Results 1 to 5 of 5
  1. #1
    Junior Member sifat's Avatar
    Join Date
    Aug 2017
    Posts
    38
    جزاك الله خيرا
    4
    45 Times جزاك الله خيرا in 18 Posts

    প্রশ্ন বিশ্ব জুড়ে আগামী ৪৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকতে পারে ইন্টারনেট পরিষেবা!

    আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বিশ্ব জুড়ে ইন্টারনেট পরিষেবা বিপর্যস্ত হবে। কি ডোমেন সার্ভারের রুটিন মেরামতের কারণে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের এই সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে বলে এক রিপোর্টে উল্লেখ করেছে রাশিয়া টুডে। ফলে ওই সময়ের মধ্যে ওয়েব পেজ খোলায় সমস্যা হবে, ব্যাহত হতে পারে ইন্টারনেটের সঙ্গে জড়িত সমস্ত রকম লেনদেনও। এমনকি ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধও হয়ে যেতে পারে বলে জানানো হয়েছে।
    রাশিয়া টুডে-র রিপোর্টে বলা হয়েছে, দি ইন্টারনেট কর্পোরেশন অব অ্যাসাইনড নেমস অ্যান্ড নাম্বারস (আইসিএএনএন) এই মেরামতির কাজ করবে। ইন্টারনেটের অ্যাড্রেস বুক বা ডোমেন নেম সিস্টেম(ডিএনএস)-কে সুরক্ষিত রাখার জন্য যে ক্রিপটোগ্রাফিক কি রয়েছে তা বদলানোর কাজ চলবে এই সময়ে।
    কেন এমন সিদ্ধান্ত?
    আইসিএএনএন জানিয়েছে, বিশ্ব জুড়ে যে ভাবে সাইবার হানা বাড়ছে, হ্যাকারদের কবল থেকে ইন্টারনেটকে সুরক্ষিত রাখতেই এই ক্রিপটোগ্রাফিক কি বদলানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

    কমিউনিকেশনস রেগুলেটরি অথরিটি(সিআরএ) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ডিএনএস-কে আরও সুরক্ষিত করতে এই সময়ের জন্য বিশ্ব জুড়ে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া জরুরি। সিআরএ আরও জানিয়েছে, নেটওয়ার্ক অপারেটরস বা ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার-রা (আইএসপি) যদি এই অবস্থার জন্য প্রস্তুতি না নেয় তা হলে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা সমস্যার মুখে পড়তে পারেন। তবে সিস্টেম সিকিউরিটি এক্সটেনশন-কে যদি যথাযথ ভাবে সক্রিয় রাখা যায়, তা হলে কিছুটা হলেও এর প্রভাব আটকানো সম্ভব হবে বলে জানিয়েছে সিআরএ। তবে বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, এ নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই। শাট ডাউন মানেই যে ইন্টারনেট পরিষেবা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে, এমনটা নয়।
    সংবাদ সংস্থা
    নয়াদিল্লি|
    ১২ অক্টোবর, ২০১৮, ১১:২৮:৫২
    শেষ আপডেট: ১২ অক্টোবর, ২০১৮, ১৪:৫২:২২

  2. The Following 6 Users Say جزاك الله خيرا to sifat For This Useful Post:


  3. #2
    Junior Member
    Join Date
    Oct 2017
    Posts
    11
    جزاك الله خيرا
    34
    22 Times جزاك الله خيرا in 8 Posts
    !!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

  4. The Following 3 Users Say جزاك الله خيرا to nomanhaedar For This Useful Post:

    জিহাদের পথে (10-12-2018),Muslim of Hind (10-13-2018),safetyfirst (10-13-2018)

  5. #3
    Member
    Join Date
    Jun 2018
    Posts
    39
    جزاك الله خيرا
    6
    71 Times جزاك الله خيرا in 30 Posts
    এভাবেই হয়তো একদিন শুনতে পাব ইন্টারনেট পরিসেবা চিরতরে খতম হয়েগেছে। আর এলাকা ভিত্তিক ইন্টারনেট বন্ধ করাতো এখন স্বাভাবিক ঘটনা। যেকোন ওজর পেলেই তাগুত নেটে হস্তক্ষেপ করে। কাজেই আমাদের এখনই সচেতন হওয়া দরকার। আমাদের স্বাভাবিক জীবনে ইনটারনেটের উপর নির্ভরতা কমিয়ে আনাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। আমাদের যে সমস্ত ভায়েরা তাগুতের এজেন্ট বিভিন্ন ব্যংকে টাকা জমা করছেন তাদের মনে রাখা উচিত ব্যংকে টাকা রাখা মানে তাগুতের পকেটেই টাকা রাখা। আজকে টুনকো অজুহাতে নেট বন্ধ করা হয়। আপনি চিন্তা করুন নেট যদি বন্ধ থাকে আপনিকি ব্যংক থেকে এখন টাকা উঠাতে পারবেন? অথবা তাগুত যদি জনগনের হাতের নোট বাতিলের ঘোষনা দেয় আপনি কোথায় যাবেন বলুন। কী ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে আসবে চিন্তা করুন। এর ছোট খাট একটা নযীর হলো মুদি সরকারের ভারতের এক হাজার টাকার নোট বাতিলের ঘটনা। এর ফলাফল কী হয়েছিল দেখুন। প্রায় একশত লোক আত্ম হত্যাই করেছে। কারন তাদের লক্ষ লক্ষ টাকা বাজেয়াপ্ত হয়েছে এর বিনিময়ে তারা কিছুই পায়নি। ব্যংক গুলোতে টাকা উত্তলনের হিড়িক পড়েগিয়েছিল। বুথ গুলোতে টাকা দেওয়ার পর মাত্র সাত আটজন টাকা উঠাতেই বুথ খালি হয়ে যেত। পিছনে লাইনে দাঁড়ানো শত শত মানুষ হতাশ হয়ে ঘরে ফিরে যেতে হয়েছে। এভাবে অনেকে আত্মহত্যা করেছে। এখন চিন্তা করুন আজকে সারা বিশ্বের অর্থনীতি নিয়ন্ত্রন করে দাজ্জালের এজেন্ট বিশ্বব্যংক। আর সারা দুনিয়ার সব ব্যংক বিশ্বব্যংকের সাথে জড়িত। কাজেই আমাদের এখন চোক কান খোলা রাখা দরকার। কাগজি নোটের পরিবর্তে এমন কিছু কিনে রাখুন যার মূল্য কখনো নিঃশেষ হবেনা। যেমন স্বর্ন রূপা অস্ত্র ইত্যাদী। তবে শুকনো খাবার অবশ্যই মজুদ রাখতে হবে। কারন ইমাম মাহদীর আভির্ভাবের পর মুসলিমদের বিজয়ের আগ পর্যন্ত যে সময়টা পার করতে হবে সেটা হবে এক ভয়ানক সময়। তখন টাকা থাকলেও খাবার মেলানো যাবেনা। কেও টাকা নিবেনা তখন। কারনতো বুঝতেই পারছেন টাকার কোন মূল্যই থাকবেনা। আর অন্য কোন মূল্যবান জিনিসের বিনিময়ে খাদ্য কিনতে চাইলেও কেও দিবেনা। কারন খাদ্যের সংকট হবে প্রকট। কাজেই সবাই নিজের প্রান বাঁচাতে খাবার হাতছাড়া করতে চাইবেনা।

    এগুলো আমার ফিকির থেকে বললাম। বাকি আল্লাহই ভাল জানেন। আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে যেন দাজ্জালের ভয়াবহ ফিতনাহ থেকে হিফাজত করেন আমীন!!

  6. The Following 6 Users Say جزاك الله خيرا to জিহাদের পথে For This Useful Post:


  7. #4
    Super Moderator
    Join Date
    Nov 2015
    Posts
    631
    جزاك الله خيرا
    2,516
    811 Times جزاك الله خيرا in 370 Posts
    মাশাআল্লাহ, ভাই খুবই সুন্দরভাবে বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে।
    আশা করি ফোরামে নিয়মিত থেকে এ রকম পজিটিভ কন্ট্রিবিউশন জারি রাখবেন।
    আল্লাহ আপনার ইলম ও আমলে বারাকাহ দান করুন।

    Quote Originally Posted by জিহাদের পথে View Post
    এভাবেই হয়তো একদিন শুনতে পাব ইন্টারনেট পরিসেবা চিরতরে খতম হয়েগেছে। আর এলাকা ভিত্তিক ইন্টারনেট বন্ধ করাতো এখন স্বাভাবিক ঘটনা। যেকোন ওজর পেলেই তাগুত নেটে হস্তক্ষেপ করে। কাজেই আমাদের এখনই সচেতন হওয়া দরকার। আমাদের স্বাভাবিক জীবনে ইনটারনেটের উপর নির্ভরতা কমিয়ে আনাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। আমাদের যে সমস্ত ভায়েরা তাগুতের এজেন্ট বিভিন্ন ব্যংকে টাকা জমা করছেন তাদের মনে রাখা উচিত ব্যংকে টাকা রাখা মানে তাগুতের পকেটেই টাকা রাখা। আজকে টুনকো অজুহাতে নেট বন্ধ করা হয়। আপনি চিন্তা করুন নেট যদি বন্ধ থাকে আপনিকি ব্যংক থেকে এখন টাকা উঠাতে পারবেন? অথবা তাগুত যদি জনগনের হাতের নোট বাতিলের ঘোষনা দেয় আপনি কোথায় যাবেন বলুন। কী ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে আসবে চিন্তা করুন। এর ছোট খাট একটা নযীর হলো মুদি সরকারের ভারতের এক হাজার টাকার নোট বাতিলের ঘটনা। এর ফলাফল কী হয়েছিল দেখুন। প্রায় একশত লোক আত্ম হত্যাই করেছে। কারন তাদের লক্ষ লক্ষ টাকা বাজেয়াপ্ত হয়েছে এর বিনিময়ে তারা কিছুই পায়নি। ব্যংক গুলোতে টাকা উত্তলনের হিড়িক পড়েগিয়েছিল। বুথ গুলোতে টাকা দেওয়ার পর মাত্র সাত আটজন টাকা উঠাতেই বুথ খালি হয়ে যেত। পিছনে লাইনে দাঁড়ানো শত শত মানুষ হতাশ হয়ে ঘরে ফিরে যেতে হয়েছে। এভাবে অনেকে আত্মহত্যা করেছে। এখন চিন্তা করুন আজকে সারা বিশ্বের অর্থনীতি নিয়ন্ত্রন করে দাজ্জালের এজেন্ট বিশ্বব্যংক। আর সারা দুনিয়ার সব ব্যংক বিশ্বব্যংকের সাথে জড়িত। কাজেই আমাদের এখন চোক কান খোলা রাখা দরকার। কাগজি নোটের পরিবর্তে এমন কিছু কিনে রাখুন যার মূল্য কখনো নিঃশেষ হবেনা। যেমন স্বর্ন রূপা অস্ত্র ইত্যাদী। তবে শুকনো খাবার অবশ্যই মজুদ রাখতে হবে। কারন ইমাম মাহদীর আভির্ভাবের পর মুসলিমদের বিজয়ের আগ পর্যন্ত যে সময়টা পার করতে হবে সেটা হবে এক ভয়ানক সময়। তখন টাকা থাকলেও খাবার মেলানো যাবেনা। কেও টাকা নিবেনা তখন। কারনতো বুঝতেই পারছেন টাকার কোন মূল্যই থাকবেনা। আর অন্য কোন মূল্যবান জিনিসের বিনিময়ে খাদ্য কিনতে চাইলেও কেও দিবেনা। কারন খাদ্যের সংকট হবে প্রকট। কাজেই সবাই নিজের প্রান বাঁচাতে খাবার হাতছাড়া করতে চাইবেনা।

    এগুলো আমার ফিকির থেকে বললাম। বাকি আল্লাহই ভাল জানেন। আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে যেন দাজ্জালের ভয়াবহ ফিতনাহ থেকে হিফাজত করেন আমীন!!
    কথা ও কাজের পূর্বে ইলম

  8. The Following 4 Users Say جزاك الله خيرا to Taalibul ilm For This Useful Post:


  9. #5
    Senior Member তানভির হাসান's Avatar
    Join Date
    Jul 2018
    Location
    হিন্দুস্থানী
    Posts
    302
    جزاك الله خيرا
    1,170
    643 Times جزاك الله خيرا in 254 Posts
    Quote Originally Posted by জিহাদের পথে View Post
    এভাবেই হয়তো একদিন শুনতে পাব ইন্টারনেট পরিসেবা চিরতরে খতম হয়েগেছে। আর এলাকা ভিত্তিক ইন্টারনেট বন্ধ করাতো এখন স্বাভাবিক ঘটনা। যেকোন ওজর পেলেই তাগুত নেটে হস্তক্ষেপ করে। কাজেই আমাদের এখনই সচেতন হওয়া দরকার। আমাদের স্বাভাবিক জীবনে ইনটারনেটের উপর নির্ভরতা কমিয়ে আনাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। আমাদের যে সমস্ত ভায়েরা তাগুতের এজেন্ট বিভিন্ন ব্যংকে টাকা জমা করছেন তাদের মনে রাখা উচিত ব্যংকে টাকা রাখা মানে তাগুতের পকেটেই টাকা রাখা। আজকে টুনকো অজুহাতে নেট বন্ধ করা হয়। আপনি চিন্তা করুন নেট যদি বন্ধ থাকে আপনিকি ব্যংক থেকে এখন টাকা উঠাতে পারবেন? অথবা তাগুত যদি জনগনের হাতের নোট বাতিলের ঘোষনা দেয় আপনি কোথায় যাবেন বলুন। কী ভয়াবহ বিপর্যয় নেমে আসবে চিন্তা করুন। এর ছোট খাট একটা নযীর হলো মুদি সরকারের ভারতের এক হাজার টাকার নোট বাতিলের ঘটনা। এর ফলাফল কী হয়েছিল দেখুন। প্রায় একশত লোক আত্ম হত্যাই করেছে। কারন তাদের লক্ষ লক্ষ টাকা বাজেয়াপ্ত হয়েছে এর বিনিময়ে তারা কিছুই পায়নি। ব্যংক গুলোতে টাকা উত্তলনের হিড়িক পড়েগিয়েছিল। বুথ গুলোতে টাকা দেওয়ার পর মাত্র সাত আটজন টাকা উঠাতেই বুথ খালি হয়ে যেত। পিছনে লাইনে দাঁড়ানো শত শত মানুষ হতাশ হয়ে ঘরে ফিরে যেতে হয়েছে। এভাবে অনেকে আত্মহত্যা করেছে। এখন চিন্তা করুন আজকে সারা বিশ্বের অর্থনীতি নিয়ন্ত্রন করে দাজ্জালের এজেন্ট বিশ্বব্যংক। আর সারা দুনিয়ার সব ব্যংক বিশ্বব্যংকের সাথে জড়িত। কাজেই আমাদের এখন চোক কান খোলা রাখা দরকার। কাগজি নোটের পরিবর্তে এমন কিছু কিনে রাখুন যার মূল্য কখনো নিঃশেষ হবেনা। যেমন স্বর্ন রূপা অস্ত্র ইত্যাদী। তবে শুকনো খাবার অবশ্যই মজুদ রাখতে হবে। কারন ইমাম মাহদীর আভির্ভাবের পর মুসলিমদের বিজয়ের আগ পর্যন্ত যে সময়টা পার করতে হবে সেটা হবে এক ভয়ানক সময়। তখন টাকা থাকলেও খাবার মেলানো যাবেনা। কেও টাকা নিবেনা তখন। কারনতো বুঝতেই পারছেন টাকার কোন মূল্যই থাকবেনা। আর অন্য কোন মূল্যবান জিনিসের বিনিময়ে খাদ্য কিনতে চাইলেও কেও দিবেনা। কারন খাদ্যের সংকট হবে প্রকট। কাজেই সবাই নিজের প্রান বাঁচাতে খাবার হাতছাড়া করতে চাইবেনা।

    এগুলো আমার ফিকির থেকে বললাম। বাকি আল্লাহই ভাল জানেন। আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে যেন দাজ্জালের ভয়াবহ ফিতনাহ থেকে হিফাজত করেন আমীন!!
    জাঝাকাল্লাহ আখি, খুব গুরুত্তপুর্ন কিছু কথা উল্লেখ করেছেন, আল্লহ পাক আপনাকে হিফাযত করুন আমিন।

  10. The Following User Says جزاك الله خيرا to তানভির হাসান For This Useful Post:

    safetyfirst (10-14-2018)

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •