Announcement

Collapse
No announcement yet.

উম্মাহ নিউজ#| ২৯ রজব, ১৪৪৫ হিজরী।। ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ ঈসায়ী

Collapse
This is a sticky topic.
X
X
 
  • Filter
  • Time
  • Show
Clear All
new posts

  • উম্মাহ নিউজ#| ২৯ রজব, ১৪৪৫ হিজরী।। ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ ঈসায়ী

    ঢাবির সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ



    এবারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন বিভাগটির একজন শিক্ষার্থী। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন ভুক্তভোগী।

    প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী অধ্যাপক নাদির জুনাইদের ব্যাপারে বলেন, ‘তিনি আমার শারীরিক অবয়ব সম্পর্কে নোংরা মন্তব্য করতেন এবং যৌন উত্তেজনা প্রকাশ করতেন। একই সাথে আমাকে উনার সাথে বাজে জিনিস কল্পনা করতে প্ররোচিত করতেন। বলতেন, ‘ধরে নাও তোমার সাথে বিয়ে হলে, তোমার সাথে এটা করলে ওটা করলে কেমন হতো’, ‘মনে করো, আমরা সি-বিচ গিয়েছি, সান- বার্থ’। এছাড়াও বিভিন্ন ডাবল মিনিং কথাবার্তা বলতেন এবং সারাক্ষণ সেক্সুয়াল কথোপকথনে প্ররোচিত করতেন। বিষয়টি সহ্যের সীমার বাইরে যেতে থাকলো। উনি বিভাগের সিসিটিভি ফুটেজ থেকে আমাকে নজরদারি করতেন।’

    তিনি আরও বলেন, ‘উনি আমার সাথে এমন কথাবার্তা বলতেন, এমন প্রশ্ন ছুড়ে দিতেন আমার প্রতি, যার বেশিরভাগ কথাই সাধারণত স্বামী স্ত্রীর মধ্যে হয়ে থাকে। উনি সাধারণত রাত ১০-১১টার মধ্যে কল দিতেন। কিন্তু যৌন ইংগিতপূর্ণ কথা শুরু করলে গভীর রাত পর্যন্ত কথা বলতে চাইতেন। তিনি বিভিন্ন সময় আমাকে বিয়ের পর তার সম্পত্তির উত্তরাধিকার ও আর্থিক স্বচ্ছলতা নিশ্চিতের কথাও বলেছেন। এই ধরনের কথাগুলো ছিল আমার জন্যে তীব্র যন্ত্রণার। আমি কত রাত ঘুমাতে পারিনি, কত দিন এই অস্বস্তি এবং মানসিক কষ্ট নিয়ে রাত দিন পার করেছি কেউ জানে না।’

    নিজের মানসিক অবস্থার কথা জানিয়ে ওই শিক্ষার্থী বলেন, ‘শিক্ষকের ব্যক্তিগত আক্রোশ কত ভয়ংকর হতে পারে। যেই ব্যক্তিগত আক্রোশের শিকার হতে পারি বলে আমি গত দেড় বছরের বেশি সময় ধরে নিজের উপর হওয়া যৌন হয়রানি মুখ বুজে সহ্য করেছি। আমি বিগত দেড় বছর প্রচণ্ড মানসিক যন্ত্রণার মধ্য দিয়ে গিয়েছি। কিন্তু এ যন্ত্রণার প্রকাশ আমি উনার সামনে করতে পারিনি। এক পর্যায়ে এ যন্ত্রণার পরিমাণ এতটাই বেড়ে যায় যে আমি রাতে ঘুমাতে পারতাম না। গত বছরের শুরুতে আমি কাউন্সিলিং-ও করি। ঘুমানোর জন্য ঘুমের ওষুধ খেতে হতো।’

    অভিযোগের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. মাকসুদুর রহমান দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, আমরা অভিযোগপত্রটি পেয়েছি। এটি ভিসি স্যারের কাছে পাঠানো হবে। তিনি পরবর্তী ব্যবস্থা নেবেন।

    এ বিষয়ে অধ্যাপক নাদির জুনাইদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম দ্য ডেইলি ক্যাম্পাস।

    তথ্যসূত্র:
    ১. ঢাবি অধ্যাপকের বিরুদ্ধে যৌন ইঙ্গিতপূর্ণ কথা ও গোপন ক্যামেরায় ছাত্রীকে নজরদারির অভিযোগ – http://tinyurl.com/y8wk5tdp


