Page 2 of 2 FirstFirst 12
Results 11 to 17 of 17
  1. #11
    Senior Member
    Join Date
    Apr 2017
    Posts
    102
    جزاك الله خيرا
    79
    143 Times جزاك الله خيرا in 69 Posts
    আজকে সে মা বুঝে সন্তান হারানোর বেদনা যার সন্তান হারিয়েছে।যাদের স্বজন হারাচ্ছে তারা স্বজন হারানোর ব্যথা অনুভুব করছে।কিন্তু আমি কেমন মুসলিম জাতির এ হালাত দেখেও আমার মনে প্রতিশোধের আগুণ জলে উঠেনা। আমার মুখ দিয়ে বের হয় আমার উপর তো আক্রমন হচ্ছেনা। আমি তো শান্তিতে আছি। আমরা শান্তি চাই যুদ্ধ চাইনা । কাফের হত্যা জায়েজ নাই। ইন্ডিয়ার সাথে আমাদের চুক্তি যুদ্ধ করা যাবেনা।
    শুনে রাখো!জাতির এ অবস্থা দেখেও যাদের মুখ দিয়ে এ ধরনের কথা বের হয় রাসুল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ভাষায় তারা কেমন মুসলিম ?المسلمون كجسد واحد ان اشتكي راسه اشتكي كله মুসলিমরা হচ্ছে এক দেহের ন্যায় দেহের মাথা ব্যথা করলে পুরো দেহ সে ব্যথা অনুভব করে।(তেমনিভাবে একজন মুসলিমের ব্যথায় সকল মুসলিম ব্যথিত হবে) ।
    তাহলে মুসলিমদের ব্যথায় তোমার কেন ব্যথা অনুভব হয়না যদি তুমি সত্যিকারের মুসলিম হও।তুমি হচ্ছো মুসলিম দেহ থেকে কর্তিত মৃত অংগ।
    আল্লাহ এ জাতিকে বুঝ দান করুন। আমিন
    হে আমাদের রব! আমাদের শক্তি সামর্থ্য বৃদ্ধি করে দাও। আমাদেরকে এমন শক্তি অর্জনের তৌফিক দাও যেন কুফফাররা আমাদের ভয়ে সদা ভীত-সন্ত্রস্ত থাকে।আমাদের অন্তর থেকে কুফফারদের ভীতি দূর করে দাও। আমাদেরকে বিজইয় দান করো।আমিন।

  2. The Following User Says جزاك الله خيرا to karimul islam For This Useful Post:

    Bara ibn Malik (10-28-2018)

  3. #12
    Senior Member কালো পতাকা's Avatar
    Join Date
    Apr 2017
    Posts
    1,457
    جزاك الله خيرا
    0
    2,263 Times جزاك الله خيرا in 986 Posts
    Quote Originally Posted by karimul islam View Post
    আজকে সে মা বুঝে সন্তান হারানোর বেদনা যার সন্তান হারিয়েছে।যাদের স্বজন হারাচ্ছে তারা স্বজন হারানোর ব্যথা অনুভুব করছে।কিন্তু আমি কেমন মুসলিম জাতির এ হালাত দেখেও আমার মনে প্রতিশোধের আগুণ জলে উঠেনা। আমার মুখ দিয়ে বের হয় আমার উপর তো আক্রমন হচ্ছেনা। আমি তো শান্তিতে আছি। আমরা শান্তি চাই যুদ্ধ চাইনা । কাফের হত্যা জায়েজ নাই। ইন্ডিয়ার সাথে আমাদের চুক্তি যুদ্ধ করা যাবেনা।
    শুনে রাখো!জাতির এ অবস্থা দেখেও যাদের মুখ দিয়ে এ ধরনের কথা বের হয় রাসুল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ভাষায় তারা কেমন মুসলিম ?المسلمون كجسد واحد ان اشتكي راسه اشتكي كله মুসলিমরা হচ্ছে এক দেহের ন্যায় দেহের মাথা ব্যথা করলে পুরো দেহ সে ব্যথা অনুভব করে।(তেমনিভাবে একজন মুসলিমের ব্যথায় সকল মুসলিম ব্যথিত হবে) ।
    তাহলে মুসলিমদের ব্যথায় তোমার কেন ব্যথা অনুভব হয়না যদি তুমি সত্যিকারের মুসলিম হও।তুমি হচ্ছো মুসলিম দেহ থেকে কর্তিত মৃত অংগ।
    আল্লাহ এ জাতিকে বুঝ দান করুন। আমিন
    হে আমাদের রব! আমাদের শক্তি সামর্থ্য বৃদ্ধি করে দাও। আমাদেরকে এমন শক্তি অর্জনের তৌফিক দাও যেন কুফফাররা আমাদের ভয়ে সদা ভীত-সন্ত্রস্ত থাকে।আমাদের অন্তর থেকে কুফফারদের ভীতি দূর করে দাও। আমাদেরকে বিজইয় দান করো।আমিন।
    জাযাকাল্লাহ ভাই গুরুত্বপূর্ণ কিছু দিক তুলে ধরলেন আল্লাহ তায়ালা এই মুসলিম উম্মাহ জাগিয়ে দিন আমিন
    ( গাজওয়া হিন্দের ট্রেনিং) https://dawahilallah.com/showthread.php?9883

  4. The Following User Says جزاك الله خيرا to কালো পতাকা For This Useful Post:

    Bara ibn Malik (10-28-2018)

  5. #13
    Senior Member কালো পতাকা's Avatar
    Join Date
    Apr 2017
    Posts
    1,457
    جزاك الله خيرا
    0
    2,263 Times جزاك الله خيرا in 986 Posts
    কেরানীগঞ্জে পুলিশের গুলিতে আন্দোলনরত এক শ্রমিক নিহত, গুলিবিদ্ধ ১০


    ঢাকার কেরানীগঞ্জে বাংলাদেশ–চীন মৈত্রী প্রথম বুড়িগঙ্গা সেতু টোলমুক্ত করার দাবিতে আন্দোলনরত ট্রাকচালক-শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন ১০ জন। গতকাল শুক্রবার সকাল সোয়া ১০ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
    নিহত শ্রমিকের নাম মো. সোহেল (২৮)। শ্রমিকদের দাবি, পুলিশের গুলিতে তিনি হয়েছেন। পুলিশ দাবি করেছে, শ্রমিকেরা পুলিশের ওপর হামলা চালালে তারা ফাঁকা গুলি ছোড়ে। গুলিবিদ্ধদের মধ্যে আকাশ (২২) ও মাসুদ (৩০) নামের দুজন শ্রমিককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহত সোহেলের লাশ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।
    বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে টোলমুক্ত করার দাবি জানিয়ে আন্দোলনে নামে ট্রাক চালক ও শ্রমিকেরা। তাঁরা জানান, আগে ৩৫ টাকা করে টোল দিতে হতো, নতুন ইজারাদার সেটা বাড়িয়ে ২৪০ টাকা করেছে।
    শুক্রবার সকাল সাতটার দিকে সেতুর দক্ষিণ প্রান্তে কেরানীগঞ্জের ইকুরিয়া এলাকায় অবস্থান নেন ট্রাক চালক-শ্রমিকেরা। তাঁরা ট্রাক দিয়ে সেতুর মুখে বাধা সৃষ্টি করেন। সকাল নয়টার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ এসে শ্রমিকদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে পক্ষের মধ্যে ধাওয়া–পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ প্রায় ৫০টি ফাঁকা গুলি ও কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে।

    ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এক ট্রাক চালকের সহকারী শাওন প্রথম আলোকে বলেন, পুলিশের গুলিতে সোহেল ঘটনাস্থলেই মারা যান।

    সোহেলের শ্যালক তানজিল প্রথম আলোকে বলেন, সকালে তাঁর দুলাভাই বাসা থেকে নাশতা খেয়ে আন্দোলনে যোগ দেন। পুলিশের গুলিতে তাঁর দুলাভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে।

    আন্দোলনকারী ট্রাক চালক মিজানুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, মাস খানিক আগেও ৩৫ টাকা করে টোল দিয়েছেন তাঁরা। নতুন ইজারাদার এসে ২৪০ টাকা টোল অন্যায়ভাবে আদায় করছে। তিনি বলেন, শুধু ট্রাক নয়, সব ধরনের যানবাহন মালিক শ্রমিকদের স্বার্থে এ আন্দোলন করছেন তাঁরা।
    অন্য দিকে, সরকারি নিয়ম মেনেই টোল আদায় করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে ইজারাদার এ আলম এন্টারপ্রাইজের পরিচালক মো. আলম। প্রথম আলোকে তিনি বলে, ‘আমরা টোল বৃদ্ধি করিনি। সরকারি নিয়মে টোল বাড়ানো হয়েছে, আমরা সে অনুযায়ী আদায় করছি’।
    এসংবাদ প্রকাশিত হলে জনগণের মাঝে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ পেয়েছে। এ সংবাদে মন্তব্যকারীদের কিছু মতামত তুলে ধরা হল:
    Md.Ali Haider
    ১৫/১৬ জন মিলে শাহবাগের মত গুরুত্বপূর্ন সড়ক ২/৩ দিন ধরে অবরোধ করে রাখলেও পুলিশের কোনো একশন দেখা যায় না! অথচ রুটি রুজির দাবিতে শান্তি পূর্ণ সেতু অবরোধের জন্য গুলিবর্ষণ কেন? মানুষের জীবনের কি কোনো দাম নেই?
    Md.Ali Haider
    ভারতীয় যানবাহন বাংলাদেশের সড়কে চলতে টোল লাগবে না,তাদের থেকে টোল চাওয়া অসভ্যতা!! আর বাংলাদেশের যানবাহনকে হরেক রকম রোড ট্যাক্স দেয়ার পরও আবার ৩০/৪০ বছরের পুরোনো সেতু পার হতে টোল দিতে হবে? এটা মুক্তিযুদ্ধের কোন চেতনা!!
    Masud Parvez
    ফাঁকা গুলিতেই একটা মানুষ মারা গেল? মৃত্যু এত সহজ। ক্ষমতার লোভে অন্ধ হয়ে গেছে একটা শ্রেণী। মানুষের মৃত্যুতেও তাই তারা নির্বিকার।
    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক
    গুলি ফাকায় ছুড়েছে নাকি ফাকা গুলি ছুড়েছে? ফাকা গুলিতে মানুষ মরে কি করে? আর কতকাল টোল নিতে হবে? আসলে আমাদের কেউ নাই? সবাই লুটে পুটে খাচ্ছে। ইজারা কেন, সরকার নিজেই টোল উঠাক। নাকি মধ্যসত্বভোগী রাখতেই হবে।
    Abdullah Al Zubaer
    @ মো: রফিকুল ইসলাম সেদিন আর বেশি দূরে নেই, যেদিন একই গুলি তোমার মতো দলকানা উল্লুকের বুকে লাগবে। মজার ব্যাপার হলো, সেদিন প্রতিবাদ করার মতো কেউ অবশিষ্ট থাকবে না। চলমান অন্যায়কে যারা অতীতের অন্যায় দিয়ে বৈধ করে নেওয়ার চেষ্টা চালায়, বাস্তবে তারা অন্যায়কারী এবং সমর্থনকারী।
    ( গাজওয়া হিন্দের ট্রেনিং) https://dawahilallah.com/showthread.php?9883

  6. The Following User Says جزاك الله خيرا to কালো পতাকা For This Useful Post:

    Bara ibn Malik (10-28-2018)

  7. #14
    Senior Member
    Join Date
    Sep 2018
    Location
    হিন্দুস্তান
    Posts
    591
    جزاك الله خيرا
    2,643
    1,244 Times جزاك الله خيرا in 476 Posts
    আমরা ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে মসজিদ মাদ্রাসায় বসে গেছে। আর তারা আমাদের যা ইচ্ছা করে যাচ্ছে।

  8. #15
    Senior Member
    Join Date
    Sep 2018
    Posts
    158
    جزاك الله خيرا
    875
    383 Times جزاك الله خيرا in 142 Posts
    জাযাকাল্লাহু খাইরান। কালো পতাকা ভাই, গাজওয়ায়ে হিন্দ এর ট্রেনিং লিংকটি একটু ফোকাস হয় মতো দিলে ভালো হয়। এই লিংকটা এমন জায়গায় দেয়া হয়েছে যার কারণে অবহেলার মাত্রা আরো বেড়ে যাচ্ছে। ভাই একটু খেয়াল করলে ভালো হয়।

  9. The Following User Says جزاك الله خيرا to হিন্দের আবাবিল For This Useful Post:

    Bara ibn Malik (10-28-2018)

  10. #16
    Senior Member
    Join Date
    Oct 2015
    Posts
    485
    جزاك الله خيرا
    0
    500 Times جزاك الله خيرا in 238 Posts
    আহ! মুসলিমদের কি অসহায়ত্ব ও অবমাননাকর অবস্থা!! হে আল্লাহ তুমি তাদের থেকে প্রতিশোধ নেওয়ার তাওফীক দান কর!

