PDA

View Full Version : মকবুল জামাতের উচিত পুনর্বিবেচনা করা ।



Jundullah24
08-13-2017, 10:52 PM
তাবলীগীদের পতনের মূল কারণ এই না যে তাদের বেবস্থাপনায় সমস্যা । তারা আসলে এখনো বুঝতে পারছে না মূল সমস্যা টা কোন জায়গায় ।

সব ঠিক ই ছিল । শুধু কুরআনের আয়াতের অপব্যাখ্যা করার দ্বারা মহামহিম আল্লাহ্* 'আজ্জাওাযালের ক্রোধ অর্জনই আসল দায়ী তাদের পতনের জন্য ।

ইহুদিরা যা করত তারা ঠিক ঠিক তাদের পদাঙ্ক অনুসরণ করছে ।
তাওরাতে এমন অনেক আয়াত ছিল যার বাহ্যিক অর্থ ঠিক ই ছিল ।
কিন্তু হুকুমগুলো কঠিন বা বিভিন্ন কারণে তারা এগুলোকে তাওয়ীল করা শুরু করে ।
এবং এটা আয়াতের অন্তর্ভুক্ত ,
فَوَيْلٌ لِّلَّذِينَ يَكْتُبُونَ الْكِتَابَ بِأَيْدِيهِمْ ثُمَّ يَقُولُونَ هَٰذَا مِنْ عِندِ اللَّهِ
অতএব তাদের জন্যে আফসোস! যারা নিজ হাতে গ্রন্থ লেখে এবং বলে, এটা আল্লাহর পক্ষ থেকে অবতীর্ণ(২ঃ৭৯)

আল্লাহ্* তা'আলা যেভাবে খুশি হন সেভাবেই উনাকে (সুবাহানাহু তা'আলা) খুশি করতে হবে। কোন অভিনব সর্টকাটের দ্বারা না ।

ওয়া মা তাওফিকি ইল্লা বিল্লাহ ।

salahuddin aiubi
08-15-2017, 07:26 AM
জাযাকাল্লাহ!

murabit
08-15-2017, 08:41 AM
من تكلَّمَ بغيرِ علمٍ، فإنما يتبعُ هواه، وقد قال تعالى: {ومَنْ أضلُّ ممَّن اتَّبَعَ هواه بغير هُدىً مِن اللهِ} القصص: 50. وقال: {ومن الناسِ مَن يُجادِلُ في الله بغير علمٍ ويتَّبعُ كُلَّ شيطانٍ مريدٍ} الحج: 3. وقال: {الذين يجادلون في ءاياتِ اللهِ بغيرِ سلطانٍ أتاهُم كَبُرَ مقتاً عند اللهِ وعند الذين آمنوا كذلك يطبعُ اللهُ على كُلِّ قلبِ متكبِّرٍ جبار} غافر: 35. وقال: {قل إنما حَرَّم ربِّي الفواحِشَ ما ظهرَ منها وما بطن والإثمَ والبغيَ بغير الحقِّ وأن تُشركوا باللهِ ما لم يُنزِّل به سلطاناً وأن تقولوا على اللهِ ما لا تعلمون (1)}

من كذب عليَّ بُني له بيت في جهنم" متفق عليه. وقال - صلى الله عليه وسلم -: "ومن كذب عليَّ متعمداً فليتبوأ مقعده من النار" مسلم. وقال - صلى الله عليه وسلم -: "من يقل عني ما لم أقله فليتبوأ مقعده من النار". وقال تعالى: {ويوم القيامة ترى الذين كذَبوا على الله وجوههم مسودةٌ} الزمر: 60.
যে আমার সম্পর্কে এমন কথা বয়ান করে যা আমি বলিনি সে যেন নিজ ঠিকানা জাহান্নামে বানিয়ে নেয়। এসব ঠিকাছে , তবে আমাদের কে
হিকমাত উত্তম নছিহতের সাথে আহবান করা প্রয়োজন । অনেকেরই ইখলাছ জযবায়ে কুরবানি মাশাল্লাহ উত্তম লেবেলে আছে , এখন সুন্দর ভাবে সঠিক পদ্ধতিতে ধীরে ধীরে এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করা চায়, সময়ের আগে তাড়াহুড়া করে ফল পেতে চাইলে হিতে বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনা আছে। কখনো কারো বিরোধিতা না করে নিরবতা কে ও সহযোগিতা হিসাবে ধরে নিতে হয়। একবার তর্কে লিপ্ত হয়ে কারো মন বিগড়িয়ে দিলে সে আর তর্ককারি থেকে অথবা বিতর্কিত বিষয়টি সম্পর্কে হক্ব কবুল করার জন্য সাধারন ভাবে প্রস্তুত থাকে না।
আমাদের বারবার আচরন বিধিটি পড়ে মুখস্ত করে ফেলা দরকার । এটা সবার জন্যই জরুরি । সব সত্য সব সময় আলোচনার বিষয় নয় । অপাত্রে ইলম বিতরণকারী শুকরের গলায় মাল্যদান কারির ন্যয়।
অন্যের কাজের সংশোধনের চিন্তার চেয়ে নিজের কাজের ব্যস্ততায় মেধা সময় সম্পদ ব্যয় করা বেশী শ্রেয়। একসময় শায়খ উসামা রঃ কে একটি সালাফি পত্রিকার আর্টিকেলদেখানো হলো , যেখানে দারুচ্ছালামে নাইরোবিতে ইস্তেশহাদি হামলায় ইহুদি মুসাদের ১৫০+৪৫ সদস্যের হত্যাকে ঝাহান্নামের কাজ বলে কলম্বাজি করা হয়েছিল, শায়খ দেখে বলেছেন "নাহনু কাওমুন নুহিব্বল আমালা ওয়ালা নুহিব্বুল কালামা, ইন্নাল্লাহা সায়ুয়াচ্ছিরু মায় ইয়ারুদ্দুহুম।"
নিজেদের কে গুমরাহি থেকে বাচাতে হক্বের উপর দৃঢ় থাকার জন্য অবশ্যই আমাদের গুমরাহ আকীদা আচরন জামাত দল সম্পর্কে ইলম/ দলীল প্রমান অর্জন করে সচেতন থাকতে হবে । আমাদের অনেককেই দেখা যায় সাধারনে সহজে বুধগম্য নয় এমন বিষয়ে সরগরম হতে গিয়ে মূল উদ্যেশ্য থেকে দূরে সড়েপড়ি । এমন বুকামি থেকে সাবধান থাকা ও কাম্য।আল্লাহ তায়ালা আমাকে ও সব ভাইকে সর্বোত্তম ভাবে নিজেদের নিয়ামত কে কাজে লাগানোর সুযোগ করে দিন।আমীন।