PDA

View Full Version : ইসলামী ইমারত আফগানিস্তান খবর ১১/১৩ নভেম্বর ইংরেজী



কালো পতাকা
11-13-2017, 09:40 PM
বিসমিল্লাহির রাহমানীর রাহীম
http://i.cubeupload.com/kObhLd.png
নানগারহার,
১১ নভেম্বর - মুজাহিদীনের পূর্বাঞ্চলীয় নঙ্গারহার প্রদেশে মুজাহিদিনদের হামলায় অনেক শত্রু বাহিনী নিহত হয়েছে এবং ০৭ জনেরও বেশি আহত হয়েছে বলে আল-ইমারাহ নিউজ জানিয়েছে।
এক হামলায় ০৫ জন শ্বেতাঙ্গ নিহত এবং আরো তিনজন আহত হয়। শনিবার ভোররাতে প্রদেশের চপারীহার জেলার একটি রাস্তার বোমা বিস্ফোরিত হলে ০৩ জন পুতুল সেনা নিহত হয় এবং ১ জন আহত হয়।
প্রদেশের সুখ রৌড জেলায় এক পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন এবং শনিবারে আরো ০৩ জন আহত হয়েছেন।
প্রতিবেশী লাঘমান প্রদেশের একটি রিপোর্টে বলা হযেছে যে, একটি আর্ববিক শনিবার এই প্রদেশের আলিশিং জেলায় ০২টি কালাশনিকভ রাইফেলস, ০১ টি পি কে মেশিনচালক এবং গোলাবারুদসহ মুজাহিদীনরা গণিমত লাভ করে।
লাঘমান প্রদেশের আরেকটি প্রতিবেদনে শনিবার লাঘমান প্রদেশের রাজধানী মেহেররালম শহরে মুজাহিদীনদের হামলায় ১ জন গোয়েন্দা কর্মকর্তা গুলিবিদ্ধ হন।

পাকাতিয়া
১১নভেম্বর - শনিবার মুজাহিদীন্দের পাকতিয়া প্রদেশের রাজধানী গার্ডিজ শহরে শত্রু সামরিক বাহিনীর উপর গুলিবর্ষণ শুরু করে এতে ০৪ জন শত্রু সৈন্যের মৃত্যু ঘটে ।
একইভাবে, মুজাহিদীন রকেটের আক্রমনের পর ২ টি ট্যাংক এবং ২ টি সামরিক যানবাহন ধ্বংস হয়ে যায়।

এ ছাড়া, একই দিনে প্রদেশের জুরমাত জেলায় মুজাহিদিনরা শত্রুদের উপর হামলা চালায় এতে ৫ জন শত্রু সৈন্য নিহত এবং ০৪ জন বন্দুক যুদ্ধে আহত হন। যুদ্ধে একটি গাড়িও ধ্বংস হয়ে যায়।


গাজনি,
১১ নভেম্বর - শনিবার দক্ষিণাঞ্চলীয় গাজনি প্রদেশের কুরাবঘ জেলায় শত্রু সৈন্যদের একটি রাস্তার পাশে বোমা বিস্ফোরণ করে মুজাহিদিনরা এতে ০৩ জন নিহত হয়েছে।
গাজনি থেকে আরেকটি রিপোর্টে, গজনি প্রদেশের প্রাদেশিক রাজধানী বোমার বিস্ফোরণে ২ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়। একই দিনে মুজাহিদিনের দিয়াক জেলার একটি চেক পোস্টে হামলার পর একজন পুলিশ সদস্য নিহত হন।


কান্দাহার,
১১ নভেম্বর - রিপোর্ট অনুযায়ী, রাত ০৮টার দিকে স্থানীয় সময় রাত ৮টার দিকে মুজাহিদীন ময়মন জেলার কালান চেকি এলাকায় দুই শত্রুর চেক পোস্টে হামলা চালায় মুজাহিদরা, উভয় চেক পোস্টকে ছত্রভঙ্গ করে এতে ১৫ জন পুতুল সেনা নিহত এবং বাকিরা পালাতে বাধ্য হয়।

একটি ড্যাশেক বন্দুক, ১ পি কেএম মেশিন বন্দুক, ০৩ টি আরপিজি লঞ্চ, ০১ টি মর্টার টিউব, ০১টি শনাক্তকারী বন্দুক, এবং অন্যান্য সরঞ্জাম গণিমত লাভ করে মুজাহিদিনরা।
পরে, মুজাহিদীনরা জেলার সুরা বাঘাল এলাকায় শত্রুর অবস্থানের উপর হামলা চালায়, শত্রুকে ০৬টি চেকপোস্ট ত্যাগ করতে বাধ্য করা হয, তবে মুজাহিদীনরা চেক পোষ্টে প্রবেশ করে না।

