Results 1 to 2 of 2
  1. #1
    Senior Member
    Join Date
    Apr 2016
    Posts
    260
    جزاك الله خيرا
    0
    315 Times جزاك الله خيرا in 160 Posts

    আল্লাহু আকবার লোহা অবতীর্ণের হস্যময় কথা ।

    আল্লাহ সুবঃ ইরশাদ করেন
    নিশ্চয় আমি রাসুলগণকে স্পষ্ট প্রমানাদীসহ পাঠিয়েছি এবং তাদের সাথে কিতাব ও ( ন্যায়ের) মানদণ্ড নাযিল করেছি , যাতে মানুষ সুবিচার প্রতিষ্ঠা করে । আমি আরও নাযিল করছি লোহা , তাতে প্রচুর শক্তি ও মানুষের জন্য বহু কল্যাণ রয়েছে । আর যাতে আল্লাহ জেনে নিতে পারেন, কে না দেখেও তাঁকে ও তাঁর রাসুলদেরকে সাহায্য করে । অবশ্যই আল্লাহ মহাশক্তিধর , মহাপরাক্রমশালী । ( সূরা হাদীদ আয়াত ২৫ )

    আমি লোহা নাযিল করেছি !! লোহা তো আল্লাহ সুবঃ যমীন থেকে সৃষ্টি করেছেন , আসমান থেকে নয় । সুতরাং বাস্তবতার দাবী ছিল এমন বলা আমি লোহা তৈরি করেছি বা লোহা সৃষ্টি করেছি কিন্তু বলেছেন আমি লোহা নাযিল করেছি , এর হেকমত বা দর্শন হলো এই যে , কিতাবুল্লাহর বাস্তবায়ন ও স্থায়ীত্বের ক্ষেত্রে লোহার কার্যকারিতা ও ভূমিকা এমন যেন এটাও কিতাবুল্লাহর মত আসমান থেকে নাযিলকৃত ।

    তাতে প্রচুর শক্তি ও মানুষের জন্য বহু কল্যাণ রয়েছে লোহা সৃষ্টির উদ্দেশ্য বর্ণনা করতে গিয়ে যুদ্ধকে আগে উল্লেখ করা এবং মানুষের উপকারীতাকে পরে উল্লেখ করা একথার দলিল যে , লোহা সৃষ্টির মূল উদ্দেশ্য হলো যুদ্ধ আর দ্বিতীয় পর্যায়ে একে অন্যান্য উপকারের জন্যেও ব্যবহার করা যাতে পারে । কিন্তু আফসোস ! শত আফসোস !! আজ কুফুরি শক্তিতো এর উপর আমল করেই যাচ্ছে ; কিন্তু মুসলমানরা এ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি থেকে সম্পূর্ণ গাফেল ও বে-খবর । উল্লেখিত তাফসীরটি তখনই প্রযোজ্য হবে যখন মানুষের জন্য বহু কল্যাণ রয়েছে দ্বারা লোহার অন্যান্য সরঞ্জামাদি উদ্দেশ্য নেওয়া হবে । যেমন দরজা , আলমারী , পাখা , ট্রেন ইত্যাদি । কিন্তু কাশশাফ গ্রন্থের লেখক বলেন , লোহার মাধ্যমে জিহাদ করা হয় এবং জিহাদের মাধ্যমে ফেতনা নির্মূল হয় ফলে জনগণ শান্তি ও নিরাপত্তার সাথে জীবন যাপন করে । সুতরাং মানুষের জন্য বহু কল্যাণ রয়েছে এর উদ্দেশ্য এটাও হতে পারে ।

    আর যাতে আল্লাহ জেনে নিতে পারেন, কে না দেখেও তাঁকে ও তাঁর রাসুলদেরকে সাহায্য করে । আয়াতের এ অংশে আল্লাহ সুবঃ বলনে , আমি দেখব কে লৌহা নির্মিত যুদ্ধাস্ত্র নিয়ে আল্লাহর দীনের সহযোগিতা করে অর্থাৎ জিহাদের ময়দানে গমন করে এবং এই লোহাকে আল্লাহর দুশমনদের বিরুদ্ধে ব্যবহার করে । নিঃসন্দেহে আল্লাহ মহাশক্তিধর , মহাপরাক্রমশালী । তিনি নিজেই পারেন দুশমনদের ধ্বংস করতে ; কিন্তু জিহাদের হুকুম এজন্য যেন মুসলমান এর উপর আমল করে দুনিয়া-আখেরাতের ফায়দা হাসিল করে ।

    সংগৃহীত ...!

  2. The Following User Says جزاك الله خيرا to Tahmid For This Useful Post:

    Ibn Arefin (03-13-2019)

  3. #2
    Senior Member উমার আব্দুর রহমা's Avatar
    Join Date
    Mar 2017
    Location
    Hindustan
    Posts
    246
    جزاك الله خيرا
    16
    251 Times جزاك الله خيرا in 139 Posts
    جزاك الله....اخى
    كتب عليكم القتال وهو كره لكم

Posting Permissions

  • You may not post new threads
  • You may not post replies
  • You may not post attachments
  • You may not edit your posts
  •