PDA

View Full Version : চার বিবাহ সম্পর্কে এক বোনের উক্তি ----- তার সমধান কামনা করছি ভাইগন দয়া করে জানাবেন:-



ALQALAM
03-10-2018, 12:39 PM
বিসমিল্লাহিররাহমানিররাহিম।
----আসসালামু আলাইকুম----
ভাই একবোন কে তার স্বামী বললো আমি আরো ৩টি বিয়ে করব! তখন বোনটি কেঁদে ফোললো এবং কিছুটা রাগান্নিত হয়ে স্বামীকে খারাপ বলতে লাগলো. তখন স্বামি বললো এটা শরীয়ত অনুমোদন করেছে.. আর এর জন্য তুমি আমাকে খারাপ বললে? স্বামীর ও মনটা খারাপ..
তখন স্ত্রী নরম সুরে একটা প্রশ্ন করলো
★★দেখো! আমি তোমাকে এত ভালোবাসি এত ভালোবাসি যে তুমি আমার থেকে দূরে থাকলে আমার অস্হিরতা শুরু হয়!
তুমিই বলো যদি তোমার স্ত্রি অন্য কোনো ছেলের সাথে রাত কাটায়, তো তোমার কেমন লাগবে?
ঠিক তেমনি তুমি যদি আমাকে রেখে অন্য আরেকটা মেয়ের সাথে রাত কাটাও তখন আমার কলিজাটা ফেটে যাবে.. ★★
তার পর বোনটি ৪বিবাহেকে অপছন্দ প্রকাশ করলো..

এখন ১/এবোনটি যে ইসলামের হালাল কৃত বিষয়কে অপছন্দ করল তার কি? বিধান!
২/৪বিবাহকে অনুমোদনের দ্বারা শরীয়তের উদ্যেশ্য কি?
দয়া করে জানান ইংশা আল্লাহু তায়া...

titanium
03-10-2018, 03:42 PM
ভাই, আমি মনে করি অনলাইনে এ বিষয়ে প্রচুর আলোচনা রয়েছে। কালামুল্লাহ ডট কমে কিছু পাবেন এই বিষয়ে।

murabit
03-10-2018, 11:50 PM
শরিয়তের মাসআলা পরিষ্কার , সর্ব যোগের ইসলামি সামাজিকতা তো আছেই অনিসলামি সমাজ ব্যবস্থায় ও এক সাথে ১মহিলা অনেক স্বামি পালনের প্রথা খুব কমই ছিলো , তবে ১স্বামি এক সাথে অনেক স্ত্রীর বিষয়টি সর্বদাই সাভাবিক ছিলো । এবং এরদ্বারা বংশ পরিচয়ে কোন জটিলতা অ নেই । কিন্তু একাধিক স্বামি হলে তার সন্তন কোন স্বামি থেকে সেই পরিচয়ে জটিলতা আসবে। সৃষ্টিগত ভাবেই নারি দুর্বল পুরুষ সবল , একজন দুর্বল চারজন সবলের বুঝা বহন করবে ?
প্রানি জগতে ও এক নরের দ্বারা অনেক মাদির প্রজনন হয় উল্টু্টা কদাচিৎ হতেও পাড়ে কিন্তু অস্বাভাবিক, উদ্ভিদ জগতের অবস্থাও তথৈবচ সেখানে পরাগায়নে একটি নর শত শত মাদির জন্য যতেষ্ঠ , পুরুষের এক বারের আদর্শ বির্যে ২২ লক্ষ শুক্র কীট থাকে এবং তার এটি উতপাদনে এক দিন এক বেলা খাবার যতেষ্ঠ ,আর নারিদের ১ মাসে বা তার চেয়ে বেশী সময় পরে ১ টি ডিম্ব প্রস্তুত হয়। পুরা সৃষ্টি জগত এক দিকে আর কিছু মস্তিষ্ক শুকনো বিকার গ্রস্ত ভিন্ন দিকে।
নিজেদের পছন্দ অপছন্দ সুবিধা অসুবিধাকে আল্লাহর বিধানের সামনে সমর্পিত বানিয়ে দেয়াই ইসলামের দাবি। কারন ইসলামের বিধান স্রষ্টার পক্ষ হতে সার্বজনিন কল্যাণ জনক বিধান , এর সাথে কারো ব্যক্তিগত কষ্ট ধর্তব্য না। বিদ্যুতের আবিষ্কার মানুষের সুবিধার জন্য , কেহ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মরলে মরতেও পাড়ে। ... আর এগুলো হলো অনেকটা আবেগি কথা বার্তা , নতুবা মধ্য প্রচ্যের সমাজে এখনো বিবাহের জন্য পাত্র হিসেবে বিবাহিত পুরুষের কদর অনেক।জান্নাতে যেখানে কোন কিছুর অভাব অভিযোগ বা কোন অশান্তি নেই সেখানেও এই নিয়ম একাধিক স্ত্রী হবে , একাধিক স্বামি হবে না । একাদিক ভাণ্ড একটি বস্তুর জন্য হতে পাড়ে, কিন্তু একাদিক বস্তুর জন্য ভান্ড হবে একটি এটি সম্ভব নহে।
পুরুষ একাধিক স্ত্রী রাখলে সমাজে বিবাহ ছাড়া নারি পাও্য়া যাবে না বরং নারির সংখ্যা কম থাকবে দাম বেশী হবে , আর ১জন পুরুষ একজন নারি এমন হলে বা একজন নারি একাধিক পুরুষ তাহলে নারির অবস্থাও টাইট আবার বিবাহের জন্য পুরুষ কম হয়ে যাবে।জন্মগত হারে এমনিতেই পুরুষ কিছু কম।
পুরুষ নারির সম্মিলনে বংশ বিস্তার উদ্দেশ্য আর এর জন্য বিজের উপযোগতায় ও অনুপাতে যমিনের পরিধি পরিমান বেশী থাকাই স্বাভাবিক। একই যমীনে অনেক বীজ বপনে ফসল ফলবেনা , বরং বীজ নষ্ট হবে নিশ্চিত , রাব্বানা মা খালাকতা হাযা বাতিলা।

ALQALAM
03-11-2018, 09:46 AM
যাজাকাল্লাহু খাইরান আহসানাল যাজা....!

এখন ভাই ভিন্ন একটা প্রশ্ন! কোনো ছেলে প্রেম করত তার পর যে মেয়ের সাথে প্রেম করত তাকে সে পেলোনা! পরবর্তিতে মনোস্হির করলো যে সে আর বিয়েই করবেনা... কারন হিসেবে বলে যে দেখ! আমি তাকে আমার হৃদয়ের সব ভালোবাসা দিয়ে দিয়েছি এখন অন্য কোনো মেয়েকে বিয়ে করে এনে তাকে আমি হয়তো ভালোবাসা দিতে পারবনা তাইলেত জুলুম হয়ে যাবে.. ★এটার কি? বিধান★দয়া করে জানান ভাই!

murabit
03-11-2018, 04:44 PM
পুরুষের মন সাধারনত এত ছুট ও সংকির্ন হয়না তবে বাস্তবে কারো মধ্যে যদি এমন মেয়েলি স্বভাবের দুর্বলতার প্রকাশ ঘটে, এগুলু সধারনত হয় দ্বীনের ছহীহ বুঝ না থাকার কারনে, তাহলে তার ব্যক্তিগত অবস্থা যিনি ভালভাবে জানবেন তার জন্য মাশওয়ারা দেয়া সহজ হবে , এটা সাধারন কোন নিয়মে আসার প্রয়োজন নেই। একটি ঝর্না থেকে অনেক গুলো জমীন সিঞ্চিত হয়, একটি ঝর্না একটি জমীর অভাবে শুকিয়ে মরে যাবে, কোন অনাবাদ জমীন কেই তার থেকে সেচ দেয়া যাবেনা এটা অস্বাভাবিক, বরং ঝর্না যেদিকে গড়াবে সেদিকটিকেই সে আবাদ করে সজিব করে তুলবে।

ALQALAM
03-11-2018, 04:50 PM
আচ্ছা ভাই
যাজাকাল্লাহু খাইরান আহসানাল যাজা......!!

ibnul khattab
03-12-2018, 08:42 AM
জাযাকাল্লাহ শায়খ মুরাবিতকে! অত্যন্ত চমৎকার *উদাহরণ দিয়ে বিষয়টা ফুটিয়ে তুলেছেন।