Results 1 to 5 of 5
  1. #1
    Senior Member salman rumi's Avatar
    Join Date
    Feb 2018
    Posts
    310
    جزاك الله خيرا
    173
    608 Times جزاك الله خيرا in 253 Posts

    আমাদের ইমাম রাষ্ট্রীয় আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রাখার কথা বলেছেন: আমার করনীয় কি?

    ফেসবুকের একটি আইডিতে দেখতে পেলাম। সেখানে বাংলাদেশের পতাকা বহনকেও কুফরের প্রতি সমর্থনের পরিচায়ক বলা হয়েছে। সতর্কতার জন্য এমনটা বলার উপযুক্ততা আমিও স্বীকার করি। কিন্তু বাস্তব ক্ষেত্রে কি এতোটুকু দ্বারা কারো উপর কাফের হবার হুকুম প্রয়োগ করা যাবে?
    জিজ্ঞেস করছি কারণ আছে। আমাদের মসজিদের ইমাম সাহেব রাষ্ট্রীয় আইন মান্য করার আহ্বান জানিয়েছেন। এমতাবস্থায় তার পেছনে কি আমি ফরজ সালাত আদায় করবো?! এ ধরনের মাসআলা শাইখ আবু মুহাম্মাদ হাসেম হাফিজাহুল্লাহ এর ফতোয়ায়ে পড়েছি। মুসলমানদের বিরুদ্ধে কুফরি শক্তির পক্ষে দোয়া করাতে তিনি এমন ইমামকে কাফের মনে করে তার পেছনে নামাজ বর্জন করার ফতোয়া দিয়েছিলেন। এখানে ব্যাপারটা তো একটু অন্যরকম। রাষ্ট্রীয় আইনের ভেতর অনেক কিছু আছে যেগুলো ইসলাম বিরোধী নয়। আমাদের মসজিদের ইমাম সাহেব হয়তো সেগুলোই বুঝিয়েছেন। জিজ্ঞেস করলে তো আরো কত ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ বের হয়ে আসবে। এসব বিষয়ে খুঁটিনাটির তো অভাব নেই। কথা হল, শায়খ আবু মোহাম্মদ আসেম হাফিজাহুল্লাহ এর ফতোয়া পড়ে যদিও দায়সারাভাবে এ বিষয়ে মাসআলা জেনেছি, কিন্তু এখন নিজে বাস্তব ক্ষেত্রে পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়ে থমকে দাঁড়িয়েছি।

    কি করতে পারি কেউ কি জানাবেন?!
    Last edited by Munshi Abdur Rahman; 12-15-2019 at 07:03 AM.

  2. The Following 3 Users Say جزاك الله خيرا to salman rumi For This Useful Post:

    কালো পতাকাবাহী (12-14-2019),abu ahmad (12-15-2019),musab bin sayf (12-15-2019)

  3. #2
    Senior Member কালো পতাকাবাহী's Avatar
    Join Date
    Dec 2018
    Location
    تحت السماء
    Posts
    870
    جزاك الله خيرا
    8,153
    2,423 Times جزاك الله خيرا in 736 Posts
    ভাইয়েরা আপনাকে সাহায্য করবেন ইনশাআল্লাহ।
    বিবেক দিয়ে কোরআনকে নয়,
    কোরআন দিয়ে বিবেক চালাতে চাই।

  4. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to কালো পতাকাবাহী For This Useful Post:

    abu ahmad (12-15-2019),musab bin sayf (12-15-2019)

  5. #3
    Junior Member
    Join Date
    May 2017
    Location
    দারুল হারব
    Posts
    27
    جزاك الله خيرا
    30
    72 Times جزاك الله خيرا in 18 Posts
    ভাই- কোনো কাজকে কুফরি বললেই সেই কাজ করনে ওয়ালা সকল ব্যক্তি কাফের হয় না।
    সংবিধানের আনুগত্যের দাওয়াত দেয়া কুফরি কাজ। কিন্তু এই কারণে সবাই কাফের হবে না..
    তাই আপনার জন্য ঐ ইমামের পিছনে নামাজ পড়া বৈধ।
    তবে আপনার যদি সুযোগ হয় তাকে এই কুফরির ব্যাপারটা জানিয়ে দেয়া উচিত।
    Last edited by Munshi Abdur Rahman; 12-15-2019 at 07:05 AM.
    (হে আল্লাহ)" মুক্ত আমি নিঃস্ব আমি দেবার কিছু নাই
    তোমার দেয়া প্রানটা নিয়েই হাজির হলাম তাই"

  6. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to Galib Ibn Adam For This Useful Post:

    abu ahmad (12-15-2019),musab bin sayf (12-15-2019)

  7. #4
    Senior Member abu ahmad's Avatar
    Join Date
    May 2018
    Posts
    3,093
    جزاك الله خيرا
    19,903
    5,577 Times جزاك الله خيرا in 2,231 Posts
    আল্লাহ তা‘আলা আসান করে দিন। আমীন
    যার গুনাহ অনেক বেশি তার সর্বোত্তম চিকিৎসা হল জিহাদ-শাইখুল ইসলাম ইবনে তাইমিয়া রহ.

  8. #5
    Senior Member salman rumi's Avatar
    Join Date
    Feb 2018
    Posts
    310
    جزاك الله خيرا
    173
    608 Times جزاك الله خيرا in 253 Posts
    Quote Originally Posted by Galib Ibn Adam View Post
    ভাই- কোনো কাজকে কুফরি বললেই সেই কাজ করনে ওয়ালা সকল ব্যক্তি কাফের হয় না।
    সংবিধানের আনুগত্যের দাওয়াত দেয়া কুফরি কাজ। কিন্তু এই কারণে সবাই কাফের হবে না..

    প্রিয় ভাই! আমাদের এই বক্তব্য থেকে সুযোগসন্ধানী মহল যেন ফেতনা সৃষ্টি করতে না পারে সেদিকে আমাদের সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে।
    এখানে আসলে মূল কথা এই ছিল; শায়েখদের কিতাব থেকে যেমনটা পাওয়া গেছেকারো থেকে কোন কুফুরি কাজ (বাহ্যিকভাবে কুফরি কাজ)প্রকাশিত হলেই তাৎক্ষণিকভাবে তাকে কাফের ফতোয়া দিয়ে দেয়া উচিত নয়। কারণ হতে পারে এখানে এখানে তার পক্ষে কোনো গ্রহণযোগ্য প্রতিবন্ধক রয়েছে অথবা সে গ্রহণযোগ্য কোনো ব্যাখ্যা গ্রহণ করেছে।
    কিন্তু এভাবে বললে সুযোগসন্ধানী মহলের ফিতনা সৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে যে, কোন কাজকে কুফরি বললেই সেই কাজ করনেওয়ালা সকল ব্যক্তি কাফের হয় না। মূলকথা হলো কুফরি কাজ করলে মানুষ কাফের হবেই। কুফরি কাজ করলে যে কেউ কাফের হবে। কিন্তু তার কাজটা তার পক্ষে আসলেই কুফরি কিনা এবং তার পক্ষে কোন প্রতিবন্ধক বিষয় আছে কিনা, সেটা যাচাইয়ের জন্য কিছু সময় ক্ষেপন করতে হয়।
    সারকথা এই দাঁড়ালো, যে কেউ কুফরি কাজ করলেই কাফের হয়ে যায় না এভাবে না বলে বাহ্যিকভাবে কোন কুফুরি কাজ কারো থেকে প্রকাশ পেলে তাৎক্ষণিকভাবে তাকে কাফের বলা উচিত নয় বলা উচিত।

    আসলে এগুলো সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম বিষয়। কুফরের সংবিধানের প্রতি আনুগত্যের আহ্বান অবশ্যই কুফরি কাজ এবং এমন কাজ কর্নে ওয়ালা ব্যক্তি আসলেই কাফির। কিন্তু তাৎক্ষণিকভাবে যে কেউ কাফের ফতোয়া দিতে পারবে না। আর এ কারণেই বলা হয়, যেমনটা আপনি বলেছেন।

    আসলে আমি কথাগুলো বললাম যেন সুযোগসন্ধানী মহল ফেতনা সৃষ্টি করতে না পারে।

  9. The Following 2 Users Say جزاك الله خيرا to salman rumi For This Useful Post:

    তাহমিদ হাসান (12-22-2019),abu ahmad (12-18-2019)

Similar Threads

  1. Replies: 7
    Last Post: 08-11-2019, 07:34 AM
  2. Replies: 12
    Last Post: 08-03-2019, 07:19 AM
  3. Replies: 12
    Last Post: 03-10-2019, 09:21 AM
  4. Replies: 2
    Last Post: 10-05-2018, 08:46 AM
  5. Replies: 7
    Last Post: 07-26-2018, 10:51 AM

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •