Results 1 to 9 of 9
  1. #1
    Junior Member Lion of Hind's Avatar
    Join Date
    Jan 2020
    Posts
    1
    جزاك الله خيرا
    0
    10 Times جزاك الله خيرا in 1 Post

    Al Quran আল-খাত্তাবি: আধুনিক গেরিলাযুদ্ধের জনক

    আল-খাত্তাবি: আধুনিক গেরিলাযুদ্ধের জনক


    চীনের মাও সে তুং, ভিয়েতনামের হো চি মিন, কিংবা কিউবার চে গুয়েভারার নাম আমরা সবাই জানি। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না, বিংশ শতাব্দীর শুরুর দিকে মরক্কোর রিফ অঞ্চলে এমন একজন বিপ্লবী নেতা ছিলেন, যার গেরিলা যুদ্ধের কৌশল এবং সাফল্য অনুপ্রাণিত করেছিল এই তিন নেতাকেই! অনেকেই তাকে আধুনিক গেরিলাযুদ্ধের জনক হিসেবে অভিহিত করে থাকে। তার নাম মোহাম্মদ বিন আব্দুল করিম আল-খাত্তাবি।

    কে এই খাত্তাবি?

    খাত্তাবির জন্ম ১৮৮২ সালে মরক্কোর উত্তরে রিফ অঞ্চলের আজদির শহরের এক বার্বার (Berber) তথা আমাজিঘ আদিবাসী পরিবারে। তার বাবা আব্দুল করিম ছিলেন রিফ অঞ্চলের অন্যতম বৃহৎ এবং প্রভাবশালী আমাজিঘ গোত্র আইত ওয়ারিয়াগালের অত্যন্ত সম্মানিত একজন কাজি। বাবার উৎসাহে খাত্তাবি প্রথমে স্থানীয় মাদ্রাসায় কুরআন এবং আরবি ভাষার উপর পড়াশোনা করেন। পরবর্তীতে তিনি এবং তার ভাই কয়েক বছর স্প্যানিশ স্কুলেও পড়াশোনা করেন। এরপর তার ভাই মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনার জন্য মাদ্রিদে চলে যান, অন্যদিকে খাত্তাবি ফেজের বিখ্যাত কারাউইন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে আরবি এবং ইসলামি আইনশাস্ত্রের ওপর পড়াশোনা সম্পন্ন করেন।


    মোহাম্মদ বিন আব্দুল করিম আল-খাত্তাবি

    সে সময় মরক্কোর অংশবিশেষ ছিল ঔপনিবেশিক স্প্যানিয়ার্ডদের নিয়ন্ত্রণে। পড়াশোনা শেষ করে খাত্তাবি প্রথমে স্প্যানিয়ার্ডদের নিয়ন্ত্রণে থাকা মেলিলা এলাকায় গিয়ে বসবাস শুরু করেন। সেখানে তিনি শিক্ষক এবং অনুবাদক হিসেবে চাকরিজীবন শরু করেন। তিনি স্প্যানিশ পত্রিকা এল তেলিগ্রামা দেল রিফের হয়ে কয়েক বছর সাংবাদিক এবং কলামিস্ট হিসেবে চাকরি করেন। মেলিলার স্প্যানিশ মিলিটারি প্রশাসনের অধীনে তিনি কিছুদিন অনুবাদক এবং সেক্রেটারি হিসেবেও চাকরি করেন। তার ধর্মীয় এবং শিক্ষাগত যোগ্যতা বুঝতে পেরে ১৯১৫ সালে তারা তাকে মেলিলার কাজি হিসেবে নিয়োগ করে।

    প্রথম জীবনে খাত্তাবি এবং তার বাবা স্প্যানিয়ার্ডদের সাথে ঝামেলায় না গিয়ে তাদের সহায়তা নিয়ে নিজেদের অবস্থার উন্নতি ঘটানোর চেষ্টা করেছিলেন। তারা স্প্যানিশ মাইনিং কোম্পানীগুলোকে সাহায্য করেছিলেন এই আশায় যে, এতে রিফের জনগণও ব্যবসায়িকভাবে লাভবান হবে এবং আর্থিকভাবে স্বচ্ছলতার মুখ দেখবে। তাদের সহায়তার প্রতিদান হিসেবে স্প্যানিশ প্রশাসন খাত্তাবির বাবাকে ক্রস অফ মিলিটারি মেরিট পুরস্কারে ভূষিত করে এবং তার জন্য মাসিক ৫০ পেসেতা ভাতা বরাদ্দ করে।


    ১৯১৯ সালে স্প্যানিশ প্রশাসনের অধীনে চাকরি করার সময় খাত্তাবি



    খাত্তাবির উপনিবেশবিরোধী সংগ্রাম

    প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় থেকেই খাত্তাবি এবং তার বাবার কাছে ধীরে ধীরে স্পেনের ঔপনিবেশিক শাসনের প্রকৃত দিকগুলো ফুটে উঠতে শুরু করে। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় খাত্তাবি তুরস্কের পক্ষে তার অবস্থান প্রকাশ করলে এবং স্প্যানিশ শাসনকে ইসলামবিরোধী হিসেবে আখ্যায়িত করলে তার সকল সুযোগ-সুবিধা বাতিল করে উপনিবেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের অভিযোগে তাকে আটক করা হয়। দীর্ঘ ১১ মাস আটক করে তার বাবার উপর চাপ সৃষ্টি করে তাকে স্প্যানিয়ার্ডদের সাথে কাজ করতে বাধ্য করা হয়।

    বিশ্বযুদ্ধ শেষে খাত্তাবি আজদিরে নিজ শহরে ফিরে যান। ততদিনে স্প্যানিয়ার্ডদের দখলদারিত্ব তাদের শহর পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছিল। তারা স্থানীয় জনগণের উপর অত্যাধিক কর আরোপ করছিল, তাদের জায়গা-জমি দখল করে নিচ্ছিল এবং কিছু সুবিধাভোগী গোত্রপ্রধানকে ঘুষ দিয়ে সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা আদায় করে নিচ্ছিল। খাত্তাবি, তার ভাই এবং বাবা নিজেদের অঞ্চলকে স্প্যানিয়ার্ডদের দখলদারিত্ব থেকে মুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেন। স্বাধীন রিফ প্রজাতন্ত্র গড়ে তোলার লক্ষ্যে তারা স্থানীয় গোত্রগুলোর সাথে যোগাযোগ করেন এবং সংঘবদ্ধ হতে শুরু করেন।


    বাবা ও ভাইয়ের সাথে খাত্তাবি


    ১৯২০ সালে খাত্তাবির বাবার মৃত্যু হলে খাত্তাবি এলাকার নেতা হিসেবে আবির্ভূত হন। শত শত বছর ধরেই তাদের পরিবার ছিল রিফের সবচেয়ে সম্মানিত পরিবারগুলোর মধ্যে একটি। যুগ যুগ ধরে তারা পুরুষানুক্রমে কাজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। সে হিসেবে এমনিতেই স্থানীয় সমাজে তাদের বিশাল প্রভাব ছিল। সেই সাথে যুক্ত হয়েছিল ঔপনিবেশিক ফরাসি এবং স্প্যানিয়ার্ডদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ জনগণের স্বাধীনতার আকাঙ্ক্ষা এবং খাত্তাবির অসামান্য মেধা, যোগ্য নেতৃত্ব, বলিষ্ঠ কন্ঠস্বর এবং মানুষকে প্রভাবিত করার অকল্পনীয় দক্ষতা। অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই তিনি স্প্যানিয়ার্ডদেরকে রিফ থেকে উচ্ছেদ করার লক্ষ্যে রিফের বিচ্ছিন্ন গোত্রগুলোকে নিয়ে একটি সশস্ত্র গেরিলাদল তৈরি করে ফেলেন।


    খাত্তাবির রিফ বিদ্রোহ এবং আনুয়াল যুদ্ধ


    খাত্তাবির নেতৃত্বে শুরু হওয়া রিফ বিদ্রোহে প্রথম বড় ধরনের জয় আসে ১৯২১ সালের জুন মাসে। সে সময় মাওলায়ে আহমেদ আর-রাইসুনি নামে স্থানীয় এক গোত্রপ্রধানের দুর্ধর্ষ গেরিলাবাহিনীকে ধ্বংস করার লক্ষ্যে স্প্যনিশ বাহিনী রিফের কাছাকাছি এসে উপস্থিত হয়। খাত্তাবি স্প্যানিশ বাহিনীর প্রধান জেনারেল ম্যানুয়েল ফার্নান্দেজ সিলভেস্ত্রেকে হুঁশিয়ার করে দেন, তার বাহিনী যদি নদী পার হয়ে রিফে প্রবেশ করে, তাহলে তার পরিণতি ভয়াবহ হবে। সিলভাস্ত্রে হেসেই খাত্তাবির হুমকি উড়িয়ে দেন।

    জেনারেল সিলভাস্ত্র ছিলেন স্পেনের রাজা ত্রয়োদশ আলফঁনসোর ঘনিষ্ঠ বন্ধু। যুদ্ধযাত্রা শুরুর আগে তিনি ঘোষণা দিয়েছিলেন, মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তিনি খাত্তাবির বাহিনীকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দিবেন। এরপর খাত্তাবির বাড়িতে প্রবেশ করে সেখানে চা পান করবেন। কিন্তু তার সে অভিযান স্থায়ী হয়েছিল কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত। চা পান তো দূরের কথা, খাত্তাবির বাহিনীর গেরিলা আক্রমণে তার বিশাল বাহিনী যখন ধরাশায়ী, তখন পান করার মতো পানিও তাদের ছিল না। অনেককেই নিজেদের মূত্র পান করে তৃষ্ণা মেটাতে হয়েছিল।

    জুন মাসের শেষের দিকে সিলভাস্ত্রের বাহিনীর সাথে খাত্তাবির রিফিয়ান গেরিলাদের প্রথম সংঘর্ষ শুরু হয়। প্রথম দিনেই গেরিলাদের আক্রমণে স্প্যানিয়ার্ডদের ৩০০ সৈন্যের মধ্যে ১৭৯ জন নিহত হয়। বাকিরা কোনো রকমে প্রাণ বাঁচিয়ে ফিরে যায়। পরবর্তী দিনগুলোতে অনেকগুলো ছোট ছোট যুদ্ধ সংগঠিত হয়, কিন্তু অধিকাংশ যুদ্ধেই স্প্যানিয়ার্ডরা খাত্তাবির গেরিলা বাহিনীর কাছে পর্যুদস্ত হয়। সিলভাস্ত্রে সর্বশক্তি নিয়োগ করার সিদ্ধান্ত নেন। খাত্তাবিকে পরাজিত করার জন্য তিনি ৬০,০০০ সৈন্যের এক বিশাল বাহিনী জড়ো করেন। এর বিপরীতে খাত্তাবির সৈন্যসংখ্যা ছিল মাত্র তিন থেকে চার হাজার।

    ১৯২১ সালের ২২ই জুলাই সংঘটিত হয় রিফ বিদ্রোহের সবচেয়ে বড় এবং সবচেয়ে স্মরণীয় যুদ্ধ, যা ব্যাটেল অফ আনুয়াল নামে পরিচিত। পাঁচ দিন বিচ্ছিন্ন সংঘর্ষের পর সেদিন ৩,০০০ রিফি গেরিলা একযোগে স্প্যানিশ বাহিনীর উপর চূড়ান্ত আক্রমণ করে। মাত্র একরাতের মধ্যে স্প্যানিশ পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যায়। তাদের ১৬,০০০ থেকে ২২,০০০ এর মতো সৈন্য নিহত হয়। দিগ্বিদিক জ্ঞানশূন্য হয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় তারা পেছনে ফেলে যায় অন্তত ১৫টি কামান, ৪০০টি মেশিনগান, ২৫,০০০ রাইফেল, ২,০০০ ঘোড়া এবং অন্তত ৭০০ বন্দী। আর এই জয় অর্জিত হয় মাত্র ৮০০ রিফি গেরিলার প্রাণের বিনিময়ে!


    আনুয়াল যুদ্ধে পরাজয়ের পর স্প্যানিশ বাহিনীর অবস্থা

    আনুয়াল যুদ্ধ ছিল যেকোনো ঔপনিবেশিক শক্তির জন্য এক বিশাল পরাজয়। জেনারেল সিলভাস্ত্রে নিজে যুদ্ধক্ষেত্রে আত্মহত্যা করেছিলেন বলে ধারণা করা হয়। নিজেদের পরাজয়ের গ্লানি মুছে ফেলার জন্য স্প্যানিশ বাহিনী ফরাসি বাহিনীর সাথে মিলে মরক্কোতে সর্বশক্তি নিয়োগ করে। তারা ১৯১৯ সালের ভার্সেই চুক্তি ভঙ্গ করে রিফের জনগোষ্ঠীর উপর রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগ করতে শুরু করে। শেষপর্যন্ত ১৯২৬ সালের ২৬ মে প্রায় আড়াই লাখ ঔপনিবেশিক বাহিনীর বিশাল অভিযানের মুখে খাত্তাবি পরাজয় স্বীকার করে নিতে বাধ্য হন। তিনি ফরাসি বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করেন। ফরাসিরা খাত্তাবিকে লা রিইউনিয়ন দ্বীপে নির্বাসন দেয়। ১৯৪৭ সালে সেখান থেকে পালিয়ে তিনি মিসরে গিয়ে আশ্রয় নেন। এরপর সেখানেই ১৯৬৩ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

    আনুয়াল যুদ্ধের এবং খাত্তাবির প্রভাব

    খাত্তাবির আত্মসমর্পণের পরপরই রিফ বিদ্রোহ স্তিমিত হয়ে পড়েছিল। কিন্তু তার আগেই তিনি শুধু মরক্কো না, সমগ্র উত্তর আফ্রিকার শোষিত জনগণের মধ্যে ঔপনিবেশিক শাসনের বিরুদ্ধে বিদ্রোহে অনুপ্রেরণা সৃষ্টি করে গিয়েছিলেন। আনুয়াল যুদ্ধে খাত্তাবির বিজয়ের প্রভাব ছিল সুদূরপ্রসারী। ঐ যুদ্ধে অপমানজনক পরাজয় স্প্যানিশ সেনাবাহিনীর মধ্যে ব্যাপক অসন্তোষ এবং হতাশার সৃষ্টি করে। তারই ধারাবাহিকতায় ১৯২৩ সালে মিগুয়েল প্রিমো দে রিভেরার সামরিক অভ্যুত্থান সংঘটিত হয়, যা পরবর্তী ১৩ বছর পর্যন্ত স্থায়ী হয়। তার দুঃশাসন স্পেনে অর্থনৈতিক এবং রাজনৈতিক বিপর্যয় নিয়ে আসে এবং পরবর্তীতে স্পেনকে দীর্ঘস্থায়ী গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দেয়।


    ১৯২৫ সালে টাইম ম্যাগাজিনের কভারে আল-খাত্তাবি


    খাত্তাবির রণকৌশল অনুপ্রাণিত করেছিল ভিয়েতনামের হো চি মিন এবং চীনের মাও সে তুংকেও। ১৯৭১ সালে ফিলিস্তিনি মুক্তিকামী সংগঠন ফাতাহ’র কয়েকজন নেতা যখন চীনের বিপ্লবী নেতা মাও সে তুংয়ের সাথে সাক্ষাৎ করতে গিয়েছিলেন, তখন মাও সে তুং তাদেরকে বলেছিলেন, “আপনারা আমার কাছে এসেছেন মানুষের স্বাধীনতা যুদ্ধ সম্পর্কে আমার কথা শোনার জন্য, কিন্তু আপনাদের নিজেদেরই সাম্প্রতিক ইতিহাসে আব্দুল করিম নামে এমন একজন নেতা আছেন, যিনি হচ্ছেন অনুপ্রেরণার সবচেয়ে বড় উৎসগুলোর মধ্যে একটি। তার সংগ্রামের ইতিহাস থেকেই আমি শিখেছি জনগণের স্বাধীনতা যুদ্ধ আসলে কী!”

    মাও সে তুং কথাটা ১৯৭১ সালে বললেও এটা এখনও সত্য। আমরা দেশ-বিদেশের অনেক সফল সামরিক নেতার, বিপ্লবী নেতার নামই জানি, তাদের আন্দোলনের ইতিহাস পড়ে মুগ্ধ হই। কিন্তু মাত্র এক রাতের মধ্যে স্পেনের বিশাল বাহিনীকে ধ্বংস করে দেওয়া এই “রিফের সিংহ” সম্পর্কে আমরা খুব কমই আলোচনা করি।
    Last edited by Lion of Hind; 01-02-2020 at 01:02 PM. Reason: IMAGE MATCHING

  2. The Following 10 Users Say جزاك الله خيرا to Lion of Hind For This Useful Post:

    আহমাদ সালাবা (01-02-2020),ইবনে মুজিব (01-05-2020),Abdul Muqaddim (01-02-2020),abu ahmad (01-02-2020),abu kasim (01-06-2020),abumuhammad1 (01-05-2020),ALQALAM (01-07-2020),Harridil Mu'mineen (01-02-2020),muhammad sadik (01-05-2020),Shirajoddola (01-05-2020)

  3. #2
    Senior Member আহমাদ সালাবা's Avatar
    Join Date
    Dec 2019
    Location
    হিন্দুস্তান
    Posts
    191
    جزاك الله خيرا
    685
    506 Times جزاك الله خيرا in 173 Posts
    মাশাআল্লাহ। খুবই উত্তম ও দুর্লভ কিছু জানলাম প্রিয় ভাই। আপনাকে অশেষ শুকরিয়া। আমাদের সঠিক ও শুভবুদ্ধির উদয় হোক...

  4. The Following 5 Users Say جزاك الله خيرا to আহমাদ সালাবা For This Useful Post:

    ইবনে মুজিব (01-05-2020),abu ahmad (01-02-2020),abumuhammad1 (01-05-2020),ALQALAM (01-07-2020),mohammod bin maslama (01-02-2020)

  5. #3
    Senior Member
    Join Date
    May 2016
    Posts
    530
    جزاك الله خيرا
    202
    420 Times جزاك الله خيرا in 215 Posts
    আমাদের উচিত, আমাদের লোকদের দ্বারা অনুপ্রাণিত হওয়া। আমাদের অনুসরণীয় তো তারাই যারা নিজেদের জীবন দিয়ে আজাদী লড়ায়ে জীবন শেষ করেছে।

  6. The Following 3 Users Say جزاك الله خيرا to mohammod bin maslama For This Useful Post:

    abu ahmad (01-02-2020),abumuhammad1 (01-05-2020),ALQALAM (01-07-2020)

  7. #4
    Senior Member abu ahmad's Avatar
    Join Date
    May 2018
    Posts
    1,813
    جزاك الله خيرا
    10,170
    3,288 Times جزاك الله خيرا in 1,369 Posts
    মাশাআল্লাহ, অনেক দুর্লভ কিছু জানলাম মনে হচ্ছে...! খুব ভাল লাগল।
    আল্লাহ তা‘আলা আপনার খেদমত ও মেহনতকে কবুল করুন এবং আমাদেরকে পূর্বসূরীদের ইতিহাস দ্বারা অনুপ্রাণিত হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমীন
    আপনাদের নেক দুআয় মুজাহিদীনে কেরামকে ভুলে যাবেন না।

  8. The Following 4 Users Say جزاك الله خيرا to abu ahmad For This Useful Post:

    আহমাদ সালাবা (01-02-2020),abumuhammad1 (01-05-2020),ALQALAM (01-07-2020),mohammod bin maslama (01-06-2020)

  9. #5
    Member muhammad sadik's Avatar
    Join Date
    Aug 2019
    Location
    ارض الله
    Posts
    72
    جزاك الله خيرا
    184
    152 Times جزاك الله خيرا in 65 Posts
    এরাই আমাদের পূর্বসূরী, তাদের কোন উপমা হয় না ৷
    তাদের আলোচনা, তাদের স্বরণ আমাদেরকে সাহস জোগায়, শক্তি সঞ্চয় করে ৷ আল্লাহ আমাদেরকে তাদের প্রকৃত উত্তরসূরী হিসেবে কবুল করুক ৷ আমীন

  10. The Following 5 Users Say جزاك الله خيرا to muhammad sadik For This Useful Post:

    abu ahmad (01-07-2020),abu kasim (01-06-2020),abumuhammad1 (01-05-2020),ALQALAM (01-07-2020),mohammod bin maslama (01-06-2020)

  11. #6
    Member abumuhammad1's Avatar
    Join Date
    Dec 2019
    Location
    hindustan
    Posts
    119
    جزاك الله خيرا
    1,154
    212 Times جزاك الله خيرا in 98 Posts
    আল্লাহ সুবহানাহু ওতাআলা আমাদের হক পন্থী সালাফদের পথ ধরে চলার তাওফিক দিন,!!

  12. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to abumuhammad1 For This Useful Post:

    abu ahmad (01-07-2020),ALQALAM (01-07-2020)

  13. #7
    Member ABDULLAH BIN ADAM BD's Avatar
    Join Date
    Nov 2019
    Posts
    244
    جزاك الله خيرا
    7
    663 Times جزاك الله خيرا in 223 Posts
    দূর্লভ কিছু বিষয় জানতে পারলাম ৷
    সোমবার ও বৃহস্পতিবারের রোযা, প্রতিদিন অন্তত এক পারা কোরআন তেলাওয়াত - এইগুলো হচ্ছে মুজাহিদীনের অন্তরের খোরাক; আমরা আমল করছি তো?

  14. The Following User Says جزاك الله خيرا to ABDULLAH BIN ADAM BD For This Useful Post:

    abu ahmad (01-07-2020)

  15. #8
    Member abu kasim's Avatar
    Join Date
    Nov 2018
    Posts
    58
    جزاك الله خيرا
    52
    168 Times جزاك الله خيرا in 50 Posts
    আল্লাহ তায়ালা এমন বীর মুজাহিদ ঘরে ঘরে তৈরি করে দিন ।

  16. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to abu kasim For This Useful Post:

    abu ahmad (01-07-2020),ALQALAM (01-07-2020)

  17. #9
    Senior Member
    Join Date
    Jul 2017
    Posts
    311
    جزاك الله خيرا
    2,509
    578 Times جزاك الله خيرا in 225 Posts
    হুমমম শিখার অনেক কিছুই আছে..!

  18. The Following User Says جزاك الله خيرا to ALQALAM For This Useful Post:

    abu ahmad (01-07-2020)

Similar Threads

  1. Replies: 6
    Last Post: 05-29-2019, 05:47 PM
  2. বেলজিয়ামে বৈধ গোস্ত এখন অবৈধ
    By ahmadullah asfak in forum উম্মাহ সংবাদ
    Replies: 0
    Last Post: 01-07-2019, 09:34 AM
  3. Replies: 1
    Last Post: 12-21-2017, 06:45 AM
  4. Replies: 5
    Last Post: 07-22-2017, 08:36 AM
  5. Replies: 1
    Last Post: 02-28-2016, 05:23 PM

Tags for this Thread

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •