টি কাজ করবেন তা নিম্নরুপ :
### ১.শরিয়তের কোনো একটি বিষয় দলীল ও প্রমানসহ জানতে হবে। উদাহরনস্বরূপ বলা য়ায় ধরুন হাবাগোভা দুইজন ব্যাক্তি আপনার কিছু জায়গা কিনবে তারা প্রথমে আপনার কাছে অবশ্যই জমির দলীল চাইবে,অতএব শরিয়তের কোনো একটি বিষয় দলীল ও প্রমানসহ জানতে হবে।

### ২. শরীয়তের কোনো একটি মাসাআলার জন্য দেখতে হবে অধিকাংশ কোরআন সুন্নাহ এর রায় কোন দিকে যায় এটি গ্রহন করতে হবে যেমন: সাহাবীদের কে নিয়ে নাটক সিনেমা করা যাবে কিনা এই বিষয়ে অধিকাংশ কোরআন সুন্নাহ রায় হচ্চে না করা পক্ষে।

### ৩. সুস্পষ্ঠ কোরআন সুন্নাহ এর রায় যে পক্ষে সেই সুস্পষ্ঠ কোরআন ও সুন্নাহ অনুসরন করতে হবে

### ৪. যদি কোনো বিষয়ে দুটি ফতোয়া আসে তখন যেটি শরিয়তের মূল নীতির সাথে ক্ষাপ খাবে সেটি গ্রহন করতে হবে । যেমন : পূর্বের অনেক আলেম বলেছেন বিড়ি,সিগারেট মাখরোহ(খারাপ)। কিন্তু বর্তমান কুরআন ও সুন্নাহর থেকে প্রমানিত হয়েছে বিড়ি,সিগারেট,র্জদ্দা,গোল ইত্যাদি হারাম বলে বিবেচিত হয়েছে কারন রাসুল(সা:) বলেছেন যেটি নেশা দ্রব্য এটি কম হোক আর বেশী হোক এটিই হারাম(আবু দাউদ,নাসাঈ) আল্লাহ তায়ালা বলেছেন, আল্লাহর পথে ব্যায় কর,( অর্থ সম্পদ আকরিয়ে ধরে) নিজেদের হাতে নিজেদের ধ্বসের অতলে নিক্ষেপ করো না । ( সুরা বাকার ১৯৫) একটি পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে , ধুম পানে প্রায় ৪,৫০০ ক্যামি ক্যাল পয়জন ও রাসায়ানিক বিষ আছে রিপোর্টে বলা হয়েছে প্রতি বছর ২০ থেকে ৩০ লক্ষ লোক ধুমপানের কারনে মারা যায়। অতএব বর্তমান কুরআন সুন্নাহ ধারা প্রমানিত এগুলো হারাম। এখন আপনি কোনটি গ্রহন করবেন

### ৫. একই বিষয়ে ২ জন আলেম কথা বলছেএকজন দলীল দিচ্ছেন আরেকজন দিচ্ছে না এর মধ্যে যিনি দলীল দিচ্ছেন তার কথা গ্রহন করতে হবে। কারন শয়তান মানুষকে পথভ্রষ্ট করার জন্য আলেমের বেষ ধরে কথা বলে। শয়তানের তিনটি জিনিস দিয়ে আক্রমন করে
১/ এক শ্রেণীর দরবারী আলেম
২/ যাবতীয় নেশাদার দ্রব্য
৩/ নারী


### ৬.প্রত্যেক বিষয়ে বর্তমানে কিছু স্পেশালিস্ট পাওয়া যায় তারা গবেষণা করে থাকে তাদের শরনাপন্ন হলে একটি বিষয় ইনশাল্লাহ সমাধান পাওয়া যাবে যেমন: মাজহাবী ইখতেলাফী বিষয়ে সমাধান করে মুসলিম উম্মাহ কে মাজহাবী ভাইদের সাথে সালাফী ভাইদের সমন্বয় ঘটানের জন্য আব্দুল্লাহ আযযাম স্পেশালিস্ট । প্রকূত জিহাদ এর সঠিক ধারনা পেতে আমরা স্পেশালিস্ট হিসেবে শায়ক ওসামা বিন লাদেন.মোল্লা মুহাম্মদ ওমর , আমিরুল মুমিনীন আইমান জাওয়াহিরী, মাওলানা হাসেম ওমর,আব্দুল্লাহ আযযাম কে গন্য করতে পারি এই বিষয়ে তারা অনেক জ্ঞানী এ বিষয়ে তাদের কাছ থেকে অনেক কিছু জানা যাবে।

*** ৭. দুই রকম কোনো ফতুয়া আসলে দুটি বিষয় আমল করার পূর্বে অথ্যাৎ যেই ফতোয়াটির উপর আমল করলে যুগের সমন্যা সমাধান আর আমার কোনো ক্ষতির আশংকা হতে পারে আমি এমন ভাবে আমল করব যেন ক্ষতির আশংকা কেটে যায়। যেমন: ছবি তোলা হারাম কিন্তু বিভিন্ন কাজের জন্য ছবি তুলতে হয় এর জন্য গুরুত্বপূর্ন কাজের জন্য ছবি তোলা যাবে অন্যতায় ছবি তোলা হারাম।

*** ৮. কিছু কিছু বিষয়ে ঈমানদারদের মন যে দিকে সারা দেয় যে তার নিজের বিষয়টি নিজে বেশী বুঝে যেমন একজন ব্যাক্তি একটা কথা বলল আপনি বললেন ওনি ব্যাপারটি বললেও ব্যাপারটি কিন্তু এ রকম না এই সব বিষয় অামার অন্তর অমাকে যে দিকে নিবে এবং বেশী শান্তি পাবে এবং বেশী ঈমানী তাকওয়া হিসেবে ভাববেন আপনি সেই দিকটি গ্রহন করবেন। মহানবী (সা:) বলেন, যে ব্যাক্তি সন্দেহ যুক্ত বিষয়কে এরিয়ে চলে সে তার দ্বীনকেও বাচাল এবং ইজ্জতকেও বাচাল।

bokhtiar
06-16-2017, 04:44 PM
জাযাকাল্লাহু খাইরান।

বিদ্রোহী আমি
06-17-2017, 06:45 AM
জাজাকাল্লাহ

tawsif ahmad
06-17-2017, 08:58 AM
vai dorbari alem der ke kutta pituni dite mon chai