Announcement

Collapse
No announcement yet.

শায়খ আইমানের শাহাদাতের সংবাদ: আমরা বিচলিত নই

Collapse
This is a sticky topic.
X
X
 
  • Filter
  • Time
  • Show
Clear All
new posts

  • শায়খ আইমানের শাহাদাতের সংবাদ: আমরা বিচলিত নই

    শায়খ আইমানের শাহাদাতের সংবাদ: আমরা বিচলিত নই
    সোশ্যাল মিডিয়ায় শায়খ আইমানের শাহাদাতের সংবাদ আসছে ব্যাপারে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন একটি বিবৃতিও দিয়েছে এছাড়াও বিভিন্ন দেশ ব্যাপারে আপন আপন মন্তব্য দিয়েছে এবং দিচ্ছে

    সংবাদ সবটুকুই কুফফার মিডিয়া থেকে এসেছে তানজিম থেকে অফিসিয়াল কোনো বিবৃতি আসা পর্যন্ত আমরা ব্যাপারে পরিষ্কার কিছু বলতে পারছি না

    তবে সংবাদ যাই হোক, সত্য হলেও আমরা বিচলিত নই দ্বীনে ইসলাম কোনো ব্যক্তির উপর নির্ভর নয় কোনো ব্যক্তি চিরস্থায়ীও নয় এক দিন না এক দিন সকলকে চলে যেতে হবে

    আর শত্রুর হাতে শহীদ হওয়া নতুন কিছু নয় ধারা চিরকালই চলে আসছে

    আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন,
    وَكَأَيِّنْ مِنْ نَبِيٍّ قَاتَلَ مَعَهُ رِبِّيُّونَ كَثِيرٌ فَمَا وَهَنُوا لِمَا أَصَابَهُمْ فِي سَبِيلِ اللَّهِ وَمَا ضَعُفُوا وَمَا اسْتَكَانُوا وَاللَّهُ يُحِبُّ الصَّابِرِينَ –آل عمران 146
    কত নবী রয়েছেন যাদের সঙ্গে মিলে বহু আল্লাহওয়ালা যুদ্ধ করেছেনআল্লাহর পথে তাদের যে কষ্ট-বিপদ এসেছে তার কারণে তারা সাহস হারায়নি, দুর্বলও হয়নি এবং (শত্রুরসামনে) মাথা নতও করেনি আর আল্লাহ অটল অবিচল লোকদের ভালবাসেন” –আলে ইমরান ১৪৬

    এ আয়াতে قَاتَلَ (যুদ্ধ করেছে), قُتِلَ (নিহত হয়েছে): দুই রকম কেরাতই আছে। দ্বিতীয় সূরতে অর্থ হবে: অনেক নবী এবং নবীর সাথে তার আল্লাহ ওয়ালা সাথীরাও শহীদ হয়েছেন। কিন্তু তাদের শাহাদাতে বাকিরা হীনমন্য হয়নি। মাথাও নত করেনি। বরং শহীদদের পথ ধরেই সামনে এগিয়ে গেছে।

    উম্মতের কাছে সবচেয়ে প্রিয় তাদের নবী সেই নবীও চিরস্থায়ী ছিলেন না তাঁরও মৃত্যু হয়েছে

    রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মৃত্যু ছিল উম্মতের জন্য সবচেবেদনা-বিদূর ঘটনা সাহাবায়ে কেরাম ভাবেননি যে, কোনো দিন রাসূল তাদের সামনে থেকে চলে যাবেন কিন্তু সত্য মেনে নিতেই হয় রাসূলের মৃত্যুতে সাহাবায়ে কেরাম যখন শোকে মুহ্যমান, তখন আবু বকর সিদ্দিক রাদি. সাহাবায়ে কেরামকে সম্বোধন করে যে ভাষণ দিয়েছিলেন, সেটিই উম্মতের অনুসরণীয়

    তিনি বলেছিলেন,
    ألا من كان يعبد محمدا صلى الله عليه و سلم فإن محمدا قد مات ومن كان يعبد الله فإن الله حي لا يموت . وقال { إنك ميت وإنهم ميتون } . وقال { وما محمد إلا رسول قد خلت من قبله الرسل أفأن مات أو قتل انقلبتم على أعقابكم ومن ينقلب على عقبيه فلن يضر الله شيئا وسيجزي الله الشاكرين } . صحيح البخاري (دار ابن كثير) (3/ 1341)
    ভাল করে শোনো! তোমাদের কেউ যদি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের পূজা করে থাকো, তাহলে (শোনো,) মুহাম্মাদ ইতিমধ্যে মারা গেছেনআর যারা আল্লাহর পূজাকরে, তারা যেনে রাখুক যে, আল্লাহ চিরঞ্জীবতার কোনো মৃত্যু নেই

    এরপরতিনি (এ আয়াত) তিলাওয়াতকরেন,

    ‘(হে রাসূল!) মৃত্যু আপনার জন্যও অবধারিত, মৃত্যু তাদের জন্যও অবধারিত’। (যুমার: ৩০)

    আরও তিলাওয়াত করেন,

    মুহাম্মাদ একজন রসূল বৈ (ইলাহ) তো নয় (যে, তার মৃত্যু হতে পারে না।)! তাঁর পূর্বেও বহু রাসূল অতিবাহিত হয়ে গেছেন। তাহলে কি তিনি যদি মৃত্যুবরণ করেন অথবা নিহত হন, তবে তোমরা (জিহাদ বা দ্বীনে ইসলাম থেকে) পশ্চাদপসরণ করবে? বস্তূতঃ কেউ যদি পশ্চাদপসরণ করে, তবে তাতে আল্লাহর কিছুই ক্ষতি হবে না। আর (অতি শীঘ্রই) আল্লাহ তাআলা শোকরগুজার (ও আনুগত্যে অটল) বান্দাদের প্রতিফল দান করবেন’। (আলে ইমরান: ১৪৪)” –সহীহ বোখারি: ৩/১৩৪১

    রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মৃত্যুর পর সাহাবায়ে কেরাম যেমন দ্বীনের উপর জিহাদের উপর অটল ছিলেন, আমাদেরও তাই করণীয়। আমরা ব্যথিত হবো, কিন্তু পিছপা হবো না ইনশাআল্লাহ।
    ***


  • #2
    আমরা কাফের সম্রদায়ের সংবাদ বিশ্বাস করি না, রাব্বে কারিম এই সংবাদ মিথ্যা বানিয়ে দিন এটাই আমাদের মনের কামনা। আর যদি শায়েখ আইমান আল জাওয়াহিরি হাঃ শহিদ হন। তাহলে তো সর্ব উত্তম মৃত্যু তাওফিক হয়েছে। আর আমরা আমাদের প্রথম খলিফার সেই প্রথম খুতবা স্বরণ করছি তিনি জনস্মুখে ঘোষণা করেছিলেন من كان يعبد محمدا فان محمدا قد مات و من كان يعبد الله فان الله حي لا يموت যে মুহাম্মদ সাঃ এর ইবাদত করে সে জেনে রাখুন মুহাম্মদ সাঃইন্তেকাল করেছেন আর যে আল্লাহ তায়ালার ইবাদত করে সে জেনে রাখুক আল্লাহ তায়ালা চিরঞ্জিব তার মৃত্যু নেই
    Last edited by Munshi Abdur Rahman; 1 week ago.

    Comment


    • #3
      হে উম্মাহ’র মহীরূহ…!
      আপনি আপনার জাতির বিজয় দেখে গেছেন। আপনার কষ্টের ফল কিছুটা জীবদ্দশাতেই পেয়ে গেছেন, আলহামদুলিল্লাহ।

      হে উম্মাহ’র রাহবার…!
      আমরা তো আপনার প্রতিদান দেওয়ার সামর্থ রাখি না। আপনাকে আল্লাহ তাআলা তাঁর শান অনুযায়ী পুরষ্কৃত করবেন, ইনশাআল্লাহ।

      আপনি বেঁচে থাকলে আল্লাহ তাআলা আপনার ছায়া আমাদের ওপর দীর্ঘ করুন। আর, আপনি শাহাদাত বরণ করলে আল্লাহ তাআলা আপনার পূর্বেকার ভাইদের সাথে আপনাকে উত্তম অবস্থায় জান্নাতে মিলিত করুন। আমীন ইয়া রাব্বাল আলামীন।

      কবির ভাষায়
      উহারা চাহুক দাসের জীবন, আমরা শহীদি দরজা চাই; নিত্য মৃত্যু-ভীত ওরা, মোরা মৃত্যু কোথায় তা খুঁজে বেড়াই!
      এখন কথা হবে তরবারি'র ভাষায়!

      Comment


      • #4
        اَللّٰهُمَّ ! احْفَظْنَا و أدِمْ فَرْحَنَا وَ سُرُوْرَنَا
        হে পরাক্রমশালী শক্তিধর! কৃপণতা আর কাপুরুষতা থেকে আশ্রয় চাই সর্বক্ষণ।

        Comment


        • #5
          আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ'লা সবচেয়ে ভালো জানেন।আমরা সবাই ধৈর্য ধারণ করে রাখি।
          “দ্বীনের জন্য রক্ত দিতে দৌড়ে বেড়ায় যারা,সালাহউদ্দিন আইয়ুবীর উত্তরসূরী তারা”–TBangla

          Comment


          • #6
            হে উম্মাহর মহীরুহ! আপনি আপনার জাতির বিজয় দেখে গিয়েছেন। আপনার কষ্টের ফল আপনি জীবদ্দশাতেই পেয়ে গিয়েছেন। হে উম্মাহর রাহবার! আমরা তো আপনার প্রতিদান দেওয়ার সামর্থ রাখি না। আপনাকে আল্লাহ তার শান অনুযায়ী পুরষ্কৃত করবেন। আপনি বেঁচে থাকলে আল্লাহ আপনার ছায়া আমাদের উপর দীর্ঘ করুক। আর আপনার শা*হা*দা*ত হয়ে গেলে আল্লাহ আপনার পূর্বেকার ভাইদের সাথে আপনাকে মিলিয়ে দিক। আমিন ইয়া রাব্বাল আলামিন। উহারা চাহুক দাসের জীবন, আমরা শহীদি দরজা চাই; নিত্য মৃত্যু-ভীত ওরা, মোরা মৃত্যু কোথায় খুঁজে বেড়াই!

            Comment


            • #7
              সে কখনোই চিন্তিত ও বিচলিত নয়, যার রব আল্লাহ। সে যেখানেই থাকুক তাঁর রব তাঁর রাহবার! আর আল্লাহর চেয়ে উত্তম অভিবাবক কে হতে পারে? নিঃসন্দেহে যে ব্যক্তি ঈমান এনেছে, হিজরত ও জিহাদ করেছে, সেই প্রকৃত সফলকাম। তাঁর জন্য মহান রব জান্নাতে একশত ভিআইপি স্তর প্রস্তুত করে রেখেছেন।

              দয়াময় রব! এই মহান বৃক্ষের ছায়া বৃদ্ধি করে দিন। তাঁর ফল ও ফুলে আমাদের উজ্জীবিত রাখুন। আমীন ইয়া রব্বাল আলামিন।

              Comment

              Working...
              X