শালিকোটে ১৯জনকে গুলি করে হত্যা মুজাহিদিনরা
কান্দাহার, ১৩ নভেম্বর - রাত সাড়ে ১০টায় স্থানীয় সময় বিকাল চারটার দিকে মুজাহিদীনের শালিকোট জেলার চিনয়ার এলাকায় ২ জন সেনা সদস্যের চেকপয়েন্ট হামলা করে।
ভারী ও হালকা অস্ত্রের আক্রমণ মধ্যরাত পর্যন্ত চলেছিল, এতে ১৩ জন পুতুল সেনা নিহত এবং ০৬জন আহত হয়।
২ মুজাহিদীনরা অপারেশনে আহত হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।
ঘোড় জেলার গ্রামবাসীর বাসিন্দারা মুজাহিদীনদের সাথে যোগ দিয়েছে
জিওওআর, ১৩ ই নভেম্বর - রাজধানী চখচনার কাছ থেকে আসা একটি সাম্প্রতিক রিপোর্টে বলা হয় যে, শাবিয়াহ অঞ্চলের প্রায় ৫০ টি গ্রামে প্রায় ৮০০০ পরিবার ইসলামি আমির মুজাহিদীনদের সমর্থনের কথা ঘোষণা করেছে, হাজী আহমদ নেতৃত্বে তারা মুজাহিদিনদের সাথে যোগদান করে
বিশদ বিবরণ অনুযায়ী, হাজী আহমদ মুজাহিদীনকে প্রায় ১০০০ রাইফেল এবং ১৫০ অন্যান্য ভারী ও হালকা অস্ত্র সরবরাহ করেছেন এবং সমস্ত উল্লেখযোগ্য এলাকায় ইসলামি ইমারতের পতাকাতলে জড়ো হয়েছে আল্লাহু আকবার।



ফাহার,
http://i.cubeupload.com/lsBrok.png
১৩ ই নভেম্বর - ইসলামী আগ্রাসনের মুজাহিদীনরা ফারাহ শহরের রেগুলেটী এলাকায় রাতারাতি এক ভাড়াটে চেক পোস্টে হামলা চালায়।
ভারী ও হালকা অস্ত্রের আঘাতে প্রায় ২ ঘণ্টা ধরে চলে এই যুদ্ধ এতে, ১৩ জন পুতুল সেনাকে হত্যা করার পর চেক পোস্ট গুলো দখল করে মুজাহিদিনরা, ২ টি গাড়ি ধ্বংস করে এবং বাকিদের মৃতদেহ ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়।
একটি পি.কে.এম. মেশিন বন্দুক, ০১ টি আরপিজি লঞ্চ, ০৯ টি রাইফেলস, ০১ টি পিস্তল, ০১ টি যোগাযোগের রেডিও, ৫০০০ বুলেট ও অন্যান্য সরঞ্জাম গণিমত লাভ করা হয়।



বাঘিস,
১৩ ই নভেম্বর- বাগাই প্রদেশের মকুর জেলার কাছে পৌঁছানো রিপোর্টে জানা যায় যে মুজাহিদীনরা গত ০৩ রাতে বন্দুকযুদ্ধের পর বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত হন এবং আহত হয়েছেন ২ জন বাকিরা পালাতে বাধ্য হয় ।
একটি PKM মেশিন বন্দুক, 1 Kalashnikov, 4 মোটরবাইক এবং অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম গণিমত লাভ করে মুজাহিদিনরা আল্লাহু আকবার।





গাজনি,
http://i.cubeupload.com/RM4G2l.png
১৩ নভেম্বর: মুজাহিদিন যোদ্ধারা গত রাতে গাজনী প্রদেশের শালগর জেলায় একটি সেনা সদরদপ্তিতে হামলা চালায় এতে ০৭ জন পুতুল সেনা হত্যা করা হয় এবং আরো ০২ জন আহত হয়।

০১ জন মুজাহিদ যোদ্ধা যুদ্ধে শহীদ হন।


ক্যাপিসা,
১৩ নভেম্বর - রোববার সন্ধ্যায় কপিসা প্রদেশের তাব্ব জেলায় মুজাহিদিনের দুটি পৃথক হামলায় কমপক্ষে ০৪ জন পুতুল সেনা নিহত হয় এবং আরো ০৪জন আহত হয়। আক্রমণে একটি বর্মধারী ট্যাংকও ধ্বংস করা হয়।
কুন্দুজ
http://i.cubeupload.com/6VF6mh.png
কুন্দুজ প্রদেশের আলিয়াবাদ জেলার একটি শত্রু ট্যাংকের একটি রাস্তার পাশে বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে ০৩ জন পুতুল সেনা নিহত হয়।

আসাদাল্লাহ
11-14-2017, 04:44 PM
যাযাকাল্লাহু খাইর.......

ইয়া আখি.......!!!

আসাদাল্লাহ
11-14-2017, 04:50 PM
ভাইয়ের কাছ থেকে এরকম আপডেট মুজাহিদীন নিউজগুলি.... নিয়মিত আশা করছি....!

............ইনশায়াল্লাহ.....!!!!