PDA

View Full Version : উম্মাহ্ নিউজ # ২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী # ১ অক্টোবর, ২০১৯ ঈসায়ী।



Al-Firdaws News
10-02-2019, 04:28 PM
হবিগঞ্জে মধ্যরাতে গ্রেফতার, সন্ত্রাসী পুলিশের নির্যাতনে সকালেই লাশ
https://alfirdaws.org/wp-content/uploads/2019/10/image.jpg

বাসা থেকে সন্ত্রাসী পুলিশের গ্রেফতার করে নিয়ে আসার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ফারুক মিয়া নামের এক আসামির মৃত্যুর ঘটনায় হবিগঞ্জ শহরে তোলপাড় চলছে।

নিহতের পরিবারের দাবি, মধ্য রাতে গ্রেফতারকালেই সন্ত্রাসী পুলিশ ফারুক মিয়াকে নির্যাতন শুরু করে। থানায় নিয়ে আসার পরও তাকে নির্যাতন করা হয়। নির্যাতনেই ফারুক মিয়া মারা যান। আর ডাক্তার বলেছেন, নিহত ফারুক মিয়াকে মারাত্মক আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তবে ঠিক কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে ময়না তদন্ত রিপোর্ট ছাড়া বলা যাবে না।
নিহত ফারুক মিয়ার পরিবার সূত্রে জানা যায়, মাত্র ১৫ হাজার টাকার একটি চেক ডিজওনার মামলার পরোয়ানাভুক্ত আসামি ছিলেন হবিগঞ্জ শহরের মোহনপুর আবাসিক এলাকার বাসিন্দা সঞ্জব আলীর পুত্র ফারুক মিয়া (৪৫)। পুলিশ গত রোববার রাত ২টার দিকে আসামি ফারুক মিয়াকে তার বাসা থেকে গ্রেফতার করে।
নিহতের পুত্র কলেজছাত্র সাইদুল ইসলাম ও মাসুক মিয়া জানান, গ্রেফতারকালেই পুলিশ তাদের বাবাকে শারীরিক নির্যাতন শুরু করে। নির্যাতন করতে করতে থানায় নিয়ে আসা হয়। পরে সকাল বেলায় তার বাবা অজ্ঞান হয়ে পড়লে সদর হাসপাতালে নিয়ে যায় পুলিশ। থানা হাজতে ফারুক মিয়ার সাথে তার পরিবারের কাউকে দেখাও করতে দেয়া হয়নি।
সূত্র: https://alfirdaws.org/2019/10/01/27424/

Al-Firdaws News
10-02-2019, 04:31 PM
যশোরে সন্ত্রাসী ছাত্রলীগ নেতা ছিনতাই করে পালানোর সময় আটক

https://alfirdaws.org/wp-content/uploads/2019/10/shovon-175939-1.jpg

মোবাইল ফোন ছিনতাই করে পালানোর সময় গোলাম রব্বানী (২৬) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। রব্বানী যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়–যবিপ্রবির ছাত্র এবং সন্ত্রাসী ছাত্রলীগ শহীদ মসিয়ূর রহমান হল শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক।
গত শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১০টার দিকে যশোর কসবা শহরের রেজিস্ট্রি অফিসের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়।
শুক্রবার রাতে যশোর সদরের রঘুরামপুর এলাকার আমির হোসেনের ছেলে সাজ্জাদ হোসেন ইমন নামে এক যুবক রেজিস্ট্রি অফিসের সামনে দিয়ে যাচ্ছিলেন। তখন গোলাম রব্বানী ও তার আরেক সহযোগী ইমনের একটি মোবাইল ফোন ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে আটক করা হয়।
সংবাদ সূত্রে আরো জানা যায়, রব্বানী সম্প্রতি যবিপ্রবি ক্যাম্পাসে মারামারি ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার ৫ নম্বর আসামি। আটক রব্বানী যশোর যবিপ্রবি’র পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তি বিভাগের ছাত্র।

সূত্র: সময় নিউজ টিভি
সূত্র:https://alfirdaws.org/2019/10/01/27427/

Al-Firdaws News
10-02-2019, 04:32 PM
ফারাক্কা বাঁধের ১০৯টি গেট খুলে দিয়েছে ভারত ;ঢলের পানি আসছে বাংলাদেশে, আরেক দফা বন্যার আশঙ্কা

https://alfirdaws.org/wp-content/uploads/2019/10/4bsj9ddd67f24a1gium_800C450.jpg

সীমান্তের ওপারে ভারতে অতিবৃষ্টি ও প্রবল বন্যার কারণে বাংলাদেশের গঙ্গা-পদ্মা নদীঅঞ্চল আর এক দফা বন্যার মুখোমুখি এসে দাঁড়িয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের অন্তবর্তী পূর্বাভাসে এ আশঙ্কার কথা জানানো হয়েছে।

ভারতের বিহার, পাটনা ও মালদা এলাকায় বন্যার কারণে ফারাক্কা বাঁধের ১০৯টি গেট খুলে দিয়েছে ভারত। সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকালে নেওয়া দেশটির এ সিদ্ধান্তে এপারে রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ এলাকার পদ্মা নদীতে হুট করে পানি প্রবাহ বেড়ে গেছে। এর ফলে নদী তীরবর্তী বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়েছে।

আবহাওয়ার সর্বশেষ পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি চলবে আগামী কয়েকদিন। চলতি মাসের শেষ এবং আগামী মাসের শুরুর পুরো সপ্তাহ জুড়েই থেমে থেমে বৃষ্টি হবে। কোথাও ভারী আবার কোথাও হালকা পরিমাণে বৃষ্টি হবে।

ওদিকে, গঙ্গা-পদ্মা নদ-নদী অববাহিকায় উজানে ভারতে অতিবৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে। উজান থেকে অবিরাম ঢলের পানি নেমে আসছে বাংলাদশে। এ কারণে আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই বৃহত্তর রাজশাহী, কুষ্টিয়া, পাবনা, ফরিদপুর ও এর আশপাশ অঞ্চল বন্যা কবলিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। পদ্মার ভাটিতে মধ্যাঞ্চলেও রয়েছে বন্যায় প্লাবিত হওয়ার শঙ্কা। তবে এ বন্যা হতে পারে স্বল্প থেকে মধ্যমেয়াদি।
ভারতের উত্তর প্রদেশ, বিহার, মধ্য প্রদেশ, উত্তরাখন্ড ও সংলগ্ন কয়েকটি প্রদেশে এবং নেপালে গত দুই সপ্তাহ ধরে মাঝারি থেকে ভারী ও অতিভারী বর্ষণ অব্যাহত রয়েছে। এর ফলে সৃষ্ট ভয়াবহ বন্যায় গতকাল পর্যন্ত উত্তর প্রদেশে ও বিহারে মারা গেছে ৯০ জনের বেশী মানুষ। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে আরো জানা যায়, বর্তমানে উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলীয় জেলাগুলোতে ‘রেড অ্যালার্ট’ জারি করা হয়েছে। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া অতিভারী বর্ষণে তলিয়ে গেছে বিহার রাজ্যও। গতকাল ২৪ ঘণ্টায় বিহারের রাজধানী পাটনায় ১৫২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বের্ডের তথ্য অনুযায়ী, গঙ্গার উৎস বা উজানের অববাহিকায় বিশেষত উত্তর প্রদেশ, বিহার ও নেপালে টানা ভারী বৃষ্টিপাতের ফলে ঢল-বানের পানিতে গঙ্গা নদী ফুলে-ফুঁসে উঠেছে। আর সেই ঢল গড়িয়ে আসছে গঙ্গা-পদ্মায় বাংলাদেশের ভাটির দিকে। এ অবস্থায় অক্টোবরের শুরুতেই গঙ্গা-পদ্মা পাড়ে বন্যার আশঙ্কা এ মুহূর্তে বেড়ে গেছে। তাছাড়া ভারত উজানে বানের পানির চাপ সামাল দিতে গিয়ে নিজের স্বার্থেই যদি গঙ্গায় ফারাক্কা বাঁধের গেইট-স্পিলওয়েগুলো খুলে দিয়েছে,এরফলে চলতি সপ্তাহে গঙ্গা নদী সংলগ্ন দেশের চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী, নাটোর, পাবনা, কুষ্টিয়া, রাজবাড়ী ও মাগুরা জেলার কতিপয় স্থানে মাঝারি মাত্রার স্বল্প থেকে মধ্যমেয়াদি বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।

গঙ্গা নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে পদ্মা নদী গোয়ালন্দ ও ভাগ্যকুল পয়েন্টে এবং পদ্মা সংলগ্ন যমুনার আরিচা পয়েন্টে বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। এরফলে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে পদ্মা নদী সংলগ্ন দেশের মধ্যাঞ্চলের মানিকগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, ফরিদপুর, মাদারীপুর, রাজবাড়ী ও শরীয়তপুর জেলাসমূহের নিম্নাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।
সূত্র: পার্সটুডে
সূত্র: https://alfirdaws.org/2019/10/01/27434/

Al-Firdaws News
10-02-2019, 04:33 PM
সার্ক চুক্তি সত্ত্বেও বাংলাদেশগামী মালবাহী ট্রাক আটক করছে ভারত
https://alfirdaws.org/wp-content/uploads/2019/10/4bslbb8dcf1d631i7ty_800C450.jpg

ভারতের আসাম রাজ্যে নতুন আইনের কারণে হয়রানির শিকার হচ্ছে বোল্ডার ও পাথরবাহী বাংলাদেশগামী ভুটানের ট্রাকগুলো। ২৩ সেপ্টেম্বর জারি করা এক নির্দেশনার পর ট্রাকগুলোকে বেশ মোটা অংকের জরিমানা করা হচ্ছে।

ভুটানের রফতানিকারকরা অভিযোগ করেন যে গত বৃহস্পতিবার আসামের বনগাইগাও জেলায় ৪০টির মতো ভুটানিজ ট্রাক আটক করা হয় ওভারলোডিংয়ের কারণে।

তারা বলেন, সাউথ এশিয়ান ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট (সাফটা)- এর আওতায় সার্ক দেশগুলোর মধ্যে যে চুক্তি রয়েছে তাতে বলা হয়েছে দুটি সদস্য দেশের মধ্যে ট্রানজিটের ক্ষেত্রে তৃতীয় দেশ কোন বাধা সৃষ্টি করবে না।

সার্কের সদস্য হলো বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, মালদ্বীপ, নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলংকা।
ইন্দো-ভুটান মৈত্রি সমিতির সাবেক সভাপাতি উগিয়েন রাফতেন বলেন, কোন সমস্যা ছাড়াই ভুটানের ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে পাথর ও অন্যান্য সামগ্রী পরিবহন করে আসছে। তিনি স্বীকার করেন যে অনেক ট্রাক মানসম্মত ১৮ টনের চেয়ে বেশি ভার বহন করে। কিন্তু সাফটা আইন অনুযায়ী কোন ট্রানজিট দেশ (ভারত) কোন রফতানিকারক দেশকে (ভুটান) আমদানিকারক দেশে (বাংলাদেশ) পণ্য পাঠাতে বাধা দিতে পারবে না।
তিনি বলেন, ভুটানের গেলেফু থেকে নিয়মিত দালু (মেঘালয়-বাংলাদেশ সীমান্ত) হয়ে বাংলাদেশে পাথর পরিবহন করা হয়। আসামে প্রবেশের আগে পণ্য ও ডকুমেন্ট সিল করে দেয়া হয়। সাফটা চুক্তি অনুযায়ী আসাম ও মেঘালয়ের মধ্য দিয়ে ৩২১ কিলোমিটার পথ পারি দিয়ে গন্তব্যে পৌছার পর এগুলো খোলা হবে। কিন্তু আসামে আটক ও জরিমানা করা আমাদেরকে সমস্যায় ফেলে দিয়েছে।
রাফতেন জানান, মেঘালয়ের তিকরিকিল্লায় একটি সেতু ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কারণে বহু ট্রাক আটকা পড়ে আছে।

সূত্র: দি হিন্দু
সূত্র: https://alfirdaws.org/2019/10/01/27445/

abu ahmad
10-06-2019, 05:50 PM
হে আল্লাহ, আপনি মুসলিম উম্মাহকে হিফাযত করুন। আমীন