Announcement

Collapse
No announcement yet.

উম্মাহ নিউজ#| ২৩ রজব, ১৪৪৫ হিজরী।। ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ ঈসায়ী

Collapse
This is a sticky topic.
X
X
 
  • Filter
  • Time
  • Show
Clear All
new posts

  • উম্মাহ নিউজ#| ২৩ রজব, ১৪৪৫ হিজরী।। ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ ঈসায়ী

    কাশ্মীরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর নাম দখলদার ভারতীয় বাহিনীর সদস্যদের নামানুসারে রাখার নির্দেশ



    ভারতের মূল ভূখণ্ড ছাড়িয়ে এবার নাম পরিবর্তনের ধারা শুরু হয়েছে মুসলিম ভূখণ্ড কাশ্মীরে। গত ৩০ জানুয়ারি কাশ্মীরের স্কুল-কলেজ ও সড়কসহ ৩৩ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম পরিবর্তন করে দখলদার ভারতীয় বাহিনীর সদস্য ও ভারতপন্থী ব্যক্তিত্বদের নামানুসারে রাখার নির্দেশ দিয়েছে হিন্দুত্ববাদী প্রশাসন।

    সেই অনুযায়ী, কাশ্মীরের কিস্তওয়ার জেলার গালিগড় উচ্চ বিদ্যালয়ের নামকরণ করা হয়েছে রাইফেলম্যান রবি কুমারের নামে; জম্মু জেলায় সুঙ্গালের গভর্নমেন্ট হাই স্কুল (লেহার), আখনুর এর নামকরণ করা হবে হেড কনস্টেবল রচনাপাল সিংয়ের নামে; উধমপুর জেলার সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, উরলিয়ান, হবে সুবেদার কৃষ্ণ সিংয়ের নামে এবং মানতলাইয়ের সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নামকরণ করা হয়েছে রাইফেলম্যান যশ পালের নামে।

    এছাড়া ‘ভারতপন্থী’ এসপিও তানভীর আহমেদের নামে সরগালী ক্রিকেট মাঠের নাম ‘শহীদ তানভীর আহমেদ মেমোরিয়াল ক্রিকেট গ্রাউন্ড’ নামে নামকরণ করা হয়েছে; জম্মু জেলায় সুঙ্গলের গভর্নমেন্ট হাই স্কুলের নামকরণ করা হয়েছে এল এন কে কৃষ্ণ সিংয়ের নামে; সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ধরম খু এর নামকরণ করা হয়েছে এন কে ধীয়ান সিং সালারিয়ার নামে; রাইফেলম্যান শাম সিং লাঙ্গেহ ও নায়েব সুবেদার প্রশস্তম কুমারের নামে যথাক্রমে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, ঘারোটা ও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, মাজুয়া উত্তামির নামকরণ করা হবে।

    আরো কিছু জায়গার নামকরণ করা হয়েছে –

    রামবন জেলার ‘শহীদ নসিব সিং ট্যাক্সি স্ট্যান্ড’ নামকরণ হয়েছে এসপিও নসীব সিংয়ের নামে; ‘শহীদ জাট্টু রাম চক’ নামকরণ হয়েছে এসপিও জাট্টু রাম মবের নামে; ‘শহীদ মুহাম্মাদ সেলিম চক’ নামকরণ হয়েছে ‘ভারতপন্থী’ এসপিও মুহাম্মাদ সেলিমের নামে; ‘শহীদ আনার সিং চক’ নামকরণ হয়েছে এসপিও আনার সিংয়ের নামে; ‘শহীদ আব্দুল মজিদ বাসস্ট্যান্ড’ নামকরণ হয়েছে ‘ভারতপন্থী’ কনস্টেবল আব্দুল মজিদের নামে এবং ‘শহীদ নসিব সিং প্লেগ্রাউন্ড’ নামকরণ হয়েছে কনস্টেবল নসিব সিংয়ের নামে।

    উপরোক্ত প্রতিষ্ঠান ও জায়গার নাম বাদেও আরও বেশকিছু প্রতিষ্ঠানের নাম হিন্দুত্ববাদী ব্যক্তিত্বদের নামানুসারে রাখার নির্দেশ দিয়েছে দখলদার প্রশাসন।

    উল্লেখ্য, প্রায় ৮০ বছর ধরে ভারতীয় বাহিনী কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘনসহ নানা যুদ্ধাপরাধ করে আসছে। আর এই নাম পরিবর্তনের নির্দেশ মূলত হিন্দুত্ববাদী প্রশাসনের কাশ্মীরি মুসলিমদের বিরুদ্ধে মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধেরই একটি অংশ হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে বলে মনে করা হয়।


    তথ্যসূত্র:
    ———–
    1. India renames educational institutions after members of Indian occupying forces
    http://tinyurl.com/y5z364js
    2. 33 schools, colleges, roads named after martyrs, eminent persons
    http://tinyurl.com/d64v7t8b



  • #2
    আল্লাহ্‌ তাআলা সমগ্র ভারত উপমহাদেশে এই দ্বীনের একচ্ছত্র বিজয় দিয়ে শিরক কুফরের নাম নিশানা মুছে দিন, আমীন

    Comment

    Working...
    X