  • #2
    রাফাহ শহরে দখলদার ইসরায়েলি বিমান হামলায় অন্তত ১৩ জন নিহত



    গাজার দক্ষিণ সীমান্তের রাফাহ শহরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় নিহত হয়েছে অন্তত ১৩ জন। এর মধ্যে দুই নারী ও পাঁচ শিশু রয়েছে।
    সন্ত্রাসী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু হামাসের যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করা এবং রাফাহতে আক্রমণ সম্প্রসারণ করার কথা বলার কয়েক ঘন্টা পরে রাতারাতি বিমান হামলা চালায় সন্ত্রাসী ইসরায়েল। বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রয়ারি) এই হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরায়েলি সেনারা।

    অব্যাহত সামরিক অভিযানের মাধ্যমে ইসরায়েল গাজার ২৩ লাখ জনসংখ্যার অর্ধেকেরও বেশি মিশর সীমান্তের দিকে স্থানান্তর করেছে। ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড ত্যাগ করতে না পেরে অনেকে অস্থায়ী তাবু গেড়ে বা জাতিসংঘের শরণার্থী শিবিরগুলোতে আশ্রয় নিয়েছে।

    মিসরের সঙ্গে বেশিরভাগ সীমান্ত সিল করা শহর রাফাহ। সেখানে গাজা উপত্যকার অর্ধেকেরও বেশি বাসিন্দা আশ্রয় নিয়েছে। গাজায় মানবিক সহায়তা পৌঁছানোর প্রধান প্রবেশদ্বারও এটি। মিসর সতর্ক করে বলেছে, সেখানে যেকোনও ধরনের স্থল অভিযান বা সীমান্ত জুড়ে ব্যাপক বাস্তুচ্যুতি ইসরায়েলের সঙ্গে দেশটির ৪০ বছর পুরনো শান্তি চুক্তিকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

    গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, যুদ্ধে নিহত ফিলিস্তিনির সংখ্যা ২৭ হাজার ৮৪০ জন ছাড়িয়ে গেছে। এছাড়াও গাজার অধিবাসীদের প্রায় এক-চতুর্থাংশ মানুষ অনাহারে জীবনযাপন করছেন।

    তথ্যসূত্র:
    1. Israeli strikes kill 13 as concerns grow about looming operation in Rafah
    http://tinyurl.com/5b2xwnxn

    Comment


    • #3
      পুলিশে ভয় নাকি আস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় যা বলছে জনগণ



      `পুলিশ দেখে আগে মানুষ ভয় পেতো, এখন আস্থা রাখছে’ বলে মন্তব্য করেছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। গত ১ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ৪৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সুধী সমাবেশ ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সে এসব কথা বলে।

      স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামানের বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেছে প্রথম আলো। প্রথম আলোর সেই পোস্টের কমেন্টে পুলিশের ব্যাপারে বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা।

      একজন বলেছেন, “এখন পুলিশ দেখলে মানুষ ঘৃণা করে।” এখন পুলিশ মরলে মানুষ হাসাহাসি করে, খুশিতে আলহামদুলিল্লাহ পড়ে বলে মন্তব্য করেছেন আরও অনেকে।

      আরেকজন মন্তব্য করেন, “এখনো মানুষ পুলিশ দেখে ভয় পায়। ভাবে, এই বুঝি মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে ভরে রাখে নাকি।”

      উল্লেখ্য, সম্প্রতি পুলিশের নির্যাতনে বডিবিল্ডার ফারুক হোসেনের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় রাজধানীর বংশাল থানার ওসি মাইনুল ইসলামসহ ৫ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন নিহতের স্ত্রী।

      নিহত ফারুকের স্ত্রী অভিযোগ করে বলেন, কায়েতটুলি ফাঁড়ি থেকে স্বামীকে ছেড়ে দিতে প্রথমে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। পরে দেওয়া হয় কুপ্রস্তাব। এ কুপ্রস্তাব দেন বংশাল থানার এসআই ইমদাদুল হক ও মাসুদ রানা। ওরা (ইমদাদুল ও মাসুদ রানা) আমাকে বলছে— আমাদের দিকে একটু দেখেন, আমাদের খুশি করেন, আমরা আপনার স্বামীকে ছেড়ে দেবো। কিন্তু ফারুকের স্ত্রী তাদের কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ফারুককে নির্যাতন করে হত্যা করেছে পুলিশ।

      তথ্যসূত্র:
      ১. ‘২০ বছর আগে পুলিশ দেখে মানুষ ভয় পেত, এখন আস্থা রাখছেন’
      http://tinyurl.com/mvd6f5xc
      ২. ‘আমাদের খুশি করেন, আপনার স্বামীকে ছেড়ে দেব’ আসামির স্ত্রীকে পুলিশ
      http://tinyurl.com/bdd8b8j2


      Comment

      Working...
      X