Page 1 of 2 12 LastLast
Results 1 to 10 of 13
  1. #1
    Senior Member
    Join Date
    Sep 2018
    Location
    Hindostan
    Posts
    1,115
    جزاك الله خيرا
    4,817
    2,696 Times جزاك الله خيرا in 945 Posts

    তিন অবস্থায় জিহাদ ফরজে আইন হয়।

    বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম।
    ইবনে কুদামা রহ বলেন তিন ক্ষেত্রে জিহাদ ফরজে আইন হয়।
    ১/ যখন উভয় দল যুদ্ধে উপস্থিত হয়ে পরষ্পর মুখামুখি হয়।
    এজিহাদে যে উপস্থিত হয় তার জন্য ফিরে আসা হারাম।
    দলিলঃ( সূরা আনফালের ৪৫-৪৬ আয়াত)
    ২/ যখন কাফেররা কোনো মুসলিম ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশ করে তখন তার অধিবাসীদের উপর জিহাদ ফরজে আইন হয়ে যায়।
    দলিলঃ( সূরা আনফালের ৪৫-৪৬ আয়াত)
    ৩/ যখন মুসলমানদের ইমাম কোনো সম্প্রদায়কে জিহাদে বের হওয়ার আহবান করেন তখন তাদের উপর বের হওয়া আবশ্যক হয়ে যায়।
    দলিলঃ( সূরা তাওবা ৩৮আয়াত)

  2. The Following 6 Users Say جزاك الله خيرا to Bara ibn Malik For This Useful Post:

    হেলাল (10-29-2018),ALQALAM (11-04-2018),asadhasan (10-25-2018),bokhtiar (10-25-2018),Muslim of Hind (10-25-2018),safetyfirst (10-26-2018)

  3. #2
    Senior Member asadhasan's Avatar
    Join Date
    Aug 2017
    Location
    হিন্দুলস্থানের &
    Posts
    182
    جزاك الله خيرا
    119
    398 Times جزاك الله خيرا in 144 Posts
    মাশাল্লাহ ভাই কিছু ভাইয়ের সংশয় দুর হয়ে যাবে
    যদি রাসুলকে কটুক্তি করা হয়, ওদের বাক সাধিনতার অংশ
    তাহলে ওদেরকে ধারালো চাপাতির আঘাতে হত্যা করা আমাদের
    দিনের অংশ। (আনওয়কর আল-আওরাকি রহি

  4. The Following 5 Users Say جزاك الله خيرا to asadhasan For This Useful Post:

    ALQALAM (11-04-2018),Bara ibn Malik (11-05-2018),bokhtiar (10-25-2018),Muslim of Hind (10-25-2018),safetyfirst (10-26-2018)

  5. #3
    Senior Member
    Join Date
    Oct 2016
    Location
    asia
    Posts
    1,229
    جزاك الله خيرا
    3,384
    2,120 Times جزاك الله خيرا in 1,001 Posts
    জাযাকাল্লাহ আখি, গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট। যারা বুঝে না বা বুঝার ইচ্ছে আছে কিন্তু ফোরামে প্রশ্ন তার সীমা শেষ করতে পারছেন না, আমি সেই সব ভাইদের বলব আপনারা ( শাইখ আঃকাদির বিন আঃ আজিজ রহ এর লিখা মায়ালিমুল আসাসিয়্যা বইটি পড়ুন, বাংলা আছে ইসলামে'র মৌলিক নীতিমালা নামে)

  6. The Following 5 Users Say جزاك الله خيرا to bokhtiar For This Useful Post:

    ALQALAM (11-04-2018),Bara ibn Malik (11-05-2018),Muslim of Hind (10-25-2018),safetyfirst (10-26-2018),shamin (10-25-2018)

  7. #4
    Senior Member
    Join Date
    May 2018
    Posts
    360
    جزاك الله خيرا
    943
    551 Times جزاك الله خيرا in 232 Posts
    মাসাআল্লাহ, খুবই জরুরী বিষয়ে পোষ্ট দিয়েছেন। জাঝাকাল্লাহ

  8. The Following 3 Users Say جزاك الله خيرا to shamin For This Useful Post:

    ALQALAM (11-04-2018),Bara ibn Malik (11-05-2018),safetyfirst (10-26-2018)

  9. #5
    Senior Member
    Join Date
    Oct 2018
    Posts
    846
    جزاك الله خيرا
    4,521
    1,281 Times جزاك الله خيرا in 570 Posts
    মাশাআল্লাহ।
    খুবই জরুরি বিষয় পোষ্ট করেছেন।
    আল্লাহ আপনাকে কবুল করুন,আমিন।

  10. The Following 3 Users Say جزاك الله خيرا to হেলাল For This Useful Post:

    ALQALAM (11-04-2018),Bara ibn Malik (11-05-2018),safetyfirst (11-05-2018)

  11. #6
    Senior Member
    Join Date
    Jul 2017
    Posts
    213
    جزاك الله خيرا
    1,038
    260 Times جزاك الله خيرا in 123 Posts
    জাযাকাল্লহু খইরন আহসানাল জাযা...............!!
    .
    .
    তবে ভাই! মনে হয় আরো আছে যেমনঃ কোনো মুসলিম কে যদি কুফ্ফাররা বন্ধি করে৷

  12. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to ALQALAM For This Useful Post:

    Bara ibn Malik (11-05-2018),safetyfirst (11-05-2018)

  13. #7
    Senior Member
    Join Date
    Sep 2018
    Location
    Hindostan
    Posts
    1,115
    جزاك الله خيرا
    4,817
    2,696 Times جزاك الله خيرا in 945 Posts
    ভাই, এটি তিন প্রকারের ভেতরেই আছে। ইমাম যখন কোনো কওমকে জিহাদে বের হতে বলে।
    আমরা সবাই তালিবান বাংলা হবে আফগান,ইনশাআল্লাহ।

  14. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to Bara ibn Malik For This Useful Post:

    ALQALAM (11-05-2018),safetyfirst (11-05-2018)

  15. #8
    Senior Member
    Join Date
    Jul 2017
    Posts
    213
    جزاك الله خيرا
    1,038
    260 Times جزاك الله خيرا in 123 Posts
    ওকে.... ভাই.... জাযাকাল্লাহ .....!!!! আগে... জানতাম.. এইটা... স্বতন্ত্র এক.. কারন যার কারনে... সকল মুসলিমের উপর.. জিহাদ ফরজে আইন... হয়ে যায়.....!!
    Quote Originally Posted by Mujahid of Hind View Post
    ভাই, এটি তিন প্রকারের ভেতরেই আছে। ইমাম যখন কোনো কওমকে জিহাদে বের হতে বলে।

  16. The Following User Says جزاك الله خيرا to ALQALAM For This Useful Post:

    safetyfirst (11-05-2018)

  17. #9
    Senior Member
    Join Date
    Aug 2018
    Location
    hindostan
    Posts
    967
    جزاك الله خيرا
    4,482
    2,216 Times جزاك الله خيرا in 820 Posts
    প্রতিটি কাফের রাষ্ট্রেই আমাদের ভাইয়েরা এখন বন্ধি আছে!!!এর পরেও কিছু দালাল আলিম বলে বেড়ায় আমাদের উপর নাকি জিহাদ ফরজ নয়।
    নিশ্চয়ই আল্লাহর কাছে ঐ ব্যক্তিই বেশী সম্মানিত যার তাক্বওয়া বেশী।
    (হুজরাত)

  18. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to safetyfirst For This Useful Post:

    ALQALAM (11-06-2018),Bara ibn Malik (11-05-2018)

  19. #10
    Senior Member
    Join Date
    May 2017
    Posts
    316
    جزاك الله خيرا
    88
    893 Times جزاك الله خيرا in 236 Posts
    Quote Originally Posted by Mujahid of Hind View Post
    ভাই, এটি তিন প্রকারের ভেতরেই আছে। ইমাম যখন কোনো কওমকে জিহাদে বের হতে বলে।
    আসলে কোন মুসলিম বন্দী হওয়া জিহাদ ফযরয হওয়ার একটা স্বতন্ত্র কারণ। কোন মুসলিম বন্দী হলে সারা দুনিয়ার সকল সক্ষম মুসলমানের উপর একসাথে জিহাদ ফরযে আইন হয়ে যায়। সাধারণত কোন এলাকায় আক্রমণ হলে প্রথমে সে এলাকার লোকজনের উপর জিহাদ ফরয হয়। তারা না পারলে বা না করলে অন্যদের *উপর বর্তায়। কিন্তু কোন মুসলিম বন্দী হলে মাসআলা ভিন্ন। তখন সারা দুনিয়ার সকল মুসলমানের উপর এক সাথে জিহাদ ফরযে আইন হয়ে যায়।

    ফুকাহায়ে কেরাম লিখেছেন, কোন স্বাধীন মুসলমান কাফেরদের হাতে গ্রেফতার হলে সাথে সাথে তাকে উদ্ধারের জন্য জিহাদে বের হওয়া ফরযে আইন। যদি কাফেররা তাকে দারুল ইসলাম থেকে বের করে দারুল কুফরে নিয়ে যায়, তাহলেও তাদের পশ্চাতে ধাওয়া করা ফরয। হ্যাঁ, একেবারে যদি তাদের ঘাঁটিতে ঢুকিয়ে ফেলে তাহলে এই মূহুর্তে আর হামলা করা ফরয থাকে না। কারণ, ঘাঁটিতে ঢুকিয়ে ফেললে সাধারণত উদ্ধার করা সম্ভব হয় না। তবে এমতাবস্থায়ও হামলা করা মুস্তাহাব। একান্তু যদি উদ্ধার করা সম্ভব না-ই হয়, কিংবা ঘাঁটিতে ঢুকিয়ে ফেলার পর হামলা না করে, তাহলে আপাতত এই মূহুর্তে হামলা করা ফরয নয়। তবে একজন বন্দী মুসলমানকে মুক্ত করার যে ফরয, সেটা থেকেই যাবে। পরবর্তীতে শক্তি সঞ্চয় করে হামলা করে উদ্ধার করতে হবে। কিংবা টাকা পয়সা বা অন্য কোনভাবে তাদের মুক্ত করতে হবে। ওয়াল্লাহু তাআলা আ’লাম।

  20. The Following 3 Users Say جزاك الله خيرا to ইলম ও জিহাদ For This Useful Post:

    ALQALAM (11-06-2018),Bara ibn Malik (11-05-2018),Talhah Bin Ubaidullah (11-05-2018)

Similar Threads

  1. Replies: 19
    Last Post: 05-12-2018, 12:56 AM
  2. Replies: 3
    Last Post: 07-28-2017, 10:38 PM
  3. Replies: 2
    Last Post: 05-27-2017, 12:47 PM
  4. Replies: 1
    Last Post: 03-24-2017, 06:49 AM
  5. Replies: 2
    Last Post: 09-01-2016, 03:26 PM

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •