PDA

View Full Version : তারিক মেহান্না



কাল পতাকা
10-20-2015, 12:22 PM
৩০ বছর বয়সী ড.তারেক মেহান্না একজন উচ্চশিক্ষিত ইজিপ্সিয়ান-আমেরিকান মুসলিম। তিনি ম্যাসাচুসেটস কলেজ অফ ফার্মাসি এন্ড হেলথ সায়েন্স থেকে ফার্মাসির উপর পিএইচ,ডি সম্পন্ন করেন । তিনি একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম এবং স্থানীয় মুসলিম এবং আন্তঃধর্ম সমাজে অত্যন্ত সম্মানিত একজন ব্যক্তি। একইসাথে ভাই, শিক্ষক, নেতা, বিদ্বান এবং বন্ধু হিসাবে সমাজের প্রতি তার অনস্বীকার্য অবদান তাকে সম্মানের এই আসনে অধিষ্ঠিত করেছে। পরিচিতজনেরা একজন বিনয়ী, শান্ত, আন্তরিক, শান্তিপ্রিয়, ব্যক্তিত্ববান, জ্ঞানী এবং একনিষ্ঠ ব্যক্তি হিসাবে তারেকের বর্ণনা দিয়ে থাকেন।

অন্যায়ের বিরুদ্ধে তারেকের কন্ঠ ছিল সর্বদা সোচ্চার। মুসলিম বন্দীদের মুক্তির দাবিতেও তিনি পথিকৃৎ ছিলেন। তিনি দৃঢ় নৈতিক মূল্যবোধের অধিকারী এবং কোনো পরিস্থিতিতেই তিনি তার মূল্যবোধের সাথে আপোস করতে সম্মত হননি।

কয়েক বছর ধরেই তারেক এফবিআই'র নজরদারী এবং হয়রানির শিকার ছিলেন। একজন রাজনৈতিকভাবে সচেতন স্পষ্টবাদী মুসলিম নেতা হওয়াই ছিল এই হয়রানির কারণ। তার প্রতিবাদী কন্ঠ নিশ্চুপ করে দিতে এবং তাকে ব্যবহার করার উদ্দেশ্যে এফবিআই তাকে গুপ্তচর হিসাবে কাজ করার প্রস্তাব দেয়। ন্যায়পরায়ণ তারেক নিজের সমাজের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির এই প্রস্তাব ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেন। প্রস্তাব মেনে না নিলে এফবিআই তার বিরুদ্ধে মামলার হুমকি দিতে থাকে । আর এর পরিণতিতেই ২০০৮ সালে তাকে গ্রেফতার করা হয় এবং এরপর ২০০৯ সালের ২১ অক্টোবর পুনরায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

২০০৯ এ গ্রেফতারের পর দু'বার তারেকের জামিনের আবেদন নাকচ করে দেওয়া হয়। বিচারের অপেক্ষায় প্লাইমাউথ কাউন্টি কারেকশনাল ফ্যাসিলিটিতে দৈনিক ২৩ ঘন্টার নিঃসঙ্গ কারাবাসে(Solitary Confinement) তিনি দুই বছরের বেশি সময় কাটান।

অবশেষে ২০১১ সালের ২৭ অক্টোবর তারেকের বিচার শুরু হয় এবং দুই মাস ধরে চলে। ২০ ডিসেম্বর তার প্রতি আরোপিত সাতটি মামলাতেই তাকে অন্যায়ভাবে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।২০১২ সালের ১২ এপ্রিল তাকে সাড়ে সতের বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়। বর্তমানে তিনি টেরা হটে সি এম ইউ (Terre Haute CMU)তে তার উপর চাপিয়ে দেওয়া অন্যায় সাজা ভোগ করছেন।

Abu Ahmad
10-20-2015, 04:09 PM
আল্লাহ্* তাকে উত্তম বদলা দান করুন
এবং
মুক্তি দান করুন