PDA

View Full Version : আলেম ভাইদের নিকট একটি মাসয়ালা জানার অনুরোধ।



স্নাইপার
12-02-2017, 08:11 AM
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম।
প্রিয় ভাইয়েরা, মাসবুক ব্যক্তি যদি ইমামের সাথে ইমামের সিজদা সাহুর সালামের সাথে সালাম ফিরিয়ে ফেলে মাসবুক ব্যক্তির নামাযে কোন সমস্যা হবে?
# মাসবুক ব্যক্তি যদি ইমামের সাথে ভুলে নামায শেষ করার সালাম ফিরিয়ে ফেলে নামাযে কোন সমস্যা হবে?
বিস্তারিত জানালে উপকৃত হবো।
বি:দ্র: ফিকহি হানাফী।

Muhammad bin maslama
12-02-2017, 09:46 PM
প্রিয় ভাইয়েরা, সাথে আমার একটি প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার অনুরোফহ রইলো।
#প্রশ্ন : এক ব্যক্তি একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে। তার জন্য ঐ প্রতিষ্ঠানের বিদ্যুতের মাধ্যমে ইস্ত্রি করা কম্পিউটার চালানু কি জায়েয হবে?

ইলম ও জিহাদ
12-02-2017, 10:08 PM
বিসমিল্লাহির রাহমানীর রাহীম

মুহতারাম ভাই এখানে দুটি মাসআলা জিজ্ঞেস করেছেন-

১. মাসবুক ব্যক্তি যদি ইমামের সাজদায়ে সাহুর সালামের সাথে সালাম ফিরিয়ে ফেলে তাহলে তার নামাযে কোন সমস্যা হবে কি? অর্থাৎ ইমাম যখন সাজদায়ে সাহু আদায়ের জন্য ডান দিকে সালাম ফিরান, তখন যদি মাসবুক ব্যক্তি ইমামের সাথে সালাম দিয়ে ফেলে তাহলে তার নামাযে কোন সমস্যা হবে কি?

[উল্লেখ্য, সালাম দেয়া বলতে আসসালামু আলাইকুম বলা উদ্দেশ্য। শুধু গর্দান ফিরানো উদ্দেশ্য নয়।]


প্রশ্নটাকে আরেকটু খুলে বললে বলা যায়- ইমাম যখন সাজদাযে সাহু আদায়ের জন্য সালাম ফিরান, তখন মাসবুকের উচিৎ সালাম না ফিরিয়ে বসে থাকা। এরপর ইমাম যখন সাজদা করেন তখন তার উচিৎ ইমামের সাথে সাজদা করা। অর্থাৎ মাসবুক ব্যক্তি ইমামের সাথে সালাম ফিরাবে না, তবে ইমামের সাথে সাজদায়ে সাহু করবে। সালাম ফিরাবে না, কারণ- সালাম ফিরানো হয় নামায শেষ করার জন্য, কিন্তু মাসবুকের নামায তো এখনও বাকি। তাই মাসবুক ব্যক্তি ইমামের সাথে সালাম ফিরাবে না। এখন যদি কোন মাসবুক ব্যক্তি ইমামের সাথে সালাম ফিরিয়ে ফেলে তাহলে তার নামাযে কোন সমস্যা হবে কি?


উত্তর:
উক্ত মাসবুকের সালাম ফিরানো কয়েকটি কারণে হয়ে থাকবে-
ক. মনে না থাকার কারণে ভুলক্রমে।
খ. স্মরণ থাকা সত্ত্বেও ইচ্ছাকৃতভাবে।
গ. মনে করেছে ইমামের সাথে মাসবুককেও সালাম দিতে হবে- তাই।

খ ও গ সূরতে নামায ভেঙে যাবে। কারণ, নামাযের ভিতরে ইচ্ছাকৃত সালাম দিলে নামায ভেঙে যায়। আর ক সূরতে দেখতে হবে মাসবুক ব্যক্তি সালাম কখন দিয়েছেন:
- ইমামের সালাম দেওয়ার আগে?
- নাকি একটুও আগ-পর ব্যতীত হুবহু ইমামের সাথে সাথে?
- নাকি ইমামের সালামের পর?

যদি ইমামের আগে কিংবা ইমামের সাথে সাথে সালাম দিয়ে থাকে, তাহলে নামায দুরস্ত হয়ে যাবে, সাহু সাজদা লাগবে না। কেননা, এ উভয় সূরতেই মাসবুক ব্যক্তি মুক্তাদি হিসেবে বহাল ছিল। আর মুক্তাদির ভুলের কারণে সাহু সাজদা দিতে হয় না। আর যদি ইমামের পর সালাম দিয়ে থাকে তাহলে নামাযের শেষে সাহু সাজদা দিতে হবে। কারণ, ইমামের সালামের পর মাসবুক আর *মুক্তাদি হিসেবে বহাল নেই, বরং একাকী ব্যক্তির হুকুমে চলে গেছে। আর একাকী নামায আদায়কারী ব্যক্তি ভুল করলে সাহু সাজদা দিতে হয়।


বি.দ্র. সাধারণত হুবহু ইমামের সাথে সাথে সালাম দেয়া যায় না, বরং ইমাম সালাম শুরু করলে তারপরই মুক্তাদিরা সালাম শুরু করে। তাই এ ব্যাপারে সতর্ক থাকা দরকার। এমন যেন না হয় যে, ইমামের পর সালাম দিল আর ধরে নিল, আমি ইমামের সাথে সাথে সালাম দিয়েছি, ফলে নামাযের শেষে আর সাহু সাজদা দিল না। কাজেই পরিপূর্ণ নিশ্চিত না হলে সাহু সাজদা দিয়ে দেয়াই উচিৎ হবে।


২. দ্বিতীয়ত ভাই জানতে চেয়েছেন- মাসবুক ব্যক্তি যদি ইমামের সাথে ভুলে নামায শেষ করার সালাম ফিরিয়ে ফেলে তাহলে নামাযে কোন সমস্যা হবে? অর্থাৎ ইমাম যখন স্বাভাবিকভাবে নামায শেষ করার জন্য সালাম দিচ্ছেন, তখন মাসবুকে উচিৎ সালাম না ফিরিয়ে বসে থাকা। ইমাম সাহেব সালাম শেষ করলে তখন উঠে বাকি নামায শেষ করা। কিন্তু মাসবুক যদি ভুলক্রমে ইমামের সাথে সালাম ফিরিয়ে ফেলে তাহলে মাসআলা কি হবে?

উত্তর:
এর হুকুম ১নং প্রশ্নের উত্তরের অনুরূপ। এখানেও ভুলক্রমে সালাম দেয়ার উপরোক্ত তিন সূরত আসবে। অর্থাৎ যদি ইমামের আগে কিংবা ইমামের সাথে সাথে সালাম দিয়ে থাকে, তাহলে নামায দুরস্ত হয়ে যাবে, সাহু সাজদা লাগবে না। আর ইমামের পর সালাম দিয়ে থাকলে নামাযের শেষে সাহু সাজদা দিতে হবে। فقط والله سبحانه وتعالى أعلم

maruful
12-02-2017, 10:16 PM
জাযাকাল্লাহ

maruful
12-02-2017, 10:27 PM
জাযাকাল্লাহ

أمر الإسلام
12-03-2017, 06:25 AM
جزاك الله أحسن الجزاء

bokhtiar
12-03-2017, 01:28 PM
Algiers jazakallah.