  11. The Following User Says جزاك الله خيرا to salahuddin aiubi For This Useful Post:

    Bara ibn Malik (10-28-2018)

  12. #17
    Senior Member কালো পতাকা's Avatar
    Join Date
    Apr 2017
    Posts
    1,457
    جزاك الله خيرا
    0
    2,263 Times جزاك الله خيرا in 986 Posts
    Quote Originally Posted by কালো পতাকা View Post




    ২৫শে অক্টোবর নয়া দিল্লীর মালবীয় নগরের বেগমপুরে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কুর্শির ঠিক নীচে মাদ্রাসা জামিয়া ফরিদিয়া-এর একজন ৮ (আট) বছরের তালিব-এ-ইলম মোহাম্মদ আজীম ওরফে মুহম্মদ খলিলকে কট্টরপন্থী হিন্দুত্ববাদীরা পিটিয়ে হত্যা করেছে। বাচ্চাটি তখন মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে খেলাধূলা করছিলো। প্রাপ্ত সংবাদ অনুযায়ী জুম্মার আগের দিন মাদ্রাসা ছুটি থাকে। মাদ্রাসার কিছু বাচ্চা বাহিরে গিয়েছিল আর কিছু বাচ্চা মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে খেলাধূলা করছিলো। তখন দুপুর 2:00 টা হবে, পাশ্ববর্তী বাল্মিকী নগরের কিছু বাচ্চা এসে মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে খেলতে থাকা বাচ্চাদের উপরে ঢিল ছুঁড়ে। তারপর এক যুবক আসে আর মোহম্মদ আজীমকে তুলে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা বাইকে আছাড় দিতে থাকে। বেশ কয়েকবার আছাড় দেওয়ার পরে ৮ বছরের ঐ মাদ্রাসাছাত্র অজ্ঞান হয়ে যায়, তার কথাবার্তা বন্ধ হয়ে যায় .।

    এরপর, মাদ্রাসার ছোট ছোট ছাত্ররা ভয়ে দৌড়ে গিয়ে মাদ্রাসা প্রধানের কাছে উপস্থিত হয় আর ঘটনার কথা বলে। তারপর মোহম্মদ আজীমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, কিন্তু ভর্তির পূর্বেই ডাক্তারেরা বলে দেন এই বাচ্চা পূর্বেই মারা গিয়েছে।



    মাদ্রাসার এক ছাত্রের বক্তব্য অনুযায়ী এটি প্রথম ঘটনা নয়। সেইখানকার বাচ্চারা মাদ্রাসার বাচ্চাদের উপরে প্রায়ই এরকম করে, কিন্তু হত্যা করে দেওয়ার ঘটনা এই প্রথমবার ঘটলো। মাদ্রাসার বাচ্চাদের বক্তব্য অনুযায়ী- হিন্দুত্ববাদীরা মদ খেয়ে মদের বোতল মাদ্রাসার ভিতরে ছুঁড়ে দেয়, জুম্মার সময়ে পটকা ফাটায়, এমনকি শূকরের মাংস পর্যন্ত মাদ্রাসার ভিতরে ছুঁড়ে দেয়। পুলিশকে এই বিষয়ে বারবার অবহিত করা হলেও কোন ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগ মাদ্রাসা ছাত্রদের।


    রাজনীতি নয়, আমি আমার ছেলের জন্য ন্যায়বিচার চাই- আজীমের বাবা
    ত ২৫শে অক্টোবর বৃহস্পতিবার ভারতের নয়া দিল্লীর মালবীয় নগরের বেগমপুরে মাদ্রাসা জামিয়া ফরিদিয়া-এর ০৮ বছরের একজন তালিব-এ-ইলম মোহাম্মদ আজীম কে কট্টরপন্থী হিন্দুত্ববাদীরা পিটিয়ে হত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার আজীমের পরিবার এই নির্মম ঘটনার দ্রুত ন্যায়বিচার আশা করছেন।
    ক্যারাভান ডেইলি নিউজ বার্তা সংস্থার বরাতে জানা যায়, হরিয়ানা প্রদেশের মিওয়াত গ্রাম থেকে আজীমের বাবা খলিল আহমাদ মুঠোফোনে বার্তা সংস্থাটিকে বলেন, পুলিশ আমাকে সরকারের সহায়তা এবং ন্যায়বিচারের আশ্বাস দিয়েছে। কিন্তু আমি অনুভব করতেছি, তারা আমার অভিযোগকে ধামাচাপা দিয়ে দিবে এবং আমি ন্যায়বিচার পাব না। আমি চাই যারা আমার ছেলেকে হত্যা করেছে, তাদেরকে অতি শীঘ্রই গ্রেফতার করা হোক এবং তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হোক। আমার ছেলেকে ষড়যন্ত্র করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনা আমার অন্তরে এক গভীর ক্ষত সৃষ্টি করেছে। আমি শুধু ন্যায়বিচার চাই, আর কিছু চাই না।
    খলিল আহমাদ একজন দিনমজুর। এজন্য তার অভিযোগকে ধামাচাপা দিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।

    খলিল বলেছেন, এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তিনি রাজনীতির কবলে পড়তে চান না, তিনি কেবল ন্যায়বিচার চান। কেননা, গণতান্ত্রিক দেশসমূহকে জনগণের বিষয়টিকে রাজনৈতিক ইস্যু বানিয়ে জনতাকে ন্যায়বিচার থেকে বঞ্চিত করা হয়।
    ক্যারাভান ডেইলি নিউজ বার্তাসংস্থা জানায়, ফরিদিয়া মাদ্রাসায় আজীম তার বড় দুই ভাই মুহাম্মদ মুস্তাকিম(১৩) ও মুহাম্মদ মোস্তফা(১১)-এর সাথে লেখাপড়া করত। অক্টোবরের শেষ বৃহস্পতিবার(২৫-ই অক্টোবর) সকাল ১০:০০ টায় মাদ্রাসার বাইরে হোস্টেল প্রাঙ্গনে কিছু ছাত্র খেলাধুলা করছিল, তখন কিছু হিন্দু যুবক এসে তাদের ওপর নির্যাতন শুরু করে। সেখানে অনেকে হতাহত হয় এবং আজীমকে লাথি, ধাক্কা মেরে ও বাইকে আছাড় দিয়ে তার মাথা পিষ্ট করা হয়। তারপর তাকে হাসপাতাল নেয়া হলে ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
    মাদ্রাসার এক ছাত্রের বক্তব্য অনুযায়ী এটি প্রথম ঘটনা নয়। সেইখানকার বাচ্চারা মাদ্রাসার বাচ্চাদের উপরে প্রায়ই এরকম করে, কিন্তু হত্যা করে দেওয়ার ঘটনা এই প্রথমবার ঘটলো। মাদ্রাসার বাচ্চাদের বক্তব্য অনুযায়ী- হিন্দুত্ববাদীরা মদ খেয়ে মদের বোতল মাদ্রাসার ভিতরে ছুঁড়ে দেয়, জুম্মার সময়ে পটকা ফাটায়, এমনকি শূকরের মাংস পর্যন্ত মাদ্রাসার ভিতরে ছুঁড়ে দেয়। পুলিশকে এই বিষয়ে বারবার অবহিত করা হলেও কোন ব্যবস্থা না নেওয়ার অভিযোগ মাদ্রাসা ছাত্রদের।
    পুলিশ এ ঘটনা ধামাচাপা দিয়ে রাখার চেষ্টা করেও না পেরে বাধ্য হয়ে কিছু অজ্ঞাত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ৩০২ নাম্বার সেকশনের আইপিসি-এর অধীনে এফআইআর করেছে। পরে ১০-১২ বছর বয়সের চার কিশোরকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে বলে জানা যায়।
    আজিমের বাবা বলেন, আমার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে, এটা কোনো এক্সিডেন্ট বা দূর্ঘটনা নয়!

    কিছু মিডিয়া বলে যে, আজীমের মৃত্যু ছিল একটি দুর্ঘটনা! কিন্তু আজীমের বাবা খলিল তাদের দাবিকে খন্ডন করে বলেছেন যে, আমার ছেলে এক্সিডেন্ট বা কোনো দুর্ঘটনার মাধ্যমে নিহত হয়নি। এটা একটা ষড়যন্ত্র। অন্য হিন্দুদের দ্বারা প্ররোচিত হয়ে কয়েকটি কিশোর কর্তৃক সে নিহত হয়েছে। পু্লিশ এটা তদন্ত করতেছে। মিডিয়ার মধ্যে আজীমের মৃত্যুকে এক্সিডেন্ট বা দুর্ঘটনা বলে প্রতিবেদন করেছে। খলিল বলেছেন, এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা।
    ( গাজওয়া হিন্দের ট্রেনিং) https://dawahilallah.com/showthread.php?9883

Similar Threads

  1. Replies: 6
    Last Post: 04-13-2017, 06:40 AM
  2. Replies: 5
    Last Post: 08-03-2016, 02:11 PM
  3. কিছু অভাব অভিযোগের কথা নিয়ে এসেছিলাম কিন্
    By কাল পতাকা in forum ইসলামের ইতিহাস
    Replies: 1
    Last Post: 05-12-2016, 11:27 PM
  4. ভাইদের সহযোগীতা চাচ্ছি...
    By shinai in forum তথ্য প্রযুক্তি
    Replies: 2
    Last Post: 12-19-2015, 08:18 PM

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •