Results 1 to 6 of 6

Threaded View

  1. #1
    Member
    Join Date
    Jan 2016
    Posts
    47
    جزاك الله خيرا
    1
    32 Times جزاك الله خيرا in 20 Posts

    আল্লাহু আকবার ইমারতে ইসলামিয়া খোরাসানে ১২ ও ১৩ তারিখের মোবারক হামলাসমূহের তালিকা ।

    হেলমান্দ = মুসা কেল্লা এলাকায় একটি সেনা ছাউনি বিজয় । ২ সেনা নিহত আরো কয়েক জন আহত। অত্র জেলায় আরেক ঘাটিতে হামলা চালানো হয় । এতে শত্ররা ভীত হয়ে কোন প্রতিরোধ ছাড়াই ঘাটি ছেড়ে পালায়ন করে । মুজাহিদগণ দুটি সাজোয়া যান একটি রেন্জার গাড়ী সহ প্রচুর অস্ত্র-শস্ত্র গনিমত লাভ করেন ।
    এই জেলায় ২ পুলিশ সদস্য মুজাহিদদের সাথে মিলিত হয়।
    নাদ আলী জেলায় সেনা ঘাঁটিতে হামলা । ৬ সেনা নিহত। বাকীরা পলায়ন। পুরো ঘাঁটি মুজাহিদদের দখলে । ৫ বাক্স গুলি২,ুটি আমেরিকান মেশিনগান সহ আরো অনেক গনিমত লাভ।
    নওয়াহ জেলায় এক শত্র নিহত। বাকীরা এলাকা ছেড়ে পালায়ন।
    আলহামদু লিল্লাহ! আলহামদু লিল্লাহ!
    আজ ইমারতে ইসলামিয়ার এক বিশেষ সংবাদে বলা হয়েছে, গত রাত দুই টার সময় মুজাহিদদের কয়েকটি গ্রপ এক সাথে অত্র অঞ্চলের নদীর তীরস্থ একটি পুলিশ ফাড়ি ও দুটি সেনা ক্যাম্পে হামলা চালায় । মুজাহিদগণ পুলিশ ফাড়িতে সামান্য প্রতিরোধের শিকার হলেও অল্পক্ষনের মাথায় সকল পুলিশ ফাড়ি ছেড়ে পালায়ন করে । এবং ১৫ জন নিহত হয়। মুজাহিদগণ নিরাপদে ফাড়িতে প্রবেশ করেন। একটি সাজোয়া যান , তিনটি আর, পি , জি রকেট , একটি ভারী মেশিনগান , ৬ টি ক্লাশিনকোভ , একটি হেভেন রকেট সহ আরো অনেক অস্ত্র- শস্ত্র গনিমত লাভ করেন। দুই মুজাহিদ ভাই আহত।
    অপর দুই সেনা ক্যাম্পে নিয়াজ মুহাম্মদ কান্দাহারী নামক এক মুজাহিদ ভাই বিস্ফোরক ভর্তি গাড়ীতে করে এস্তেশহাদী হামলা চালান । এতে আহত নিহত মিলিয়ে মোট ৩০ সেনা হামলার শিকার । বেশ কয়েকটি সাজোয়া যান ও সামরিক গাড়ী ধ্বংস। বাকী সেনারা এলাকা ছেড়ে পালায়ন ।
    নাওয়াহ জেলায় মুজাহিদদের ড্রাগনোভ বন্দুকের গুলিতে ২ শত্র নিহত
    জারশাক জেলায় সেনা ঘাটিতে হামলা , ব্যাপক রকেট হামলায় সেনাদের বসবাসের একটি ভবন পুরোপুরি বিধ্বস্ত । তবে আহত নিহতের নির্দিষ্ট সংখ্যা এখনো জানা যায়নি।
    খোস্ত= মাইন বিস্ফোরণে এক সেনা আহত। আহত সেনাকে নিতে আরো কয়েক জন সেনা আসলে সেখানে আরেকটি মাইন বিস্ফোরণ ঘটে এতে উপস্থিত ৮ সেনার সবাই নিহত । এবং রেন্জার গাড়ী বিধ্বস্ত ।
    আজ খোস্ত প্রদেশের গভর্নর এর আগমন উপলক্ষে সাবরিউ জেলার সেনাঘাটিতে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। মুজাহিদগণ হালকা ও ভারী অস্ত্র নিয়ে ঘাটিতে হামলা চালায় । এতে ৪ সেনা নিহত। এবং বহু সংখ্যক আহত। এই জেলায় নিকাম গ্রামে সেনাদের আরেকটি দল সভার নিরাপত্তা জোরদারের জন্য প্রহরার কাজ করছিল । মুজাহিদগণ তাদের উপর ও হামলা চালায় । এতে আরো ৩ সেনা নিহত। ও ২ জন আহত। শেখ আমীর জেলায় মুজাহিদদের মাইন বিস্ফোরনে রেন্জার গাড়ী বিধ্বস্ত । ও এক সেনা অফিসার নিহত
    বাগলান = এক মিলিশিয়া নিহত। আরো কয়েক জন আহত। বাকীরা এলাকা ছেড়ে পালায়ন।
    আরেক জেলায় হামলা । এক মিলিশিয়া নিহত। কয়েক জন আহত। পুরো গ্রপ পর্যুদস্ত । বাকীরা এলাকা ছেড়ে পালায়ন। কুন্দুজ = তিন সেনা মুজাহিদদের সাথে মিলিত ।
    ইমাম সাহেব জেলায় আফগান সেনাদের উপর হামলা । একটি রেন্জার গাড়ী ধ্বংস । ২ সেনা নিহত। আরো অনেকে আহত। আলহামদুলিল্লাহ মুজাহিদগণ সম্পূর্ণ নিরাপদ।
    রোজগান = খাস জেলায় সেনা ছাউনিতে হামলা। ৩ সেনা নিহত। আরো অনেকে আহত।
    দেহরাউদ জেলায় মুজাহিদদের আদ দাওয়া ওয়াল ইরশাদ বিভাগের মেহনতে পুলিশ ও মিলিশিয়া সহ মোট ১২ জন মুজাহিদদের সাথে মিলিত হয়। খাস জেলায় আরো ২ মিলিশিয়া মুজাহিদদের সাথে মিলিত হয় ।
    ট্রাংক কোট = মাইন বিস্ফোরণে এক সেনা অফিসার ও তার ৩ দেহ রক্ষি সহ মোট ৪ জন নিহত।
    ময়দান ওয়ার্দাক = মাইন বিস্ফোরণে ট্যাংক বিধ্বস্ত । সকল আরোহি নিহত । অত্র এলাকায় অভিযান চালানোর সময় এক সেনা কাফেলার উপর হামলা । ৫ সেনা নিহত । আরো অনেকে আহত।
    লোগার = মুজাহিদদের হাত বোমায় শত্রর রেন্জার গাড়ী বিধ্বস্ত। ২ সেনা নিহত
    নাঙ্গহার = পেটিকোট জেলায় মুজাহিদদের মাইন বিস্ফোরণে শত্রুর সেনা দল পর্যুদস্ত। ৪ সেনা নিহত। আরো অনেকে আহত।
    ফারাহ = বালাব্লুক জেলায় মুজাহিদদের আগাম হামলার সংবাদ পেয়ে শত্র দল ক্যাম্প ছেড়ে পালায়ন ।
    গজনী = জিরো জেলায় আজ সকাল থেকে অভিযান রত এক সেনা দলের উপর মুজাহিদগণ হামলা চালায় । বিকাল পর্যন্ত হামলা অব্যাহত থাকে । এতে ৪ সেনা নিহত আরো ৬ জন আহত। মাইন বিস্ফোরণে একটি ট্যাংক বিধ্বস্ত । এতে নিহতের সংখ্যা জানা যায়নি । মুজাহিদদের হামলায় পর্যুদস্ত হয়ে নাপাক সেনারা গ্রামবাসীর উপর এলোপাতাড়ী গোলাবর্ষণ করে । তবে এতে কেউ ক্ষতি গ্রস্থ হয়নি।
    নিমরোজ = খাসরোজ জেলায় ইমারাতে ইসলামিয়ার উদ্দোগে আজ তিন দিন যাবৎ এক বিশাল তারবিয়াতি জলসার আয়োজন করা হয়েছে । এতে মুজাহিদ কমান্ডার, সামরিক বিভাগের দায়িত্বশীল , ওলামায়ে কেরাম , সমাজের নেতৃস্থানীয় ব্যাক্তিবর্গসহ সাধারণ জনগণের একটি বিশাল অংশ উপস্থিত থাকে । তিন দিনের এই তারবিয়াতি জলসায় ওলামায়ে কেরাম তালেবানদের অবদান এবং দ্বীন প্রতিষ্ঠায় তাদের কুরবানীর কথা তুলে ধরেন। এবং ইসলাম প্রতিষ্ঠায় সকল বিচ্ছিন্নতা ঝেড়ে ফেলে মুজাহিদদের পতাকা তলে সমবেত হবার আহবান জানান। এবং এই মুহুর্তে জিহাদ সবার উপর ফরজে আইন তা ও সাফ জানিয়ে দেন । শেষ দিন তথা আজ বিকেল পাঁচটায় সবাই মুজাহিদদের কে সার্বিক সহযোগীতার প্রতিশ্রতি দিয়ে মুনাজাতের মাধ্যমে এই মহতি জলসার পরিসমাপ্তি ঘটে।



  2. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to abuusama For This Useful Post:

    কাল পতাকা (02-16-2016),Ahmad Faruq M (02-16-2016)

Similar Threads

  1. ইসলামী ইমারাহ আফগান ৪/১৩/১৫ খ্রিঃ
    By কাল পতাকা in forum খোরাসান
    Replies: 2
    Last Post: 12-05-2015, 11:28 AM

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •